আজ: রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ইং, ১২ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ, ১৪ই শাবান, ১৪৪৫ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

০১ সেপ্টেম্বর ২০২২, বৃহস্পতিবার |

kidarkar

ক্ষমতায় গেলে জিয়া হত্যার বিচার করবে বিএনপি

ক্ষমতায় গেলে কমিশন গঠন করে দলের প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমান হত্যাকাণ্ডের বিচার করা হবে বলে জানিয়েছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

বৃহস্পতিবার (১ সেপ্টেম্বর) বিএনপির ৪৪তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে শেরেবাংলা নগরে জিয়াউর রহমানের সমাধিতে ফাতেহা পাঠ ও পুষ্পার্ঘ অর্পণ শেষে তিনি এ কথা বলেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, বিএনপি ক্ষমতায় গেলে আমরা একটা নতুন কমিশন গঠন করবো। জিয়াউর রহমানের হত্যাকাণ্ডের বিচার ও হত্যাকাণ্ডের পেছনে কারা ষড়ন্ত্রকারী তাদের খুঁজে বের করবো।

প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর কর্মসূচিতে সারাদেশে দলের নেতাকর্মীদের ওপর পুলিশ হামলা চালিয়েছে অভিযোগ করে তিনি বলেন, নারায়ণগঞ্জে একজন মারা গেছে। আমি পরিষ্কারভাবে বলতে চাই এই হত্যা করে খুন করে গুম করে আমাদের আন্দোলন নস্যাৎ করা যাবে না। অবিলম্বে হত্যাকারীদের গ্রেফতার করতে হবে।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, একদলীয় শাসনব্যবস্থা থেকে দেশকে মুক্ত করে গণতান্ত্রিক ব্যবস্থায় ফিরিয়ে দেওয়া বিএনপির সামনের দিনের চ্যালেঞ্জ। কারণ সরকার হত্যা, গুম, খুন নির্যাতন করে জনগণের ন্যায় দাবির আন্দোলন নস্যাৎ করতে চায়। কিন্তু আমাদের পরিষ্কার কথা জনগণের ন্যায্য দাবিতে আন্দোলন, হত্যা, গুম, খুন করেও নস্যাৎ করা যাবে না। তাদের ষড়যন্ত্র সফল হবে না। জনগণের বিজয় হবেই।

মির্জা ফখরুল বলেন, জিয়াউর রহমান বাংলাদেশি জাতীয়তাবাদের নতুন দর্শনের ভিত্তিতে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল গঠন করে ছিলেন। তিনি দল গঠনের মধ্যে দিয়ে বাংলার রাজনীতে একটি নতুন অধ্যায় সূচনা করেছিলেন। সূচনা করেছিলেন- মুক্তবাজার অর্থনীতি, সংবাদপত্রের স্বাধীনতা, মানুষের মুক্তি ও স্বাধীনতা। আমরা আজকের এই দিনটিতে শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করতে চাই দলের চেয়ারপারসন বর্তমানে তিনি নেতৃত্ব দিচ্ছেন সেই নেত্রী খালেদা জিয়াকে, যিনি গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করার জন্য সারাটা জীবন সংগ্রাম করেছেন। এখনো লড়াই সংগ্রাম করে যাচ্ছেন।

এ সময় দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র, নজরুল ইসলাম খান, ড. আব্দুল মঈন খান, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু, ভাইস চেয়ারম্যান ব্যারিস্টার শাহজাহান ওমর, ডা. এ জেড এম জাহিদ হোসেন, খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য আমান উল্লাহ আমান, আবদুস সালাম, সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, কেন্দ্রীয় নেতা খায়রুল কবির খোকন, হাবিব উন নবী খান সোহেল, শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানী, ফজলুল হক মিলন, আব্দুস সালাম আজাদ, মীর সরাফত আলী সপু, সাইফুল আলম নীরব, আমিনুল হক, রফিকুল আলম মঞ্জু, শাম্মী আক্তার, রুমিন ফারহানা, শ্যামা ওবায়েদ, সুলতানা মাহমুদ,মিডিয়া সেলের সদস্য শায়রুল কবির খান, বিএনপি চেয়ারপারসনের প্রেস উইং সদস্য শামসুদ্দিন দিদার প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.