আজ: রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪ইং, ৯ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৫ই জিলহজ, ১৪৪৫ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

২১ ডিসেম্বর ২০২১, মঙ্গলবার |

kidarkar

ভোলায় বহিষ্কার হচ্ছেন আওয়ামী লীগের ১৭ বিদ্রোহী প্রার্থী 

জাতীয় ডেস্ক: ভোলায় ১২ ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে শেষ মুহূর্তে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার না করায় ১৭ বিদ্রোহী প্রার্থীকে বহিষ্কার করা হচ্ছে। দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে দল থেকে বহিষ্কার হচ্ছেন তারা।

দলের বৈঠক শেষে অভিযুক্তদের বহিষ্কারে চূড়ান্ত চিঠি দেওয়া হবে বলে জানান উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আজিজুল ইসলাম।

রোববার (১৯ ডিসেম্বর) মনোনয়নপত্র প্রত্যারের শেষ দিনে চেয়ারম্যান পদে ৮ জন মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করেন। এর মধ্যে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী রয়েছেন ৬ জন।

বাকি দুইজন হলেন, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ (হাতপাখা প্রতীক) এর আক্তার হোসেন ও বিএনপির আব্দুল জলিল খান।

আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী প্রত্যাহারকারীরা হচ্ছেন ভেলুমিয়া ইউপির ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি আব্দুস সাত্তার খান, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মো. মহসিন খান, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সম্পাদক আবুল খায়ের লিটন ও তার মা আজিজুননেছা। ধনিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি মো. কামরুল আহসান তালুকদার ও ভেদুরিয়া ইউনিয়নের হারুন অর রশিদ।

বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে আওয়ামী লীগ থেকে যারা বহিস্কৃত হচ্ছেন তারা হলেন- শিবপুর ইউনিয়নে উপজেলা আওয়ামী লীগ সাংগঠনিক সম্পাদক মো. সিরাজুল আলম, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ নেতা মো. শিবলি হাসান, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা হাসান মোর্শেদ জুয়েল। উত্তর দিঘলদী ইউনিয়নে উপজেলা আওয়ামী নির্বাহী সদস্য মো. তাজুল ইসলাম। বাপ্তা ইউনিয়নে যুবলীগ সভাপতি কামাল হোসেন, তার স্ত্রী বিবি আচিয়া বেগম ও ভাই মো. ইকরাম হোসেন। যুবলীগ নেতা টিটু হত্যা মামলা থাকায় কামাল হোসেন পলাতক রয়েছেন।

ভেদুরিয়া ইউনিয়নে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক মো. মোসলেউদ্দিন, যুবলীগ সভাপতি মো. মোস্তফা কামাল। পশ্চিম ইলিশা ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সম্পাদক গিয়াসউদ্দিন, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ কোষাধ্যক্ষ মোঃ নুরনবী। ইলিশা ইউনিয়নে উপজেলা আওয়ামী লীগের নির্বাহী সদস্য মো. সিরাজুল ইসলাম, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ যুগ্ম সম্পাদক আনোয়ার হোসেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-দপ্তর সম্পাদক আনোয়ার হোসেন (ছোটন)। রাজাপুর ইউনিয়নে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি সাবেক চেয়ারম্যান রেজাউল হক মিঠু চৌধুরী ও দক্ষিণ দিঘলদী ইউনিয়নে যুবলীগ নেতা নওশাদ হোসেন ( মুন)।

উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান মো. মোশারেফ হোসেন জানান, বিদ্রোহীদের বিষয়ে এক সপ্তাহ আগেই চিঠি দিয়ে দলের সিদ্ধান্ত জানিয়ে দেওয়া হয়েছিল। যারা সিদ্ধান্ত মেনেছেন তাদের পুরস্কৃত করা হবে। যারা মানেননি তাদের আজীবনের জন্য বহিস্কার করা হচ্ছে।

অপর দিকে পূর্ব ইলিশা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ যুগ্ম সম্পাদক আনোয়ার হোসেন, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-দপ্তর সম্পাদক আনোয়ার হোসেন (ছোটন), উপজেলা আওয়ামী লীগ সাংগঠনিক সম্পাদক মো. সিরাজুল আলম, রাজাপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি রেজাউল হক মিঠু চৌধুরী, ভেদুরিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোসলেউদ্দিন পাটোয়ারী ও পশ্চিম ইলিশা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক গিয়াসউদ্দিন আহম্মেদ বহিস্কার হওয়ার আগেই সোশ্যাল মিডিয়া ফেসবুকের মাধ্যমে দলের দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি নেওয়ার কথা ঘোষণা করেন।

 

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.