আজ: বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪ইং, ৫ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ৭ই শাওয়াল, ১৪৪৫ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

২৯ জুলাই ২০২৩, শনিবার |

kidarkar

ধারাবাহিকভাবে কমছে রূপালী লাইফের শেয়ার দাম

নিজস্ব প্রতিবেদক: কিছুদিন আগে লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়লেও এখন ধারাবাহিকভাবে কমছে রূপালী লাইফ ইন্স্যুরেন্সের শেয়ার দাম। গেল সপ্তাহে শেয়ারবাজারে বেশিরভাগ বিমা কোম্পানির শেয়ার দাম বাড়লেও সম্পূর্ণ বিপরীত চিত্র ছিল এ জীবন বিমা কোম্পানিটির শেয়ারে। বিনিয়োগকারীদের বড় অংশই এ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার কিনতে খুব একটা আগ্রহী না হওয়ায় সপ্তাহজুড়েই দাম কমেছে। ফলে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) দাম কমার শীর্ষ স্থানটি দখল করেছে প্রতিষ্ঠানটি। এ মাধ্যমে টানা দুই সপ্তাহ কোম্পানিটি দাম কমার শীর্ষ স্থান দখল করলো।

গত সপ্তাহজুড়ে কোম্পানিটির শেয়ার দাম কমেছে ১৯ দশমিক ৪৬ শতাংশ। টাকার অঙ্কে প্রতিটি শেয়ারের দাম কমেছে ৩০ টাকা ৪০ পয়সা। এতে এক সপ্তাহেই কোম্পানিটির শেয়ার দাম সম্মিলিতভাবে কমেছে ৯১ কোটি ২৪ লাখ ৩২ হাজার ৭৭৪ টাকা। সপ্তাহের শেষ কার্যদিবস শেষে কোম্পানিটির শেয়ার দাম দাঁড়িয়েছে ১২৫ টাকা ৮০ পয়সা, যা আগের সপ্তাহের শেষ কার্যদিবস শেষে ছিল ১৫৬ টাকা ২০ পয়সা।

আগের সপ্তাহে কোম্পানিটির শেয়ার দাম কমে ২৭ দশমিক ৪২ শতাংশ। আর টাকার অঙ্কে প্রতিটি শেয়ারের দাম কমে ৫৯ টাকা। এতে এক সপ্তাহেই কোম্পানিটির শেয়ার দাম সম্মিলিতভাবে কমেছে ১৭৭ কোটি ৮ লাখ ৩৯ হাজার ৯২৪ টাকা। অর্থাৎ দুই সপ্তাহের পতনে কোম্পানিটির প্রতিটি শেয়ারের দাম কমেছে ৮৯ টাকা ৪০ পয়সা। আর সম্মিলিতভাবে কমেছে ২৬৮ কোটি ৩২ লাখ ৭২ হাজার ৬৯৮ টাকা।

এখন এমন দরপতন হলেও এর আগে প্রায় দুই মাস ধরে কোম্পানিটির শেয়ার দাম বাড়ে। গত ৭ মে কোম্পানিটির প্রতিটি শেয়ারের দাম ছিল ৯১ টাকা ২০ পয়সা। এরপর থেকে কোম্পানিটির শেয়ার দাম ধারাবাহিকভাবে বাড়তে থাকে। দফায় দফায় বেড়ে প্রতিটি শেয়ারের দাম ২৪৭ টাকা পর্যন্ত ওঠে। এর পর এখন কোম্পানিটির শেয়ার দাম কমতে দেখা যাচ্ছে।

শেয়ার দামে এমন উত্থান-পতন হওয়া কোম্পানিট সর্বশেষ ২০২১ সালের ৩১ ডিসেম্বর সমাপ্ত বছরে বিনিয়োগকারীদের ১৮ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছে। তার আগে ২০২০ সালে ১৩ শতাংশ নগদ ও ২ শতাংশ বোনাস শেয়ার লভ্যাংশ দেয় কোম্পানিটি। ২০১৯ সালে কোম্পানিটি ১২ শতাংশ নগদ ও ২ শতাংশ বোনাস শেয়ার লভ্যাংশ দিয়েছিল।

২০০৯ সালে শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত হওয়া কোম্পানিটির পরিশোধিত মূলধন ৩০ কোটি ১ লাখ টাকা। আর শেয়ার সংখ্যা ৩ কোটি ১৪ হাজার ২৩৬টি। এর মধ্যে ৩২ দশমিক শূন্য ৭ শতাংশ শেয়ার আছে উদ্যোক্তা ও পরিচালকদের কাছে। বাকি শেয়ারের মধ্যে সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে ৪৩ দশমিক ৩৫ শতাংশ এবং প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের কাছে ২৪ দশমিক ৫৮ শতাংশ শেয়ার আছে।

অন্যদিকে, দাম কমে যাওয়ায় বিনিয়োগকারীদের একটি অংশ কোম্পানিটির শেয়ার বিক্রি করে দিয়েছেন। ফলে সপ্তাহজুড়ে কোম্পানিটির শেয়ার লেনদেন হয়েছে ৮৩ কোটি ৮৭ লাখ টাকা। আর প্রতি কার্যদিবসে গড়ে লেনদেন হয়েছে ১৬ কোটি ৭৭ লাখ টাকা।

রূপালী লাইফের পরেই গত সপ্তাহে দাম কমার তালিকায় ছিল মিডল্যান্ড ব্যাংক। সপ্তাহজুড়ে এ কোম্পানিটির শেয়ার দাম কমেছে ১২ দশমিক ৩৫ শতাংশ। ১০ দশমিক ৭৩ শতাংশ দাম কামার মাধ্যমে পরের স্থানে রয়েছে আজিজ পাইপ।

এছাড়া গত সপ্তাহে দাম কমার শীর্ষ ১০ প্রতিষ্ঠানের তালিকায় থাকা- নাভানা ফার্মাসিউটিক্যালসের ৯ দশমিক ৫৪ শতাংশ, মেঘনা পেট ইন্ডাস্ট্রিজের ৯ দশমিক শূন্য ২ শতাংশ, আরডি ফুডের ৮ দশমিক ৯৫ শতাংশ, সোনারগাঁও টেক্সটাইলের ৮ দশমিক ৮৫ শতাংশ, ইয়াকিন পলিমারের ৮ দশমিক ৬০ শতাংশ, সিমটেক্স ইন্ডাস্ট্রিজের ৮ দশমিক ২৭ শতংশ এবং ফার কেমিক্যালসের ৭ দশমিক ৪৪ শতাংশ দাম কমেছে।

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.