আজ: বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪ইং, ৫ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ৭ই শাওয়াল, ১৪৪৫ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

০৬ এপ্রিল ২০২৩, বৃহস্পতিবার |

kidarkar

ঈদের আগেই খুলে দেয়া হবে বঙ্গবাজার মার্কেট : সালমান এফ রহমান

নিজস্ব প্রতিবেদক : বঙ্গবাজারের ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ীদের ঈদের আগেই ব্যবসা পরিচালনা করার সুযোগ করে দেয়ার আশ্বাস দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান এমপি।বৃহস্পতিবার (৬ এপ্রিল) সকাল ১০টায় রাজধানীর বঙ্গবাজারে অগ্নিকাণ্ডস্থল পরিদর্শন ও ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ীদের সঙ্গে মতবিনিময় শেষে সাংবাদিকদের এমন তথ্য জানান তিনি।

সালমান এফ রহমান জানান, ভয়াবহ এই দুর্ঘটনায় ব্যবসায়ীদের অনেক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। তাদের পুনর্বাসন ও ক্ষতিপূরণ দেওয়ার জন্য আমরা কাজ করছি। ইতিমধ্যে অনেকেই ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ীদের আর্থিক সহযোগিতা দেওয়ার জন্য আমাকে ফোন করেছেন। বিষয়টি নিয়ে আমি ব্যবসায়ীদের সঙ্গে কথা বলেছি। আর্থিক অনুদানের জন্য একটি যৌথ ব্যাংক হিসাব, বিকাশ, নগদ, রকেট অ্যাকাউন্ট খোলার জন্য ব্যবসায়ীদের পরামর্শ দিয়েছি। অ্যাকাউন্টগুলো খোলার পরে সবাইকে জানিয়ে দেয়া হবে।

প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা বলেন, বঙ্গবাজার নির্মাণের জন্য আগে একটি নকশা করা হয়েছিল। তবে নির্মাণ কাজ বন্ধ করতে ব্যবসায়ীদের পক্ষ থেকে হাইকোর্টে একটা রিট করা হয়। এর প্রেক্ষিতে নির্মাণ কাজ শুরু করা সম্ভব হয়নি। তবে যারা রিট আবেদনটি করেছেন তাদের মাঝে রিটটি তোলার জন্য ব্যবসায়ীদের বলেছি। এটা রিট উঠার পর ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পরামর্শ করে নতুন ভবনের কাজ শুরু হবে। পরে তার মাধ্যমে ব্যবসায়ীদের দোকান বরাদ্দ দেওয়া হবে।

প্রধানমন্ত্রীর এই উপদেষ্টা আরও বলেন, ‘এই মুহূর্তে দুটি কাজ করতে হবে। প্রথমটি হল ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ীদের তালিকা করা। দ্বিতীয় কাজটি হলো দ্রুত সময়ের মধ্যে ব্যবসায়ীদের পুনর্বাসন করা। তবে পুনর্বাসনের ক্ষেত্রে আইনি কিছু জটিলতা রয়েছে। সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে কথা বলে এই জটিলতা নিরসন করা হবে।

সালমান এফ রহমান বলেন, ‘আমি ইতিমধ্যে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গেও কথা বলেছি। উনি বিষয়টি নিয়ে দুঃখ প্রকাশ করেছেন। এছাড়াও প্রধানমন্ত্রী তহবিল থেকেও আর্থিক সহযোগিতা দেওয়ার আশ্বাস দিয়েছেন। তালিকা হওয়ার পরে সেই অনুযায়ী ব্যবসায়ীদের আর্থিক সহায়তা দেওয়া হবে।

কবে নাগাদ ব্যবসায়ীরা ব্যবসা শুরু হতে পারবেন এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আগামী ৩-৪ দিনের মধ্যে জায়গাটি পরিষ্কার করা হবে। তারপর অস্থায়ীভাবে ব্যবসায়ীদের তাদের কার্যক্রম শুরু করার ব্যবস্থা করা হবে।

গত মঙ্গলবার (৪ এপ্রিল) সকাল সোয়া ছয়টার দিকে বঙ্গবাজার মার্কেটে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। ফায়ার সার্ভিসের ৪৮টি ইউনিটের দীর্ঘ চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। স্মরণকালের ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে মাটির সঙ্গে মিশে গেছে পুরো বঙ্গবাজারের হাজার হাজার দোকান। এখানকার কয়েকটি মার্কেটের সব দোকান পুড়ে ছাই হয়ে গেছে।

ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ীদের আশ্বাস দিয়ে গতকাল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ‘ঈদের আগে এমন একটা দুর্ঘটনায় কত মানুষ ব্যবসা-বাণিজ্য করেছে, তাদের সত্যিই যে কষ্টটা, তাদের কান্না, এটা সহ্য করা যায় না। ইতোমধ্যে আমি বলে দিয়েছি তাদের যতটুকু পারি সাহায্য করব এবং কার কী রকম ক্ষতি হয়েছে, এটা দেখব।

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.