আজ: শনিবার, ২২ জানুয়ারী ২০২২ইং, ৮ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৭ই জমাদিউস সানি, ১৪৪৩ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

১২ ডিসেম্বর ২০২১, রবিবার |



kidarkar

দেশের মোট রেমিটেন্স আয়ের ৫৪ শতাংশই আসে মধ্যপ্রাচ্য থেকে

নিজস্ব প্রতিবেদক: চলতি ২০২১-২২ অর্থবছরের প্রথম ৫ মাস তথা জুলাই-নভেম্বর পর্যন্ত দেশে ব্যাংকিং চ্যানেলের মাধ্যমে রেমিটেন্স এসেছে ৮৬০ কোটি ৮৯ লাখ ডলার। এর মধ্যে শুধু মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলো থেকেই এসেছে ৪৬৬ কোটি ৯৩ লাখ ডলার, যা মোট আহরিত রেমিটেন্সের ৫৪ দশমিক ২৪ শতাংশ। আর বিশ্বের অন্যান্য দেশগুলো থেকে রেমিটেন্স এসেছে ৩৯৩ কোটি ৯৬ লাখ ডলার।

বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রকাশিত প্রতিবেদনে তথ্য বলছে, সদ্যসমাপ্ত নভেম্বর মাসে ব্যাংকিং চ্যানেলে প্রবাসী বাংলাদেশিরা দেশে ১৫৫ কোটি ৩৭ লাখ (১.৫৫ বিলিয়ন) মার্কিন ডলার রেমিটেন্স পাঠিয়েছেন। প্রবাসী আয়ের এ অংক গত বছরের নভেম্বরের চেয়ে ২৫ শতাংশ বা ৫২ কোটি ৫০ লাখ টাকা কম। গত বছরের নভেম্বরে রেমিটেন্স এসেছিল ২০৭ কোটি ৮৭ লাখ ডলার। শুধু তাই নয়, নভেম্বরের রেমিটেন্সের এ পরিমাণ গত ১৮ মাসের মধ্যে সর্বনিম্ন। এর আগে ২০২০ সালের মে মাসের দেশে ১৫০ কোটি ডলার সর্বনিম্ন রেমিটেন্স এসেছিল।

বাংলাদেশ ব্যাংকের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, চলতি অর্থবছরে প্রবাসী আয় পাঠানোর শীর্ষে থাকা ১০ দেশের মধ্যে ৬টি হলো মধ্যপ্রাচ্যের দেশ। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি রেমিটেন্স এসেছে সৌদি আরব থেকে। চলতি অর্থবছরের ৫ মাসে দেশটি থেকে প্রবাসীরা রেমিটেন্স পাঠিয়েছেন ২০৬ কোটি ৫০ লাখ ডলার। যা মোট আহরিত রেমিটেন্সের প্রায় ১৯ শতাংশ।

তথ্য বলছে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় শ্রমবাজার সৌদি আরবের পরই প্রবাসী আয়ের শীর্ষে রয়েছে বিশ্বের সবচেয়ে বড় অর্থনীতির দেশ যুক্তরাষ্ট্র। অর্থবছরের প্রথম পাঁচ মাসে দেশটি থেকে রেমিটেন্স এসেছে ১৪২ কোটি ৩৮ লাখ ডলার। এছাড়া যুক্তরাজ্য, কুয়েত, আরব আমিরাত, কাতার, মালয়েশিয়া, ওমান, ইতালি ও বাহরাইন রয়েছে ধারাবাহিকভাবে তালিকার পরবর্তী অবস্থানগুলোতে।

প্রবাসী আয়ে তৃতীয় শীর্ষে স্থানে থাকা যুক্তরাজ্য থেকে এসেছে ৭৩ কোটি ৪০ লাখ ডলার। চতুর্থ অবস্থানে থাকা কুয়েত থেকে রেমিটেন্স এসেছে ৭০ কোটি ডলার। পঞ্চম অবস্থানে আছে মধ্যপ্রাচ্যের আরেক দেশ সংযুক্ত আরব আমিরাতে (ইউএই)। দেশটি থেকে এসেছে ৬৯ কোটি ৪৮ লাখ ডলার। কাতার থেকে এসেছে ৫৬ কোটি ৯০ লাখ ডলার, মালয়েশিয়া ৪৪ কোটি ডলার, ওমান থেকে ৪২ কোটি ডলার, ইতালি ৪১ কোটি ৫৭ লাখ ডলার এবং বাহরাইন থেকে রেমিটেন্স এসেছে ২২ কোটি ডলার।

প্রতিবেদনের তথ্য অনুযায়ী, চলতি ২০২১-২২ অর্থবছরে প্রথম পাঁচ মাসে রেমিটেন্স এসেছে ৮৬০ কোটি ৮৮ লাখ ডলার, যা আগের অর্থবছরের একই সময়ের তুলনায় প্রায় ২১ শতাংশ কম। ২০২০-২১ অর্থবছরে প্রথম পাঁচ মাসে রেমিটেন্স এসেছিল এক হাজার ৮৯ কোটি ৪১ লাখ ডলার। দেশীয় মুদ্রায় যার অংক ছিল ৯২ হাজার ৬০০ কোটি টাকা।

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.