আজ: বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪ইং, ৩০শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ৫ই জিলহজ, ১৪৪৫ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

০৯ নভেম্বর ২০২২, বুধবার |

kidarkar

বাংলাদেশে ম্যানুফ্যাকচারিং প্ল্যান্ট উদ্বোধন করলো জাটহোল্ডিংস

নিজস্ব প্রতিবেদক : শ্রীলঙ্কারশীর্ষস্থানীয়কাঠেরকোটিংকোম্পানিজাটহোল্ডিংসপিএলসিসম্প্রতি সাভারের বিরুলিয়ায় একটি বিশেষ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের মাধ্যমেবাংলাদেশে তাদের প্রথম ম্যানুফ্যাকচারিং প্ল্যান্ট, গুদামঘর এবং পরীক্ষাগার উন্মোচন করেছে। বাংলাদেশের বাজারে ব্যাকওয়ার্ড ভার্টিকাল ইন্টিগ্রেসন পদ্ধতির সর্বোন্নত মানের কোটিং পণ্য সরবরাহ করার লক্ষ্যে এই প্ল্যান্টটি তৈরি করা হয়েছে।

নতুন এইপ্রোডাকশনপ্ল্যান্টটিপরিচালনা করবে এশিয়াকোটিংস (প্রাইভেট) লিমিটেড, যা জাট হোল্ডিংসপিএলসি-এরপূর্ণ মালিকানাধীনএকটিসহযোগীপ্রতিষ্ঠান। প্রতিষ্ঠানটিবিখ্যাতজাটকোটিংসসল্যুশনস্‌ -এরঅধীনেকাঠেরকোটিংপণ্যতৈরিকরে। জলবায়ু-নিয়ন্ত্রিতহওয়ায় এই প্ল্যান্ট থেকে বিশ্বমানের পিইউ, ইউভি, এবং ওয়াটার-বেসড কোটিং-এর মতো পণ্য তৈরি করা যাবে। পাশাপাশি, বিপুল সংখ্যক কর্মসংস্থানের সুযোগ তৈরি করে, এই শিল্প কারখানাটি শীঘ্রই বাংলাদেশের অর্থনৈতিক লক্ষ্য ও উন্নয়নে অবদান রাখতে শুরু করবে।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন জাটহোল্ডিংসগ্রুপেরসিইও/নির্বাহীপরিচালকনিশালফার্দিনান্দো, ডিরেক্টর-সেলসঅ্যান্ডটেকনিক্যালওয়াসান্থাগুনারত্নে, বাংলাদেশের কান্ট্রিহেডরাঙ্গাআবেয়াকুনএবংজেনারেলম্যানেজার-মার্কেটিংদিলশানরডরিগো সহ আরো অনেকসিনিয়রম্যানেজমেন্টটিমেরসদস্যরা।

নতুনম্যানুফ্যাকচারিংফ্যাসিলিটিচালুকরারসময়, সিইওনিশালফার্ডিনান্দোবলেন, “ইতিহাসেপ্রথমবারেরমতোবিশ্বমানেরকাঠেরকোটিং-য়েরপণ্যতৈরিরজন্যএকত্রিতহয়েছেশ্রীলঙ্কাএবংবাংলাদেশ। এটি আমাদের জন্য অত্যন্ত আনন্দঘন একটি মুহূর্ত। শ্রীলঙ্কার বাইরে এই প্রথম আমরা অন্য কোনো দেশে সম্পূর্ণ মালিকানাধীন এবং স্বাধীনভাবে ম্যানুফ্যাকচারিং ফ্যাসিলিটি নিয়ে পরিচালনা শুরু করলাম। দক্ষিণ এশিয়ার একটি অন্যতম ব্র্যান্ড হিসেবে জাট হোল্ডিংস পিএলসি-কে প্রতিষ্ঠিত করার আনুষ্ঠানিক শুরু এখানেই।”

বাংলাদেশকান্ট্রিহেডরাঙ্গাআবায়াকুনবলেছেন“ঢাকাতে এই ম্যানুফ্যাকচারিং প্ল্যান্ট চালুকরারসাথেসাথে, এশিয়াকোটিংসবাংলাদেশে ১০০জনেরও বেশিমানুষের কর্মসংস্থানেরসুযোগতৈরিকরেছে। দেশেরকাঠেরকোটিংবাজারকে এগিয়ে নেয়ার লক্ষ্যে এটি একটি উল্লেখযোগ্যঅবদান।”

২০০৩ সালেবাংলাদেশেপদার্পণ করে জাট। এরপর২০বছরেরওবেশিসময়ধরেব্যবসার প্রবৃদ্ধির মাধ্যমে স্থানীয় বাজারে নিজেদের শীর্ষস্থান ধরেরেখেছে তারা। তাদের বিনিয়োগ ও উৎসাহের সাহায্যে বাংলাদেশ আজ সর্বোচ্চ রপ্তানি-মানের আসবাবপত্র উৎপাদনের একটি বৈশ্বিক কেন্দ্রে রূপান্তরিত হয়েছে। শীর্ষস্থানীয় বাংলাদেশী কোম্পানি এবং আসবাবপত্র নির্মাতাদের সাথে দীর্ঘমেয়াদী পার্টনারশিপের মাধ্যমে একটি শক্ত নেটওয়ার্কও গড়ে তুলেছে জাট হোল্ডিংস পিএলসি।

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.