আজ: সোমবার, ০৪ জুলাই ২০২২ইং, ২০শে আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৩রা জিলহজ, ১৪৪৩ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

২৩ জুন ২০২২, বৃহস্পতিবার |



kidarkar

এমপিওভুক্তির তালিকা চূড়ান্ত, আগামী সপ্তাহে প্রকাশ

শেয়ারবাজার ডেস্ক:নতুন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্তির তালিকায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অনুমোদন নেওয়া হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২৩ জুন) এ তালিকা শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে পাঠানোর কথা রয়েছে। তবে শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি করোনায় আক্রান্ত হওয়ায় তা আগামী সপ্তাহে প্রকাশ করা হবে।

শিক্ষা মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, নতুন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত করতে সারাদেশে দুই হাজারের বেশি সাধারণ, কারিগরি ও মাদরাসাকে তালিকাভুক্ত করে একটি খসড়া তৈরি করা হয়েছে। সেটি চূড়ান্ত করে শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে বৃহস্পতিবার (১৬ জুন) প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরে পাঠানো হয়। সেই তালিকায় প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদন নেওয়া হয়েছে। সেটি আজ শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হতে পারে।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিব মো. আবু বকর সিদ্দীক গণমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, এমপিওভুক্তির তালিকা প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরে পাঠানো হয়েছে। তালিকা চূড়ান্ত হয়ে এলে তা প্রকাশ করা হবে।

এর আগে রোববার (৫ জুন) সচিবালয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয় এক সংবাদ সম্মেলনে দুই হাজারের বেশি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্তির ঘোষণা দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ড. দীপু মনি।

স্কুল-কলেজসহ বিভিন্ন বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্তির অর্থাৎ মান্থলি পে-অর্ডারের আওতায় প্রতি মাসে নির্দিষ্ট অঙ্কের সরকারি অনুদান পেয়ে থাকে। বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্তির আবেদন যাচাই-বাছাইয়ে গত বছরের ৭ নভেম্বর ৯ সদস্যের কমিটি গঠন করে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। কমিটিকে সহায়তা করতে চার সদস্যের একটি উপ-কমিটিও গঠন করা হয়।

গত ৩০ সেপ্টেম্বর বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান (স্কুল ও কলেজ) এমপিওভুক্ত করতে গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। বিজ্ঞপ্তিতে ১০ থেকে ৩১ অক্টোবর পর্যন্ত এমপিওভুক্তির জন্য আবেদন করতে বলা হয়। ২০১৯ সালে দুই হাজার ৬২২টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত করার পর নতুন করে আর কোনো প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত করা হয়নি।

নতুন অর্থবছরের বাজেট বরাদ্দের যে প্রস্তাব শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে পাঠানো হয়েছে, তাতে নতুন প্রতিষ্ঠানের এমপিওভুক্তির জন্য ২৫০ কোটি টাকা বরাদ্দ রাখার কথা বলা হয়। এর মধ্যে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের জন্য ২০০ কোটি টাকা এবং কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগের জন্য ৫০ কোটি টাকা।

 

শেয়ারবাজার নিউজ/খা.হা.

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.