আজ: রবিবার, ০২ অক্টোবর ২০২২ইং, ১৭ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৪ঠা রবিউল আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

২২ জানুয়ারী ২০১৮, সোমবার |


kidarkar

শুভকামনা বাংলাক্রিকেটের প্রথম সুপারস্টারের প্রতি


 ২০০১ সালের ৮ সেপ্টেম্বর!
আচমকা ক্রিকেটবিশ্ব অবাক হয়ে যায় সেদিন! 
মুরালির অগ্নিদাহ চোখে চোখ রেখে, চামিন্দার বিশ্বসেরা লাইনকে বুড়ো আঙ্গুল দেখিয়ে একটি শিশু ব‍্যাট চালাচ্ছে রাজকীয় স্টাইলে! শিশুইতো! তখনো যে তার বয়স ১৮ ই হয়নি! অভিষেক ম‍্যাচেই করে ফেললেন ১১৪ রানের মহাকাব্যিক ইতিহাস সেরা শতক! সেদিন শ্রীলংকার “সিংহলি স্পোর্টস ক্লাব” থেকে এক বিশ্বয় বালকের সাথে পরিচয় হয় বিশ্বক্রিকেটের!!
তখনকার সময়ে যেকোন ব‍্যাটসম‍্যানের জন‍্য বিশ্বের সব চেয়ে আতঙ্কিত বোলার মুরালি ধরন বলেছিলেন, “অবিশ্বাস্য সে! আমি অভিভূত! অভিষেক ম‍্যাচে এমন সাবলীল সাহসী ব‍্যাটিং আর দেখিনি”।

তখনো বাংলাদেশ মাঠে নামে কেবল সম্মানজনক ভাবে হারার জন‍্য! তখনো বাংলাদেশ ক্রিকেট সাকিব তামিম মুশিদের পায়নি! তখনো বাংলাদেশের ১০ উইকেকেটে ৮/৯ টি ই স্লিপে সহজ ক‍্যাচ দিয়ে আউট হয়ে যায়!
তখনো আমাদের হাত থেকে ক‍্যাচ বলগুলি ব‍্যাঙবলের মতোই মাঠে লাফিয়ে গড়ায়!
বিশ্বক্রিকেটের চোখে তখনো আমরা একটি অবহেলিত ক্রিকেট দল!
তখনো আমরা মাঠে জয় তো দূরে থাক প্রতিযোগিতা করার সাহসও অর্জন করিনি! আমি সেই সময়ের কথা বলছি, যখন জিম্বাবুয়েও আমাদের বলে কয়ে হেসে খেলে হারাতো!

তেমন এক বাংলাদেশেই প্রথম এক সুপারস্টারের আবির্ভাব হয়! তার নাম মোঃ #আশরাফুল!

আশরাফুল বিশ্বের কনিষ্ঠতম খেলোয়াড় হিসেবে টেস্ট শতক করার রেকর্ডের অধিকারী। নিজের ১৭তম জন্মদিনের একদিন পূর্বে ২০০১ সালের ৮ সেপ্টেম্বরে সিংহলিজ স্পোর্টস ক্লাব গ্রাউন্ডে অনুষ্ঠিত এশিয়ান টেস্ট চ্যাম্পিয়নশীপে তিনি তার অভিষেক টেস্টে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে ১১৪ রান করে এই কৃতিত্ব অর্জন করেন!

এরপর বিশ্ব ২০০৫ সালে আশরাফুল শো দেখেছে, ২০০৭ এ টি২০ যুগের পূর্বেই টি২০ স্টাইল দেখেছে! বিশ্বক্রিকেটে যোগ হয় একটি বিশেষ ব‍্যাটিং শর্ট —- আশরাফুলিও শর্ট!! রিয়েল ম‍্যাচ উইনিং প্লেয়ার বলতে যা বোঝায় মোঃ আশরাফুল তেমনই একজন!

ভুল মানুষেই করে! স্বীকারও বা ক’জন করে! আর অপরাধ করার পরে যদি স্বীকার করে এবং যখন তার শাস্তি হয় তারপর সে পরিশুদ্ধ হয়! আমার ক্রিকেট লাইফের সবচেয়ে সবচেয়ে এবং সবচেয়ে প্রিয় ক্রিকেটারকে (৯৮) সেদিনই ক্ষমা করে দিয়েছিলাম যেদিন দেখেছিলাম মিডিয়ার সামনে কাঁদতে কাঁদতে বিসিবি চত্বর ত‍্যাগ করেছিলেন!

ভাই,
আপনি ২০০১ এর সিংহলীর সিংহ, ২০০৫ এ সুফিয়া গার্ডেনের অগ্নিবাণ, ২০০৭ এ সাউথ আফ্রিকায় বিসুভিয়াস, ক্রিকেট বিশ্বের বিস্ময়বালক!
অনেক কিছুই বদলে যাবে! আপনি আমার প্রিয় ফরএভার!!

শুভকামনা বাংলাক্রিকেটের প্রথম সুপারস্টারের প্রতি!

আপনার অপেক্ষায়…..

লেখক: ক্রিকেট পোকা শাহারীয়ার শাহীন
মিরপুর, ঢাকা।

 

শেয়ারবাজারনিউজ/ম.সা


আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.