আজ: শনিবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২৩ইং, ১৪ই মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৪ঠা রজব, ১৪৪৪ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

২৩ নভেম্বর ২০২২, বুধবার |


kidarkar

রূপালী ব্যাংকের নতুন ডিএমডি তাহমিনা আখতার


নিজস্ব প্রতিবেদক: রূপালী ব্যাংক লিমিটেডের নতুন উপব্যবস্থাপনা পরিচালক হয়েছেন তাহমিনা আখতার। সম্প্রতি অর্থ মন্ত্রণালয়ের আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের এক প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে সরকার কর্তৃক পদোন্নতিপ্রাপ্ত হয়ে রূপালী ব্যাংক লিমিটেডে উপব্যবস্থাপনা পরিচালক হিসেবে যোগদান করেছেন তিনি। ডিএমডি হিসেবে যোগদানের পূর্বে তিনি একই ব্যাংকে সাফল্যের সাথে মহাব্যবস্থাপকের দায়িত্ব পালন করেন।

তাহমিনা আখতার ১৯৯৮ সালে বিআরসি’র মাধ্যমে সিনিয়র অফিসার পদে রূপালী ব্যাংকে যোগদান করেন। দীর্ঘ ২৪ বছরের ব্যাংকিং ক্যারিয়ারে রূপালী ব্যাংকে বিভিন্ন শাখায় শাখা ব্যবস্থাপক এবং প্রধান কার্যালয়ের সংস্থাপন ও কল্যাণ বিভাগ, অডিট ও ইনস্পেকশন বিভাগ, অর্থ প্রশাসন বিভাগ এবং হেড অব ট্রেজারী হিসেবে ট্রেজারী বিভাগে কাজ করেন। এছাড়ও রূপালী ব্যাংক ট্রেনিং একাডেমিতে প্রিন্সিপাল ও জেনারেল ম্যনেজার হিসেবে এবং বিভাগীয় প্রধান হিসেবে বিভাগীয় কার্যালয় বরিশাল ও ঢাকা উত্তর বিভাগে সফলতার সাথে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি ব্যাংকিং তহবিল ব্যবস্থাপনা ও বৈদেশিক ডিলিং ব্যবসায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন।

তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মনোবিজ্ঞান বিভাগ হতে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেন। তিনি ইনস্টিটিউট অব ব্যাংকারস’ বাংলাদেশ (আইবিবি)-এর একজন সম্মানিত ডিপ্লোমেট এসোসিয়েট। তিনি ঢাকায় জন্মগ্রহন করেন। তাঁর পৈতৃক নিবাস চাঁদপুর জেলার ফরিদগঞ্জ উপজেলার সেখাদী গ্রামে। তাঁর স্বামী ড. মো. আলী নূর বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব বিজনেস এন্ড টেকনোলজি এর উপ-উপাচার্য হিসেবে কর্মরত আছেন। ব্যক্তিগত জীবনে তিনি এক সন্তানের জননী। তিনি ভারত, মালয়েশিয়া, থাইল্যান্ড, মিশর ও সৌদি আরবসহ বিভিন্ন দেশে ভ্রমন ও ব্যাংকিং বিষয়ে প্রশিক্ষণ কর্মশালায় অংশগ্রহণ করেন।

তিনি ১৯৮৮ সালে ব্যাংকারস’ রিক্রুটমেন্ট কমিটি (বিআরসি)-এর মাধ্যমে সিনিয়র অফিসার হিসেবে জনতা ব্যাংকে যোগদানের মধ্য দিয়ে তাঁর কর্মজীবন শুরু করেন। দীর্ঘ ৩৪ বছরের চাকুরীকালে তিনি ব্যাংকের রিচার্স এন্ড প্ল্যানিং, ওয়েল ফেয়ার ও এইচআরসহ প্রধান কার্যালয়ের গুরুত্বপূর্ণ ডিপার্টমেন্টের প্রধান ছাড়াও ব্যবস্থাপক হিসেবে বিভিন্ন শাখায় নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন করেন।

দেলওয়ারা বেগম ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় হতে ফিন্যান্স অ্যান্ড ব্যাংকিং বিষয়ে সম্মানসহ প্রথম শ্রেণিতে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেন। তিনি এইচএসসি পরীক্ষায় ঢাকা বোর্ডের সম্মিলিত মেধা তালিকায় স্থান লাভ করে মেধার স্বাক্ষর রাখেন। তিনি ইনস্টিটিউট অব ব্যাংকারস’ বাংলাদেশ (আইবিবি)-এর একজন সম্মানিত ডিপ্লোমেট এসোসিয়েট। তিনি দেশে ও বিদেশে অনুষ্ঠিত বিভিন্ন প্রশিক্ষণ, কর্মশালা ও সেমিনারে অংশগ্রহণ করেন। দেলওয়ারা বেগম কুমিল্লা জেলার এক সমভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ৩ কন্যা সন্তানের জননী।


আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.