আজ: মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪ইং, ১৪ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৯শে জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

০৯ জানুয়ারী ২০২৩, সোমবার |

kidarkar

আইসিপিসি এশিয়া ঢাকা আঞ্চলিক পর্বে আয়োজক গ্রিন ইউনিভার্সিটি, রেজিস্ট্রেশন শুরু বুধবার

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ প্রোগ্রামিংয়ের অলিম্পিয়াড খ্যাত ইন্টারন্যাশনাল কলেজিয়েট প্রোগ্রামিং কনটেস্টের (আইসিপিসি) এশিয়াধীন ঢাকা অঞ্চল পর্ব আয়োজন করতে যাচ্ছে রাজধানীর গ্রিন ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ।

আসরের প্রাথমিক রাউন্ড আগামী ১১ ফেব্রæয়ারি অনলাইনে এবং চূড়ান্ত প্রতিযোগিতা ১১ মার্চ অনুষ্ঠিত হবে। আগামী বুধবার (১১ জানুয়ারি) থেকে প্রতিযোগিতার রেজিস্ট্রেশন প্রক্রিয়া শুরু হবে। চলবে ২৫ জানুয়ারি পর্যন্ত।

সোমবার (৯ জানুয়ারি) গ্রিন ইউনিভার্সিটির সিন্ডিকেট রুমে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানানো হয়।

সংবাদ সম্মেলনে বিশ^বিদ্যায়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. গোলাম সামদানী ফকির, আইসিপিসি’র কার্যনির্বাহী কমিটির চেয়ার ও বিজ্ঞান ও প্রকৌশল অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. মো. সাইফুল আজাদ, রিজিওনাল কনটেস্ট ডিরেক্টর ও সিএসই বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ আমিনুর রহমান, সহকারী রিজিওনাল কনটেস্ট ডিরেক্টর ড. নাজিব আব্দুন নাসির, ড. মুহাম্মদ আবুল হাসান, বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলের ট্রেনিং অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট বিভাগের পরিচালক আবু সায়ীদ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

আয়োজকরা জানান, বিশ্বখ্যাত এই প্রতিযোগিতায় প্রাথমিকভাবে বিজয়ীদের ফাইনাল পর্বের রেজিস্ট্রেশন প্রক্রিয়া ১৭-২৪ ফেব্রæয়ারি পর্যন্ত চলবে; যার মক টেস্ট ১০ মার্চ এবং চূড়ান্ত প্রতিযোগিতা ১১ মার্চ অনুষ্ঠিত হবে।

প্রোগ্রামিংয়ে অংশগ্রহণে ইচ্ছুকরা ৩৯০ টাকা দিয়ে রেজিস্ট্রেশন করতে পারবেন। চূড়ান্ত পর্বের রেজিস্ট্রেশন ফি ৭ হাজার ৫০০ টাকা।রেজিস্ট্রেশন লিংক  https://icpc.green.edu.bd. প্রতিযোগিতায় সহযোগী প্রতিষ্ঠান হিসেবে থাকছে ডিজিটাল বাংলাদেশ, বাংলাদেশ সরকারের আইসিটি ডিভিশন, বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল (বিসিসি) ও ইউএস-বাংলা গ্রুপ।

সংবাদ সম্মেলনে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. গোলাম সামদানী ফকির বলেন, একুশ শতাব্দীর সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ হলো প্রযুক্তিগত দক্ষতা অর্জন। আইসিপিসি প্রতিযোগিতা এ ক্ষেত্রে অবদান রাখবে বলে আমাদের বিশ্বাস। তিনি বলেন, প্রতিযোগিতায় দেশের বিভিন্ন প্রান্তের কলেজ ও বিশ^বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা অংশ নেবেন। যারা আগামীতে স্মার্ট বাংলাদেশ গড়তে অবদান রাখার পাশাপাশি দেশের ফ্রিল্যান্সিংয়ের ক্ষেত্রেও বড় ধরনের অবদান রাখবে।

আয়োজক কমিটির সভাপতি ও গ্রিন ইউনিভার্সিটির বিজ্ঞান ও প্রকৌশল অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. মো. সাইফুল আজাদ বলেন, এবারের আইসিপিসি দেশের শীর্ষ প্রোগ্রামার ও কম্পিউটার প্রফেশনালদের সাথে খ্যাতিমান শিক্ষক ও শিক্ষাবিদদের সমন্বয়ে সাজানো হয়েছে। যাতে প্রতিযোগীরা প্রোগামিংয়ের মাধ্যমে নিজেদের শ্রেষ্ঠত্ব প্রমাণের সুযোগ পাশাপাশি সরকারের বিভিন্ন ক্ষেত্রেও নানাভাবে সহায়তা করবে। এর আগে সিএসই বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ আবুল হাসান প্রেজেন্টেশনের মাধ্যমে আইসিপিসি’র খুটিনাটি তুলে ধরেন।

তথ্যমতে, বিশ্বের প্রাচীনতম, বৃহত্তম এবং সবচেয়ে মর্যাদাপূর্ণ প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতা ইন্টারন্যাশনাল কলেজিয়েট প্রোগ্রামিং কনটেস্টের (আইসিপিসি)। বিশ্ববিদ্যালয় ও কলেজ পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের নিয়ে প্রতিবছর এ প্রতিযোগিতা আয়োজন করে আইসিপিসি ফাউন্ডেশন। যাতে প্রতি দলে তিনজন শিক্ষার্থী নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে কম্পিউটার প্রোগ্রামিং ভাষা ব্যবহার করে বাস্তবভিত্তিক সমস্যা সমাধানের জন্য কাজ করে।

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.