আজ: সোমবার, ২৯ নভেম্বর ২০২১ইং, ১৪ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২২শে রবিউস সানি, ১৪৪৩ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

২৬ অক্টোবর ২০২১, মঙ্গলবার |



kidarkar

রেস্তোরাঁ-পর্যটন খাত পাচ্ছে প্রণোদনার সুবিধা

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: প্রণোদনার আওতায় এসেছে করোনাকালে ক্ষতিগ্রস্ত রেস্তোরাঁ, পর্যটন খাতের হোটেল, মোটেল এবং থিম পার্ক। এ সুবিধার আওতায় এনে পরিপত্র জারি করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। এর ফলে ব্যাংকগুলো ওই সব খাতে ৪ শতাংশ সুদে ঋণ দিতে পারবে। পরিপত্রটি ব্যাংকের শীর্ষ নির্বাহীদের কাছে পাঠানো হয়েছে। বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোকে প্রণোদনার মোট তহবিলের অর্ধেক দিয়ে থাকে বাংলাদেশ ব্যাংক।

এই পুনঃ অর্থায়ন সুবিধার বিপরীতে প্রণোদনা প্যাকেজের আওতায় সব গ্রাহকের (পুরোনো/নতুন) অনুকূলে ঋণ ও বিনিয়োগসীমা বিদ্যমান ওয়ার্কিং ক্যাপিটাল-সুবিধা অথবা প্রাপ্যতার পরিমাণের সর্বোচ্চ শতকরা ৩০ ভাগ নির্ধারণ করে দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। গতকাল সোমবার বাংলাদেশ ব্যাংকের অব-সাইট সুপারভিশন বিভাগ এ-সংক্রান্ত একটি সার্কুলার জারি করেছে।

সার্কুলারে বলা হয়েছে, ‘পুনঃ অর্থায়নকৃত অর্থ সরবরাহের লক্ষ্যে ২০২০ সালের ৩১ ডিসেম্বর ভিত্তিতে বিদ্যমান ওয়ার্কিং ক্যাপিটাল-সুবিধা বাবদ মঞ্জুরিকৃত অথবা প্রদত্ত সীমার সর্বোচ্চ শতকরা ৩০ ভাগ এবং এরূপ ক্ষতিগ্রস্ত যেসব প্রতিষ্ঠান বর্তমানে ব্যাংক থেকে ওয়ার্কিং ক্যাপিটাল ঋণ ও বিনিয়োগ-সুবিধা পাচ্ছে না, কেবল সেসব প্রতিষ্ঠান এ সুবিধা পেতে পারে। আর ঋণ প্রদান ও বিনিয়োগ সম্পাদনে আগ্রহী ব্যাংকের বিদ্যমান নীতিমালার আওতায় সংশ্লিষ্ট ব্যাংক কর্তৃক বিতরণকৃত ঋণের অথবা বিনিয়োগের বিপরীতে উক্ত পুনঃ অর্থায়ন সুবিধা গ্রহণ করতে পারবে।’

উল্লিখিত প্রণোদনা প্যাকেজের আওতায় ঋণ বিতরণ ও বিনিয়োগের বিপরীতে পুনঃ অর্থায়ন গ্রহণের জন্য চলতি বছরের ১ নভেম্বর থেকে ২০২২ সালের ৩১ অক্টোবর পর্যন্ত সময়ের মধ্যে আবেদন করতে হবে। আর প্রণোদনা প্যাকেজের আওতায় পুনঃ অর্থায়ন গ্রহণে ইচ্ছুক ব্যাংক কর্তৃক কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সঙ্গে একটি অংশগ্রহণমূলক চুক্তি স্বাক্ষর করতে হবে। প্রণোদনা প্যাকেজের সময়ের আওতায় প্রতিটি মাসের বেতন প্রদানের নিমিত্তে গৃহীত ঋণ অথবা বিনিয়োগ পরিশোধের জন্য গ্রাহক ঋণ অথবা বিনিয়োগ গ্রহণের তারিখ থেকে এক বছর সময় পাবেন।

এদিকে বকেয়া বেতন-ভাতা পরিশোধের লক্ষ্যে এককালীন অর্থ বরাদ্দের ক্ষেত্রে যে তারিখ অথবা মাস থেকে কর্মচারীদের বেতন বকেয়া আছে, তার অব্যবহিত পূর্বের তিন মাসের বেতনের গড় পরিমাণকে ভিত্তি ধরে হিসাব সম্পন্ন করার বিধান রাখা হয়েছে।

এ ছাড়া গ্রাহক ঋণ ও বিনিয়োগ গ্রহণের এক বছরের মধ্যে যেকোনো সময় ওই ঋণ অথবা বিনিয়োগের সম্পূর্ণ অথবা আংশিক মূলধন পরিশোধ করলে তা ১০ দিনের মধ্যে বাংলাদেশ ব্যাংককে বিষয়টি অবহিত করতে বলা হয়েছে।

করোনার শুরু থেকে সবচেয়ে বেশি সময় বন্ধ ছিল পর্যটনশিল্প। বাংলাদেশের সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত খাতের মধ্যে অন্যতম এই পর্যটন। এ খাতের স্থবিরতায় বড় লোকসানের পাশাপাশি চাকরি হারিয়ে বেকার হয়েছেন কয়েক লাখ মানুষ।

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.