বাগদা চিংড়ির নাম স্নোডেন

Chingriশেয়ারবাজার ডেস্ক: বাগদা চিংড়ির নতুন এক প্রজাতির নাম রাখা হয়েছে স্নোডেন। মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থা’র সাবেক কর্মকর্তা এডওয়ার্ড স্নোডেনের নামে এই নাম করন করা হয়। মার্কিন সরকারের আড়িপাতার ন্যাক্কারজনক কর্মসূচির বিষয়টি ফাঁস করে বিশ্বব্যাপী সাড়া ফেলে দিয়েছিলেন স্নোডেন।

স্নোডেনের নামে বাগদা চিংড়ির নতুন এ প্রজাতির নামকরণ করেছে একটি জার্মান গবেষক দল। তিন সদস্যের এ দলের অন্যতম ক্রিস্টিয়ান লুকহাপ মার্কিন দৈনিক ওয়াশিংটন পোস্টের কাছে এর কারণ তুলে ধরেছেন। তিনি বলেন, মানবতার জন্য তেমন কোনো অবদান না রাখা সত্ত্বেও, অনেক খ্যাতনামা ব্যক্তির নামে নানা প্রজাতির নামকরণ করেছেন গবেষকরা। এ ক্ষেত্রে এডওয়ার্ড স্নোডেন খুবই বিশেষ ভূমিকা পালন করেছেন এবং  তার প্রতি সমর্থন জানানোর জন্য বাগদা চিংড়ির এ প্রজাতি নাম তার নামে রাখা হয়েছে বলে জানান লুকহাপ।

নতুন প্রজাতির এ বাগদা চিংড়ির বিবরণ ‘জু কিজ’ নামের গবেষণা সাময়িকীতে প্রকাশিত হয়েছে। ‘চেরাক্স স্নোডেন’ নামের এ বাগদা প্রজাতি ইন্দোনেশিয়ার পশ্চিম পাপুয়ার তাজাপানিতে পাওয়া যায়। তিন থেকে চার ইঞ্চি লম্বা এ চিংড়ির সাড়াশির রং সবুজ এবং কমলা। এর আগে অন্য এক প্রজাতির বাগদার সঙ্গে এর পরিচয় গুলিয়ে ফেলা হয়েছিল।

শোভাবর্ধনের জন্য এ জাতের বাগদা চিংড়ি পোষা হয়। এ সব চিংড়ি ইউরোপ, পূর্ব এশিয়া এবং উত্তর আমেরিকায় রফতানি হয়। খাওয়ার নয় পোষার জন্য। ফলে গত কয়েক বছরে প্রকৃতিতে এ প্রজাতির সংখ্যা উল্লেখযোগ্য হারে কমছে। সংগ্রাহকদের হাত এড়াতে এ সব পানির নিচের স্নোডেন বড় বড় পাথরের আড়ালে আত্মগোপন করে থাকে।

এদিকে মার্কিন আইন প্রয়োগকারী সংস্থার হাত থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য একই ভাবে রাশিয়ায় আত্মগোপন করে আছেন এডওয়ার্ড স্নোডেন। সূত্র: ইন্টারনেট।

শেয়ারবাজারনিউজ/রু

আপনার মন্তব্য

*

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Top