আজ: বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ইং, ১৫ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ, ১৬ই শাবান, ১৪৪৫ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

১২ মার্চ ২০২৩, রবিবার |

kidarkar

এমবিবিএস ফল প্রকাশ, উত্তীর্ণের সংখ্যায় এগিয়ে মেয়েরা

নিজস্ব প্রতিবেদক : সরকারি-বেসরকারি মেডিকেল কলেজে ২০২২-২৩ শিক্ষাবর্ষের এমবিবিএস প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষার ফল প্রকাশ করা হয়েছে। এতে সর্বোচ্চ নম্বর পেয়ে প্রথম স্থান অর্জন করেছেন রাফসান জামান নামে এক শিক্ষার্থী। তবে ফলে উত্তীর্ণের সংখ্যায় এগিয়ে রয়েছেন মেয়েরা।

রোববার (১২ মার্চ) দুপুরে রাজধানীর মহাখালীতে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের (পুরোনো) দ্বিতীয় তলার সভাকক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী জাহিদ মালেক এ তথ্য জানান।

প্রকাশিত ফলে দেখা যায়, এমবিবিএস ভর্তি পরীক্ষায় মোট পাস করেছে ৪৯ হাজার ১৯৪ জন। পাসের হার ৩৫ দশমিক ৩৪ শতাংশ। এরমধ্যে মেয়েরা পাস করেছে ২৮ হাজার ৩৮১ জন অর্থাৎ ৫৭ দশমিক ৬৯ শতাংশ। আর ছেলেরা পাস করেছে ২০ হাজার ৮১৩ জন। যা শতকরায় ৪২ দশমিক ৩১ শতাংশ। ছেলেদের থেকে মেয়েরা ৭ হাজার ৫৬৮ জন বেশি পাস করেছে। তবে ভর্তি পরীক্ষায় সর্বোচ্চ নম্বর ৯৪ দশমিক ২৫ পেয়ে প্রথম স্থান অর্জন করেছেন রাফসান জামান নামের এক ছেলে। আর মেয়েদের মধ্যে সর্বোচ্চ নম্বর প্রাপ্ত শিক্ষার্থীর নম্বর ৮৮।

এর মধ্যে ছেলেরা সরকারি মেডিকেলে ভর্তির সুযোগ পাবেন ১ হাজার ৯৫৭ জন অর্থাৎ ৪৫ শতাংশ। আর মেয়েরা সুযোগ পাবেন ২ হাজার ৩৯৩ অর্থাৎ ৫৫ শতাংশ। এখানেও ছেলেদের থেকে মেয়েরা ৪৩৬ জন বেশি সরকারি মেডিকেলে ভর্তির সুযোগ পাবেন।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, ১০০ নম্বরের এমসিকিউ পরীক্ষা এবং এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষায় প্রাপ্ত নম্বর থেকে ২০০ নম্বরসহ মোট ৩০০ নম্বরের মাধ্যমে সরকারি মেডিকেল কলেজের জন্য ৪ হাজার ৩৫০ জন শিক্ষার্থী নির্বাচন করা হয়েছে। এবছর মোট আবেদনকারীর সংখ্যা ছিল ১ লাখ ৩৯ হাজার ২১৭ জন। এর মধ্যে ঢাকা শহরের ৩৫টি কেন্দ্রের ১৮টি ভেন্যুতে আবেদনকারীর সংখ্যা ৫৭ হাজার ৪৩৬ জন।

সরকারি মেডিকেল কলেজে ভর্তির জন্য মুক্তিযোদ্ধা, উপজাতি ও অ-উপজাতিদের জন্য নির্ধারিত আসন ছাড়া অবশিষ্ট আসনে ৮০ শতাংশ, জাতীয় মেধায় ২০ শতাংশ জেলা কোটায় প্রার্থী নির্বাচন করা হয়েছে।

এর আগে গত ১০ মার্চ কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা ছাড়াই শেষ হয় এমবিবিএস ভর্তি পরীক্ষা। রাজধানীর ৫টিসহ দেশের ১৯টি কেন্দ্রের ৫৭টি ভেন্যুতে একযোগে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়।

এ বছর মোট আবেদনকারীর সংখ্যা ছিল এক লাখ ৩৯ হাজার ২১৭ জন। গতবছর যা ছিল ১ লাখ ৪৩ হাজার ৯১৫ জন। গত বছরের মতো এবছরও সরকারি মেডিকেলে মোট আসন সংখ্যা রয়েছে ৪ হাজার ৩৫০টি। তবে বেসরকারি মেডিকেলে এবার আসন সংখ্যা বাড়ানো হয়েছে। গতবছর বেসরকারি মেডিকেলে আসন ছিল ৬ হাজার ৪৮৯টি, এবার তা বাড়িয়ে করা হয়েছে ৬ হাজার ৭৭২টি।

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.