আজ: বৃহস্পতিবার, ২৩ মার্চ ২০২৩ইং, ৯ই চৈত্র, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২৯শে শাবান, ১৪৪৪ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

৩০ জুলাই ২০২২, শনিবার |


kidarkar

ঝুঁকি এড়িয়ে চলতে চাইলে মিউচুয়াল ফান্ড ও বন্ডে বিনিয়োগ করুন: বিএসইসি চেয়ারম্যান


নিজস্ব প্রতিবেদক : বিনিয়োগকারীর ঝুঁকি নেয়ার যোগ্যতা না থাকলে তাকে শেয়ারে বিনিয়োগ না করার পরামর্শ দিয়েছেন বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) চেয়ারম্যান অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলাম। বিকল্প হিসেবে বিনিয়োগকারীকে মিউচুয়াল ফান্ড ও বন্ডে বিনিয়োগের আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

বিএসইসি চেয়ারম্যান বলেন, আপনার যদি রিস্ক বা ঝুঁকি নেওয়ার যোগ্যতা থাকে তাহলে রিস্ক নেন। শেয়ারে বিনিয়োগ করেন। আর রিস্ক নিতে না চাইলে মিউচুয়াল ফান্ড এবং আমাদের নতুন প্রোডাক্ট বন্ড মার্কেটে ইনভেস্ট করতে পারেন। তবে শেয়ারবাজার সংক্রান্ত জ্ঞান না থাকলে নিজে সরাসরি শেয়ারে বিনিয়োগ করার সিদ্ধান্ত নেয়া উচিৎ নয়। সিদ্ধান্তের আগে অবশ্যই জ্ঞান অর্জন করা প্রয়োজন বলে তিনি মনে করেন।

তিনি বলেন, আমাকে যদি আমার অজানা বিষয়গুলো নিয়ে প্রশ্ন করা হয় আমি অনেক কিছুই পারবো না। এখন আপনাদের বিনিয়োগ বিষয়ে অর্থনীতির বিষয়ে যদি জ্ঞান না থাকে আপনি যদি রহিম কি করলো করিম কি করলো তা দেখে বিনিয়োগ করেন তাহলে আপনি বিপদে পরবেন। তাই বিনিয়োগ শিক্ষা অতিব গুরুত্বপূর্ণ।

শনিবার (৩০ জুলাই) ময়মনসিংহের টাউন হলের এডভোকেট তারেক স্মৃতি অডিটোরিয়ামে দুইদিন ব্যাপী বিনিয়োগ শিক্ষা মেলার শেষ দিনে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) এবং বাংলাদেশ একাডেমি ফর সিকিউরিটিজ মার্কেটের (বিএএসএম) উদ্যোগে আয়োজিত দেশব্যাপী বিনিয়োগ শিক্ষা কার্যক্রমের ধারাবাহিকতায় “বিনিয়োগ শিক্ষা কনফারেন্স ময়মনসিংহ ২০২২” শীর্ষক এই সেমিনারে সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলাম বলেন, বাজারে বুদ্ধিমান অনেক লোক আছেন। যারা গুজব ছড়িয়ে দেন। অনেক সময় নিজস্বার্থে আবার অনেক সময় রাজনৈতিক স্বার্থে এরকম গুজম ছড়ানো হয় বাজারে অস্থিরতা তৈরির জন্য। যেখানে প্রধানমন্ত্রী নিজেই বলছেন, আমরা সবদিক দিয়ে স্বয়ং সম্পূর্ণ; সেখানে আমরা কেন এতো অস্থির হচ্ছি। আল্লাহতায়ালার অশেষ রহমতে আমরা খাদ্যে স্বয়ং সম্পূর্ণ।

মিতব্যায়ীতা মানে বিপদের সময়ের জন্য প্রস্তুত থাকা উল্লেখ করে তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী আমাদের সতর্ক থাকতে বলেছেন, ভয় দেখাননি। সমালোচনা করতে গিয়ে যে মিথ্যে গুজবগুলো ছড়ানো হচ্ছে তা দেশে অস্থিরতা তৈরি করছে। তাই গুজবে কান দিবেন না। অযথা অস্থির হবেন না।

বিএসইসি চেয়ারম্যান বলেন, আমাদের দেশের অর্থনীতি স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ে সেভিংস নিয়ে আমরা চিন্তা করতাম না, তখন আমরা অন্ন বস্ত্র বাসস্থান নিয়ে চিন্তা করতাম। এখন সেই চিত্র পাল্টেছে। এখন আমরা সেভিংস করার কথা ভাবি। তাই জেনে বুঝে বিনিয়োগ করতে হবে।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ। প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, আমরা শেয়ারবাজারে যাই একটু স্বস্তির জন্য। পারিবারিক কোন চাহিদা, জরুরি প্রয়োজনে যেন সেই টাকাটা কাজে লাগে সেজন্য। আমি আমার রাজনৈতিক কোন অনুষ্ঠানেও এই হল পরিপূর্ণ থাকতে দেখিনা। আজকে এই প্রোগ্রামে যতোটা পরিপূর্ণ। সব বিনিয়োগকারীরা এখানে এসেছেন একটু স্বস্তির জন্য। আর সেই স্বস্তি নিশ্চিত করবেন আমাদের এই সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন।

এসময় বিএসইসি চেয়ারম্যানের প্রশংসায় তিনি বলেন, শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলাম একজন যোগ্য চেয়ারম্যান৷ তিনি এই অস্বস্তিকর বাজারে স্বস্তি এনে দিয়েছেন। তিনি যেভাবে বিনিয়োগকারীদের থেকে প্রতারণা করে নিয়ে চলে যাওয়া টাকা সেই প্রতারকদের ধরে ফিরিয়ে দিয়েছেন তা প্রশংসনীয়।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ইকরামুল হক টিটু, ময়মনসিংহের বিভাগীয় কমিশনার মো: শফিকুল রেজা বিশ্বাস, ময়মনসিংহের উপ-মহা পুলিশ পরিদর্শক দেবদাস ভট্টাচার্য (বিপিএম-সেবা), অর্থ মন্ত্রণালয়ের আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের যুগ্ম সচিব কামরুল হক মারুফ, ময়মনসিংহের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ এনামুল হক, ময়মনসিংহ রেঞ্জের এডিশনাল ডিআইজি মোহাম্মদ এনামুল কবীর এবং ময়মনসিংহ চেম্বার অফ কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি এনামুল হক শামীম।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্যে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) কমিশনার ড. শেখ শামসুদ্দিন বলেন, বিনিয়োগ শিক্ষা অতি প্রয়োজনীয় শেয়ারবাজারে বিনিয়োগের জন্য। এর কোন বিকল্প নেই। বিনিয়োগ শিক্ষা এমন একটি বিষয় যা থেকে অর্থনৈতিক ভাবে উপকৃত হওয়া যায়। অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির জন্য প্রধানমন্ত্রী শুরু করেছেন বিনিয়োগ শিক্ষা কার্যক্রম। তারই ধারাবাহিকতায় আজ ময়মনসিংহে আমাদের এ কার্যক্রম।

তিনি বলেন, বিনিয়োগ শিক্ষার ধাপ তিনটি। জ্ঞান অর্জন, জ্ঞানের প্রয়োগ এবং বিনিয়োগের মনোভাব। এই তিনটি ডাইমেনশনকে ব্যবহার করে পুঁজিবাজারে বিনিয়োগ করতে হবে। তবে আমরা প্রয়ই দেখতে পাচ্ছি, বিভিন্ন ধরনের গুজব, রটনা, মিথ্যা ও অসত্য তথ্যের কারণে আমরা বিনিয়োগের সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে পারছি না। এটি বিনিয়োগের জন্য কল্যাণকর নয়।

এছাড়াও অনুষ্ঠানের মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) নির্বাহী পরিচালক এবং মুখপাত্র মোহাম্মদ রেজাউল করিম এবং বিএসইসির সাবেক কমিশনার আরিফ খান।

বিনিয়োগ শিক্ষা কনফারেন্স ময়মনসিংহ ২০২২ শীর্ষক এ সেমিনারে ডিএসই ব্রোকারেজ এসোসিয়েশনের (ডিবিএ) সাবেক সভাপতি আহমেদ রশীদ লালীর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত প্যানেল আলোচনা এবং প্রশ্ন-উত্তর পর্বে যোগ দেন ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোঃ তারিক আমিন ভূইয়া, ডিবিএর বর্তমান সভাপতি রিচার্ড ডি রোজারিও, বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) নির্বাহী পরিচালক সাইফুর রহমান, বাংলাদেশ একাডেমি ফর সিকিউরিটিজ মার্কেটের (বিএএসএম) মহাপরিচালক ড. তৌফিক আহমেদ এবং বিএমবিএ সভাপতি সাইয়েদুর রহমান।

অনুষ্ঠিত এ সেমিনারে ময়মনসিংহ বিভাগীয় অঞ্চলের বিপুল সংখ্যক বিনিয়োগকারী অংশগ্রহণ করেন।


২ উত্তর “ঝুঁকি এড়িয়ে চলতে চাইলে মিউচুয়াল ফান্ড ও বন্ডে বিনিয়োগ করুন: বিএসইসি চেয়ারম্যান”

  • মোঃ সাহাব উদ্দিন মোল্লা says:

    শেয়ার বাজার লাভ হবে লুজার হবে সাধারণ বিনিয়োগকারী বূঝে শুনে বিনিয়োগ করলে লোকসান গুনতে হবে না কারসাজির মাধ্যমে স্বল্প মূলধনী কোম্পানির শেয়ার দর বৃদ্ধি করে সাধারণ বিনিয়োগকারীদের ক্ষতিগ্রস্ত করে কারসাজির মাধ্যমে শেয়ার বিক্রি করে দিয়ে ধীরে ধীরে কেটে পড়ে। এমতাবস্থায় কারসাজির দের আইনের আওতায় এনে কঠোর শাস্তি দিতে হবে বর্তমান চেয়ারম্যান মহদোয় উন্নয়ন এর অনেক চেষ্টা করে যাচ্ছে অতিতে অন্য কোন চেয়ারম্যান এধরনের কোন প্রয়োজন আছে বলে মনে করেন নাই যাই হোক কারসাজির দের আইনের আওতায় আনা উচিত হবে বলে সাধারণ বিনিয়োগকারী আশা করছে।

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.