আজ: বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪ইং, ৫ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ৭ই শাওয়াল, ১৪৪৫ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

১১ মে ২০২৩, বৃহস্পতিবার |

kidarkar

৭১ মিলিয়নেরও বেশি মানুষ এক বছরে অভ্যন্তরীণভাবে বাস্তুচ্যুত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ২০২২ সালে বিশ্বব্যাপী অভ্যন্তরীণভাবে বাস্তুচ্যুত হয়েছেন ৭১ মিলিয়নেরও বেশি মানুষ। মূলত ইউক্রেন যুদ্ধসহ বিশজুড়ে নানা সংঘাত ও পাকিস্তানের বন্যার মতো প্রাকৃতিক দুর্যোগের কারণে অভ্যন্তরীণভাবে বাস্তুচ্যুত হওয়া বিশ্বব্যাপী মোট মানুষের সংখ্যা গত বছর রেকর্ড পরিমাণে পৌঁছেছে।

নরওয়েজিয়ান রিফিউজি কাউন্সিলের অভ্যন্তরীণ বাস্তুচ্যুতির মনিটরিং সেন্টারের প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১১ মে) এই প্রতিবেদনটি প্রকাশিত হয় বলে জানিয়েছে বার্তাসংস্থা এএফপি।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ২০২২ সালে অভূতপূর্বভাবে ৭১.১ মিলিয়ন মানুষ অভ্যন্তরীণভাবে বাস্তুচ্যুত হয়েছেন বলে নিবন্ধিত হয়েছেন। যা এক বছর আগের তুলনায় ২০ শতাংশ বেশি। মূলত ইউক্রেনে রাশিয়ার আগ্রাসনের কারণে ব্যাপক বাস্তুচ্যুতির ঘটনা ঘটে এবং একইসঙ্গে পাকিস্তানে গত বছরের বিপর্যয়কর বন্যাও বাস্তুচ্যুতির সংখ্যা রেকর্ড পর্যায়ে নিতে ভূমিকা রেখেছে।

অভ্যন্তরীণ স্থানচ্যুতি মনিটরিং সেন্টার (আইডিএমসি) এবং নরওয়েজিয়ান রিফিউজি কাউন্সিল (এনআরসি)-এর যৌথ প্রতিবেদন অনুসারে, ২০২২ সালে ৬০.৯ মিলিয়ন মানুষ সম্পূর্ণ নতুন করে অভ্যন্তরীণ স্থানচ্যুতির শিকার হয়েছেন বলে রিপোর্ট করা হয়েছে। এসব মানুষের মধ্যে বেশ কিছু লোক বছরের মধ্যে একাধিকবার তাদের অবস্থান থেকে পালিয়ে যেতে বাধ্য হয়েছিল।

নতুন অভ্যন্তরীণ এই স্থানচ্যুত মানুষের সংখ্যা সর্বকালের সর্বোচ্চ এবং ২০২১ সালে প্রায় ৩৮ মিলিয়ন স্থানচ্যুতির তুলনায় ৬০ শতাংশ বেশি।

আইডিএমসি প্রধান আলেকজান্দ্রা বিলাক এএফপিকে বলেছেন, এই সংখ্যাটি ‘অত্যন্ত বেশি’। তিনি বলেছেন, ‘অভ্যন্তরীণভাবে বাস্তুচ্যুতির এই ঘটনার বেশিরভাগ বৃদ্ধি অবশ্যই ইউক্রেনের যুদ্ধের কারণে হয়েছে। তবে পাকিস্তানের বন্যা, বিশ্বজুড়ে নতুন ও আগে থেকে চলমান সংঘাতের কারণে এবং অনেকগুলো আকস্মিক ও ধীরে ধীরে শুরু হওয়া বিপর্যয়ের কারণেও এই বাস্তুচ্যুতির ঘটনা ঘটেছে।’

সংবাদমাধ্যম বলছে, সংঘাত এবং সহিংসতার কারণে অভ্যন্তরীণভাবে বাস্তুচ্যুত বিশ্বব্যাপী মোট মানুষের সংখ্যা ৬২ মিলিয়নেরও বেশি, যা ২০২১ সালের তুলনায় ১৭ শতাংশ বেশি। সিরিয়ায় এক দশকেরও বেশি সময় ধরে চলা গৃহযুদ্ধের পর সংঘাতের কারণে ৬৮ লাখ মানুষ বাস্তুচ্যুত হয়েছেন।

বন্যা ও দুর্ভিক্ষের মতো দুর্যোগের কারণে বছরের শেষে তাদের দেশের অভ্যন্তরে বাস্তুচ্যুত মানুষের সংখ্যা ৮.৭ মিলিয়নে পৌঁছেছে, যা ২০২১ সালের তুলনায় ৪৫ শতাংশ বেশি। এছাড়া ২০২১ সালের তুলনায় বিশ্বব্যাপী অভ্যন্তরীণভাবে বাস্তুচ্যুত মানুষের সংখ্যা মোট ৭১.১ মিলিয়ন হয়ে ২০ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে।

অভ্যন্তরীণ বাস্তুচ্যুতি বলতে এমন মানুষদের বোঝায় যারা তাদের নিজস্ব সীমানার অভ্যন্তরে চলে যেতে বাধ্য হয়। তবে অভ্যন্তরীণ বাস্তুচ্যুতি মনিটরিং সেন্টারের প্রতিবেদনে বিভিন্ন দেশে চলে যাওয়া ব্যক্তিদের বিবেচনায় নেওয়া হয়নি।

ইউক্রেন, সিরিয়া, ইথিওপিয়া এবং অন্যান্য জায়গায় সংঘাতের এক বছর পরেও ২০২৩ সালেও অবশ্য কোনও স্বস্তি নেই। জাতিসংঘের অভিবাসন সংস্থা চলতি সপ্তাহে জানিয়েছে, সুদানে সেনাবাহিনী ও প্রতিদ্বন্দ্বী আধা-সামরিক বাহিনীর মধ্যে সংঘাতের কারণে গত কয়েক সপ্তাহে সাত লাখ মানুষ অভ্যন্তরীণভাবে বাস্তুচ্যুত হয়েছেন।

নরওয়েজিয়ান রিফিউজি কাউন্সিলের সেক্রেটারি জেনারেল জ্যান অ্যাগেলান্ড বলেন, ২০২২ সালে সংঘাত ও প্রাকৃতিক দুর্যোগের একটি ‘নিখুঁত ঝড়’ হয়েছে। আর এর ফলে এমন মাত্রায় বাস্তুচ্যুতি হয়েছে, যা আগে কখনও দেখা যায়নি।

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.