আজ: বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪ইং, ৫ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১১ই জিলহজ, ১৪৪৫ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

৩০ মে ২০২৩, মঙ্গলবার |

kidarkar

সাবেক প্রেসিডেন্টকে এল সালভাদরের ১৪ বছরের কারাদণ্ড

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : মধ্য আমেরিকার দেশ এল সালভাদরের সাবেক প্রেসিডেন্ট মরিসিও ফানেসকে ১৪ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন দেশটির একটি আদালত। একইসঙ্গে তার বিচারমন্ত্রীকে আরও বেশি মেয়াদে কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

অপরাধী গোষ্ঠীর সাথে সম্পর্ক এবং দায়িত্ব পালনে ব্যর্থতার জন্য তাদেরকে এই কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। মঙ্গলবার (৩০ মে) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে বার্তাসংস্থা রয়টার্স।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, অপরাধী গোষ্ঠীর সাথে সম্পর্ক এবং দায়িত্ব পালনে ব্যর্থতার দায়ে সাবেক প্রেসিডেন্ট মরিসিও ফানেস ও তার বিচারমন্ত্রীকে এল সালভাদরের একটি আদালত এক দশকেরও সময়ের বেশি কারাদণ্ড দিয়েছেন বলে দেশটির অ্যাটর্নি জেনারেলের কার্যালয় সোমবার জানিয়েছে।

রয়টার্স বলছে, ফানেসকে ১৪ বছর এবং তার সাবেক বিচার ও প্রতিরক্ষা মন্ত্রী ডেভিড মুঙ্গুইয়াকে ১৮ বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

অ্যাটর্নি জেনারেল রডলফো ডেলগাডো টুইটারে বলেছেন, ‘আমরা প্রমাণ করতে পেরেছি যে, নেতা হিসেবে সালভাডোরানদের রক্ষা করার এবং নিরাপত্তা দেওয়ার বাধ্যবাধকতা থাকলেও এই দুই সাবেক কর্মকর্তা নিজেদের নির্বাচনী সুবিধার বিনিময়ে নাগরিকদের জীবন হুমকির মুখে ফেলে দিয়েছিলেন। তারা গ্যাং সদস্য হিসাবে কাজ করেছিলেন।’

২০০৯ সাল থেকে ২০১৪ সাল পর্যন্ত এল সালভাদরের প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছিলেন মরিসিও ফানেস। ২০১৯ সালে তাকে নিকারাগুয়ান নাগরিকত্ব দেওয়া হয় এবং বর্তমানে তিনি নিকারাগুয়ায় বসবাস করছেন। নিকারাগুয়ান সংবিধানে বলা হয়েছে, কোনও নাগরিককে হস্তান্তর করা যাবে না।

অন্যদিকে সাবেক বিচার ও প্রতিরক্ষা মন্ত্রী ডেভিড মুঙ্গুইয়াকে ২০২০ সালে প্রথম গ্রেপ্তার করা হয়েছিল। মূলত অপরাধী সংগঠনগুলোকে অজ্ঞাত সুযোগ-সুবিধা দেওয়ার বিনিময়ে হত্যাকাণ্ড কমিয়ে আনার লক্ষ্যে গ্যাংগুলোর মধ্যে যুদ্ধবিরতির কথিত ব্যবস্থার সঙ্গে বেআইনি সংশ্লিষ্টতা এবং অন্যান্য অপরাধের সন্দেহে মুঙ্গুইয়াকে সেসময় গ্রেপ্তার করা হয়।

অবশ্য কারাদণ্ডের রায় ঘোষণার পর সাবেক প্রেসিডেন্ট ফানেস তাৎক্ষণিকভাবে কোনও মন্তব্য করেননি। তবে মুঙ্গুইয়া সাংবাদিকদের বলেন, তার সাজা রাজনৈতিকভাবে উদ্দেশ্যপ্রণোদিত এবং তার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ ভিত্তিহীন বলে তিনি বিশ্বাস করেন।

এল সালভাদরের বিচারমন্ত্রী গুস্তাভো ভিলাতোরো টুইটারে বলেছেন, ‘সালভাডোরানদের রক্তের বিনিময়ে গোপন লেনদেনে জড়িত থেকে সমাজের যে ক্ষতি তারা করেছেন তার জন্য অপরাধীদের কারাদণ্ডের শাস্তি দেওয়া হয়েছে।’

উল্লেখ্য, এল সালভাদর এক বছরেরও বেশি সময় ধরে প্রেসিডেন্ট নায়েব বুকেলের সরকারের ঘোষিত জরুরি অবস্থার অধীনে রয়েছে।

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.