আজ: শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ইং, ১১ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ, ১২ই শাবান, ১৪৪৫ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

১৩ মার্চ ২০২৩, সোমবার |

kidarkar

বাংলাদেশ ভয়ঙ্কর পারফরম্যান্সে শান্তর : নাসের হুসেইন

স্পোর্টস ডেস্ক : ইংলিশদের বিপক্ষে ইতিহাস গড়া এক দারুণ সময় পার করছে বাংলাদেশ। প্রথমবারের মতো যে কোনো ফরম্যাটে টাইগাররা তাদের সিরিজ হারিয়েছে। তবে পরিসংখ্যান ও বাস্তবিকভাবে যে ফরম্যাটটিতে বাংলাদেশকে দুর্বল ভাবা হতো, সেই টি-টোয়েন্টিতেই তারা এই কীর্তি গড়েছে। পুরো সিরিজজুড়ে ব্যাটে দ্যুতি ছড়িয়েছেন ওপেনার নাজমুল হোসেন শান্ত। তাকে নিয়ে স্তুতি জানিয়েছেন ইংল্যান্ডেরই সাবেক অধিনায়ক নাসের হুসেইন।

রোববার (১২ মার্চ) রাত নামতেই উৎসবে মাতে বাংলাদেশ। ক্রিকেটে বাংলাদেশের জন্য গর্বিত হওয়ায় মতো সময় উপহার দিয়েছে সাকিব আল হাসানের দল। প্রথম টি-টোয়েন্টি ম্যাচে টাইগাররা দলীয়ভাবে জিতলেও, দ্বিতীয় ম্যাচে লাইমলাইটে ছিলেন বোলাররা। তাদের অসাধারণ নৈপুণ্যে মাত্র ১১৭ রানেই গুটিয়ে যায় সফরকারীদের ইনিংস। এরপর ব্যাটারদের একের পর এক বিদায়ের সঙ্গে পুরো আলো কেড়ে নেন শান্ত। ওপেনিংয়ে নামার পর তিনি যখন মাঠ ছাড়ছেন, ততক্ষণে দলের ওপর থেকে ঘনীভূত কালো মেঘ পুরোপুরি সরে গেছে। তার জায়গায় চারপাশ আলোকিত করা সূর্য উঠে এ দেশের ক্রিকেট আকাশে।

বাংলাদেশের জয় মানেই বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ইংলিশদের হতাশা। তাদের সেই হতাশার প্রেক্ষাপট নিয়ে ময়নাতদন্ত চালিয়েছেন সাবেক ক্রিকেটার ও বর্তমানে ধারাভাষ্য বক্সে পরিচিত মুখ নাসের হুসেইন। দেশটির সংবাদমাধ্যম স্কাই স্পোর্টসকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেছেন, ‘বাংলাদেশ খুব সুন্দর খেলেছে। তারা বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ইংল্যান্ডকে ২-০ ব্যবধানে হারিয়েছে, যা মাঠে তাদের ভয়ঙ্কর পারফরম্যান্সেরই ফল।’

সাবেক এই ইংলিশ অধিনায়কের কণ্ঠে প্রশংসা ঝরেছে শান্ত’র,

‘শান্ত বড় তারকা হতে যাচ্ছে। এরকম আরও বেশ কয়েকজন দুর্দান্ত ক্রিকেটার প্রয়োজন বাংলাদেশের। তাদের জন্য এটি অনেক বড় জয়।’নাসের হুসেইন

তবে আদিল রশিদের প্রশংসা করেছেন নাসের হুসেইন, ‘রশিদ ভালো বল করেছে। মাঝেমধ্যে উপমহাদেশের খেলায় সে নির্দিষ্ট গতিতে বল করে। তবে আমার মনে হয়, তাদের আরেকটু আক্রমণাত্মক হওয়া উচিত ছিল। তোমার সবচেয়ে ভালো স্পিনার দিয়ে আরও বেশি আক্রমণ চালানো উচিত।’

মিরপুর শের-ই বাংলায় সহজ লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে অবশ্য শুরু থেকেই নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারাতে থাকে বাংলাদেশ। ইংলিশদের মধ্যে সবচেয়ে সফল বোলার ছিলেন জোফরা আর্চার। তবে ডেথ ওভারের আগেই তার স্পেল শেষ হয়ে যায়। এরপর ১৯তম ওভারে এসে কোনো ওভার না করা জর্ডানের হাতে বল তুলে দেন বাটলার। তার ওভারে পরপর দুই বলে ৪ মেরে টাইগারদের জয়ের বন্দরে নিয়ে যান তাসকিন আহমেদ।

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.