আজ: সোমবার, ২৩ মে ২০২২ইং, ৯ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২০শে শাওয়াল, ১৪৪৩ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

১২ এপ্রিল ২০২২, মঙ্গলবার |



kidarkar

৩৬ টি রোজা হবে ২০৩০ সালে

শেয়ারবাজার ডেস্ক:সিয়াম সাধনা ও আত্মশুদ্ধির পবিত্র মাস মাহে রমজান। প্রতিটি ধর্মপ্রাণ মুসলমানের জন্য রমজান মাস অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। বছরের বিশেষ এই মাসটি মহান আল্লাহর তরফ থেকে মুমিন বান্দাদের জন্য অফুরন্ত নেয়ামত আর বরকতে পরিপূর্ণ।

বরকতের এই মাসটি প্রতিবছর একবার পাওয়া গেলেও ২০৩০ সালে রমজান মাস দুবার পাওয়া যাবে। দুবাই অ্যাস্ট্রোনমি গ্রুপের চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার হাসান আহমেদ আল হারিরি নিশ্চিত করেছেন, ২০৩০ সালে দুটি রমজান হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

কারণ হিসেবে চন্দ্র বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ইংরেজি বর্ষপঞ্জি ও চান্দ্র বছরের মাসগুলোর পার্থক্যের কারণে এমনটা ঘটবে। সাধারণত ইংরেজি বছরের মাসগুলো ৩০ অথবা ৩১ দিনে নির্ধারিত থাকে। কিন্তু চান্দ্র বছরের মাসগুলো নির্ধারিত হয় ২৯ অথবা ৩০ দিনে। মাসে দিনের এই পার্থক্যের কারণে ইংরেজি বছর শেষে চান্দ্র বছর ১১ দিন কমে যায়।

চন্দ্র বিশেষজ্ঞ মিনহাল খান জানান, এভাবে বছরে ১১ দিন পার্থক্য থেকে যাওয়ায় ২০৩০ সালে দুবার রমজান মাস পাবে মুসলমানরা।

এ বিষয়ে সৌদি আরব বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূগোল বিভাগের জলবায়ুর অধ্যাপক ড. আবদুল্লাহ আল মুসনাদ মনে করেন, দুবার রমজান মাসের সঙ্গে সে বছর রোজা হবে ৩৬টি। তবে এই ৩৬টি রোজা একবারে হবে না। চান্দ্রবর্ষ হিসাবমতে, ২০৩০ সালের প্রথম রমজান মাস পাওয়া যাবে ৫ জানুয়ারি থেকে ৩ ফেব্রুয়ারি। এ হিসাবে ১৪৫১ হিজরির পবিত্র রমজান মাসের রোজা হবে ৩০টি।

এর ঠিক ১০ মাস পর আরও একটি রমজান মাস পাওয়া যাবে। অর্থাৎ ২৬ ডিসেম্বর থেকে ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত পাওয়া এই রমজান মাসে রোজা হবে ৬টি। ইংরেজি বর্ষপঞ্জি ও চান্দ্র বছরের মাসগুলোর পার্থক্যের কারণে মুসলমানরা ২০৩০ সালে দুটি রমজান মাস পাবে। সেই সঙ্গে রোজা পাবে ৩৬টি।

১ টি মতামত “৩৬ টি রোজা হবে ২০৩০ সালে”

  • এম এন আজিম says:

    ২০৩০ সালে রমজান মাস দুই বার পাবে, সেটা ঠিক আছে। কিন্তু ৩৬ টা রোজার গ্যারান্টি কেউ দিতে পারবেনা। কারন আরবি মাস ২৯ শে যাবে নাকি ৩০ শে যাবে সেটা একমাত্র আল্লাহ ছাড়া কেউ জানেনা।

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.