আজ: মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪ইং, ৩রা বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ৫ই শাওয়াল, ১৪৪৫ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

০১ অক্টোবর ২০২২, শনিবার |

kidarkar

এক সপ্তাহে ৭ দফায় ব্যালিস্টিক মিসাইল ছুড়লো উত্তর কোরিয়া

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : এক সপ্তাহে সাত দফায় ব্যালিস্টিক মিসাইল ছুড়েছে উত্তর কোরিয়া। শনিবার (১ অক্টোবর) আরো দুটি ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়ে পিয়ংইয়ং সরকার। দক্ষিণ কোরিয়া বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। এই সপ্তাহে সাত দফায় মিসাইল নিক্ষেপ এই অঞ্চলে উত্তেজনা বাড়াচ্ছে বলে অভিযোগ করছে দেশটি।

দক্ষিণ কোরিয়ার জয়েন্ট চিফ অব স্টাফ জানিয়েছে, পিয়ংইয়ংয়ের প্রধান আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের কাছের একটি এলাকা থেকে পূর্ব উপকূলের দিকে দুটি স্বল্প-পাল্লার ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়া হয়েছে। ক্ষেপণাস্ত্রগুলো প্রায় ৩৫০ কিলোমিটার (২২০ মাইল) দূরত্ব অতিক্রম করে এবং প্রায় ৩০ কিলোমিটার উচ্চতায় পৌঁছায় বলেও জানায় তারা।

দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট ইউন সুক ইওল শনিবার সশস্ত্র বাহিনী দিবসে এক বক্তৃতায় বলেন, ‘আন্তর্জাতিকভাবে নিন্দা অব্যাহত থাকা সত্ত্বেও উত্তর কোরিয়া পারমাণবিক অস্ত্র ও ক্ষেপণাস্ত্র নিয়ে তার অবস্থান থেকে সরে আসছে না’।

তিনি হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেন, উত্তর কোরিয়া যদি কখনো পারমাণবিক অস্ত্র ব্যবহার করার চেষ্টা করে তাহলে ‘কঠিন পরিস্থিতির’ মুখোমুখি হতে হবে।

মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিসের সফর এবং রোনাল্ড রিগ্যান বিমানবাহী রণতরী এই সপ্তাহে প্রায় পাঁচ বছরের মধ্যে প্রথম সম্মিলিত নৌ মহড়ার আয়োজন করে দক্ষিণ কোরিয়ার সঙ্গে। এসব ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে উত্তর কোরিয়ার এমন পদক্ষেপ বলে ধারণা করা হচ্ছে।

এর আগে মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিস দক্ষিণ কোরিয়া সফর শেষ করার কয়েক ঘণ্টা পরেই ব্যালিস্টিক মিসাইল ছোড়ার ঘটনায় উত্তর কোরিয়া। এর আগে, স্বল্প-পাল্লার ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করে উত্তর কোরিয়া গত রোববার। জুনের শুরুতে আটটি ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়ার পর রোববার আবারও একই ঘটনা ঘটিয়েছে দেশটি। এরপর গত বুধবার আরো একটি ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করে উত্তর কোরিয়া।

২০২২ সালে, উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উন অন্য যে কোনো বছরের চেয়ে বেশি ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণ করেছেন। তিনি মার্কিন-চালিত ইন্টারসেপ্টর এড়াতে ডিজাইন করা রকেট পরীক্ষাও করেছেন।

পরমাণু ও ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র কর্মসূচির কারণে ২০০৬ সাল থেকে যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞার মধ্যে রয়েছে উত্তর কোরিয়া। এসব কর্মসূচিতে অর্থায়ন বন্ধ করতে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদও ধারাবাহিকভাবে বিধিনিষেধ বাড়িয়েছে। কিন্তু সব নিষেধাজ্ঞাকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে একের পর এক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালিয়ে যাচ্ছে উত্তর কোরিয়া।

সূত্র: ব্লুমবার্গ

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.