আজ: মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪ইং, ১৪ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৯শে জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

০৫ জানুয়ারী ২০২৩, বৃহস্পতিবার |

kidarkar

এমডি নিয়োগে আরও ৩ মাস চায় ডিএসই

নিজস্ব প্রতিবেদক : ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) নিয়োগ দিতে দ্বিতীয়বারের মতো আরও তিন মাস সময় চেয়ে পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) কাছে আবেদন জানিয়েছে দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ডিএসই।
মঙ্গলবার (২ জানুয়ারি) বিএসইসির চেয়ারম্যান শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলামের কাছে এ আবেদন জানিয়েছেন ডিএসইর ভারপ্রাপ্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালক সাইফুর রহমান মজুমদার।
বিষয়টি নিশ্চিত করে ডিএসইর চেয়ারম্যান ইউনুসুর রহমান বলেন, ‘আমরা এখনো যোগ্য কাউকে পাইনি, ৬ জানুয়ারি শেষ সময়। এ সময়ের মধ্যে আমরা এমডি হিসেবে যোগ্য কাউকে না পাওয়ায় আবারও তিন মাস সময় চেয়ে আবেদন করেছি।’
তিনি বলেন, ‘তিন মাস সময় চেয়েছি, কারণ এর ভেতরে আমরা এমডি নিয়োগ দিতে পারব। বারবার তো আর সময় চাওয়া যায় না। তাই একবারে বেশি করে সময় চেয়েছি। আশা করি দেড় মাস বা তার আগেও এমডি নিয়োগ দিতে পারবো।’
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, এর আগের কমিশন ডিএসইকে এক মাসের সময় দিয়েছিল। সেই সময় অনুযায়ী আগামী ৬ জানুয়ারি মেয়াদ শেষ হচ্ছে। কিন্তু এখন পর্যন্ত নিয়োগের প্রস্তাব ঠিক হয়নি। এ অবস্থায় ডিএসইর নমিনেশন ও রিমুনেরেশন কমিটির প্রস্তাবনা এখনো ডিএসইর পর্ষদের কাছে সঠিকভাবে আসেনি। তাই ডিএসইর পর্ষদ নতুন করে বিএসইসির কাছে সময় চেয়ে আবেদন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। সেই সিদ্ধান্তে মঙ্গলবার আবেদন জমা দেয়া হয়েছে। আজ আবেদনটি কমিশনে পৌঁছেছে বলে জানা গেছে। বিএসইসি আবেদনের যৌক্তিকতা দেখে সময় বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেবে।
এর আগে ডিসেম্বরের প্রথম সপ্তাহে বিএসইসির কাছে সময় চেয়ে আবেদন করেছিল ডিএসই। কারণ পূর্ব নির্ধারিত সময় অনুসারে ৬ ডিসেম্বরের মধ্যে ডিএসইর এমডির প্রস্তাব দেয়ার কথা ছিল। কিন্তু ডিএসই নির্ধারিত সময়ে এমডি নিয়োগের প্রস্তাব বিএসইসিতে জমা দিতে পারেনি। তারপর সময় বৃদ্ধি চেয়ে আবেদন করা হয়। আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে গত ৭ ডিসেম্বর থেকে ৬ জানুয়ারি পর্যন্ত এক মাস সময় বাড়িয়েছিল বিএসইসি। এখন আবারও তিন মাস সময় চেয়ে আবেদন করেছে ডিএসই।
বিএসইসি সূত্র জানায়, চলতি বছরের ৯ সেপ্টেম্বর ডিএসইর ব্যবস্থাপনা পরিচালক পদ থেকে পদত্যাগ করেন তারিক আমিন ভূঁইয়া। তারপর ডিএসই এমডি পদে নিয়োগের জন্য গত ৬ অক্টোবর জাতীয় পত্রিকা ও ডিএসইর ওয়েবসাইটে যোগ্য প্রার্থীদের কাছ থেকে আবেদন চেয়ে বিজ্ঞাপন দেয়া হয়। এরপর ৭ ও ১১ অক্টোবর আরও কয়েকটি জাতীয় দৈনিকে বিজ্ঞাপন দেয়া হয়। যেখানে আবেদনের শেষ সময় ছিল ৬ নভেম্বর।
প্রবিধান অনুসারে, ডিএসইর এমডি নিয়োগের প্রক্রিয়ার ধাপগুলো হলো- প্রথমত, ডিএসইর নমিনেশন ও রিমুনেরেশন কমিটি এমডি পদের জন্য আবেদনকারীদের মধ্য থেকে কমপক্ষে ৩ জন প্রার্থীকে নির্বাচন করবে।
দ্বিতীয়ত, ডিএসইর পরিচালনা পর্ষদ নমিনেশন ও রিমুনেরেশন কমিটি দ্বারা নির্বাচিতদের মধ্য থেকে কমপক্ষে তিনজন প্রার্থীর জন্য সুপারিশ করবে। সর্বশেষে বিএসইসি উল্লিখিত পদের জন্য বোর্ডের সুপারিশকৃতের মধ্যে থেকে একজন আবেদনকারীকে অনুমোদন করবে।
ডিএসই সূত্র জানায়, ডিএসইর এমডি হতে মোট আগ্রহী ১৮ জন প্রার্থী আবেদন জমা দেন। এর মধ্যে জীবনবৃত্তান্ত দেখে ৭ প্রার্থীর নাম যাচাই-বাছাই করা হয়। এরপর গত ১৯ ডিসেম্বর তাদের সাক্ষাৎকার নেয় ডিএসইর কমিটি। তারা হলেন, মোহাম্মদ আবুল হাশেম, মরিয়াম জামিল, তোবারক হোসেন ভূঁইয়া, সাইফুর রহমান মজুমদার, সাখাওয়াত হোসেন, সাজ্জাদ হোসেন ও মাহবুবুর রহমান। প্রথম দফায় এ ৭ জনের কাউকে যোগ্য মনে করেনি ডিএসইর নমিনেশন ও রিমুনেরেশন কমিটি। কিন্তু কমিটিকে নির্ধারিত সময়েই এই ৭ জন ব্যক্তির মধ্যে যোগ্য প্রার্থীর নাম প্রস্তাব আকারে আবারও জমা দিতে বলে বিএসইসি

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.