আজ: রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪ইং, ৯ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৫ই জিলহজ, ১৪৪৫ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

১৪ সেপ্টেম্বর ২০২৩, বৃহস্পতিবার |

kidarkar

মিউচুয়াল ফান্ড সেলিং এজেন্ট কোর্স চালু করছে বিআইসিএম

নিজস্ব প্রতিবেদক : বাংলাদেশ ইন্সটিটিউট অব ক্যাপিটাল মার্কেট (বিআইসিএম) ‘লাইসেন্সড মিউচুয়াল ফান্ড সেলিং এজেন্ট প্রোগ্রাম’ চালু করতে যাচ্ছে। এ ধরনের কোর্স দেশে চালু নেই নেই। সে হিসেবে প্রথমবারের মতো মিউচুয়াল ফান্ড সেলিংয়ের লাইসেন্সিং প্রোগ্রাম চালু হচ্ছে।

বৃহস্পতিবার (১৪ সেপ্টেম্বর) বিআইসিএমের মাল্টিপারপাস হলে এক সংবাদ সম্মেলনে কোর্সের বিস্তারিত তুলে ধরেন ইন্সটিটিউটের নির্বাহী প্রেসিডেন্ট অধ্যাপক ড. মাহমুদা আক্তার।

উপস্থিত ছিলেন আইডিএলসি এসেট ম্যানেজমেন্ট লিমিটেডের চিফ অপারেটিং অফিসার কাজী মাশুক-উল হক, শান্তা এসেট ম্যানেজমেন্ট লিমিটেডের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) ইমরান হাসান ও গ্রীণ ডেল্টা ড্রাগন এসেট ম্যানেজমেন্ট কোম্পানি লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও শাহবাজ তালাত। তারা কোর্স সম্পর্কে বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন।

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন ক্যাপিটাল মার্কেট জার্নালিস্টস ফোরামের (সিএমজেএফ) সভাপতি জিয়াউর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক আবু আলী।

অধ্যাপক ড. মাহমুদা আক্তার বলেন, মিউচুয়াল ফান্ড রুলস ২০০১-এ স্পষ্টভাবে উল্লেখ করা আছে, বিআইসিএম থেকে সংশ্লিষ্ট বিষয়ে কোর্স সম্পন্নকারীগণ মিউচুয়াল ফান্ড সেলিং এজেন্ট হিসেবে কাজ করতে পারবেন। এই লক্ষ্যে বিআইসিএম এই লাইসেন্সড মিউচুয়াল ফান্ড সেলিং এজেন্ট কোর্স চালুর ব্যাপারে উদ্যগ গ্রহণ করেছে।

কোর্সের কারিকুলাম ডিজাইন করেছেন ইন্সটিটিউটের ফ্যাকাল্টিরা। বাংলাদেশ সিকিউরিটজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের সহায়তায় এই ইন্ডাস্ট্রিতে যারা শীর্ষ পর্যায়ে রয়েছেন এবং যাদের এ সংক্রান্ত তাত্ত্বিক এবং বাংলাদেশের বাস্তবতার ভিত্তিতে প্রায়োগিক জ্ঞান রয়েছে তাদের নিয়ে ইন্সটিটিউটের অনুষদ সদস্যরা কর্মশালাও করেছেন।

কোর্স কারিকুলামের বিষয়ে মাহমুদা আক্তার বলেন, কারিকুলামে বাস্তবসম্মত এবং প্রায়োগিক ব্যাপারটি পুরোপুরিভাবে নিশ্চিত করা হয়েছে। তারপরও বাস্তবে পাঠদানের সময় নতুন কিছু বিষয় সন্নিবেশিত হতে পারে। এছাড়াও, বাস্তবতার নিরিখে কারিকুলাম সময়ে সময়ে হালনাগাদ করা হবে।

তিনি বলেন, যেহেতু এই কোর্সের বিভিন্ন সেশনগুলো বাংলাদেশের সুনামধন্য এসেট ম্যানেজমেন্ট কোম্পানির শীর্ষ পর্যায়ের কর্মকর্তা এবং বাংলাদেশ সিকিউরিটজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনসহ পুঁজিবাজার সংশ্লিষ্ট অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের ব্যক্তিবর্গ পরিচালনা করবেন, তাই কোর্স থেকে অত্যন্ত মেধাবী, চৌকস, প্র্যাক্টিসিং এবং প্রমিসিং রিসোর্স পার্সনদের সাহচার্যে থেকে অংশগ্রহণকারীরা তাদের সর্বোচ্চটাই নিতে পারবেন।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, কোর্সটি ৩০ ঘণ্টার মোট ৯টি মডিউলে বিভক্ত। শেষ হবে ৪ বা ৯ দিনে। তবে অংশগ্রহণকারীদের রেসপন্স জানার পর এটা চূড়ান্ত করা হবে। ক্লাসগুলো বিআইসিএমের ক্যাম্পাসেই হবে। প্রতি ব্যাচে আপাতত ১৫ জনকে অংশগ্রহণের সুযোগ দেয়া হবে।

কোর্স ফি ধরা হয়েছে ১২ হাজার টাকা। তবে প্রথম তিনটি ব্যাচের জন্য ৫০ শতাংশ ছাড় থাকবে। এছাড়া গ্রুপ রেজিস্ট্রেশনের ক্ষেত্রেও থাকবে বিশেষ ছাড়।
অভিজ্ঞ এবং এ পেশাতে/সমগোত্রীয় পেশায় যারা ইতোমধ্যে আছেন, তাদের জন্য ক্ষেত্র বিশেষে বৃত্তি প্রদান করা হবে।

কোর্স শেষে পরীক্ষায় উত্তীর্ণরা ৩ বছর মেয়াদি লাইসেন্স পাবেন।

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.