আজ: শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪ইং, ১লা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ৮ই জিলহজ, ১৪৪৫ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

১২ জুলাই ২০২২, মঙ্গলবার |

kidarkar

পালাচ্ছিলেন শ্রীলঙ্কার প্রেসিডেন্ট, আটকে দিলেন বিমানবন্দর কর্মীরা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:গোপনে দেশ ছেড়ে সংযুক্ত আরব আমিরাতে যেতে স্ত্রীসহ কলম্বো আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এসেছিলেন শ্রীলঙ্কার প্রেসিডেন্ট গোতাবায়া রাজাপাকসে। তবে বিমানবন্দরের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ‘অসহযোগিতার’ কারণে শেষ পর্যন্ত আর যাওয়া হয়নি তার।

ফরাসি বার্তা সংস্থা এএফপির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আমিরাতে যাওয়ার উদ্দেশে মঙ্গলবার দুপুরের দিকে স্ত্রীকে নিয়ে কলম্বো আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে আসেন গোতাবায়া এবং আমিরাতগামী কোনো একটি ফ্লাইটের ভিআইপি স্যুট বরাদ্দ করার নির্দেশ দেন তিনি।

এ সময় বিমানবন্দরের কর্মকর্তারা তাকে উড়োজাহাজের ভিআইপি স্যুট দিতে অপারগতা জানান। সাধারণ মানুষের লাইনে দাঁড়িয়ে বিমানে ওঠার বিকল্প অবশ্য তার সামনে ছিল; কিন্তু দেশের জনগণ তার ওপর অতিমাত্রায় ক্ষুব্ধ থাকায় সেই লাইনে দাঁড়ানোর সাহস করেননি তিনি।

এর আগে, সোমবার রাতে বিমানবন্দরের নিকটবর্তী একটি সামরিক ঘাঁটিতে ছিলেন গোতাবায়া। তবে মঙ্গলবার বিমানবন্দর ত্যাগের পর তিনি কোথায় আছেন, সে সম্পর্কিত কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি।

১৯৪৮ সালে ব্রিটেনের কাছ থেকে স্বাধীনতা লাভের পর স্মরণকালের সবচেয়ে ভয়াবহ আর্থিক সংকটের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে শ্রীলঙ্কা। বর্তমানে দেশটিতে বিদেশি মুদ্রার রিজার্ভ বলতে আর কিছুই নেই। ফলে ২ কোটি ২০ লাখ মানুষ অধ্যুষিত শ্রীলঙ্কা খাবার, ওষুধ, জ্বালানির মতো অতি জরুরি আমদানিও করতে পারছে না।

বর্তমান এই দুরাবস্থার জন্য দেশটির অধিকাংশ মানুষ প্রেসিডেন্ট গোতাবায়া রাজাপাকসে এবং তার  বড়ভাই ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী মাহিন্দা রাজাপাকসের নেতৃত্বাধীন সরকারকে দায়ী করে তাদের পদত্যাগের দাবিতে গত মার্চ থেকেই শান্তিপূর্ণ আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছেন শ্রীলঙ্কার সাধারণ জনগণ।

ইতোমধ্যে ব্যাপক বিক্ষোভের মুখে গত মে মাসে প্রধানমন্ত্রীর পদ থেকে সরে দাঁড়াতে বাধ্য হয়েছেন গোতাবায়ার বড়ভাই এবং শ্রীলঙ্কার সাবেক প্রধানমন্ত্রী মাহিন্দা রাজাপাকসে।

গত ১০ ডিসেম্বর শ্রীলঙ্কার পার্লামেন্টের স্পিকার জানান, প্রেসিডেন্টের পদ থেকে অব্যাহতি নেওয়া এবং শান্তিপূর্ণভাবে ক্ষমতা হস্তান্তরের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন গোতাবায়া রাজাপাকসে। তবে গোতাবায়ার পক্ষ থেকে এখনও এ বিষয়ে কোনো বিবৃতি দেওয়া হয়নি।

গোতাবায়া যতদিন প্রেসিডেন্ট থাকবেন, ততদিন তাকে গ্রেপ্তারের এক্তিয়ার নেই আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর। এ কারণে পদে থাকা অবস্থাতেই তিনি দেশ ছাড়তে চেয়েছিলেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

 

শেয়ারবাজার নিউজ/খা.হা.

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.