আজ: সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪ইং, ২রা বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ৪ঠা শাওয়াল, ১৪৪৫ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

১২ নভেম্বর ২০২৩, রবিবার |

kidarkar

সেরা ২০ পারফর্মারদের নিয়ে বিদেশ ট্যুর মিনিস্টার গ্রুপের

নিজস্ব প্রতিবেদক: সেরা ২০ পারফর্মারদের বিদেশ ট্যুরে পাঠালেন মিনিস্টার গ্রুপ। ২০২২ সালে কোম্পানিটির বিভিন্ন বিভাগের কর্মকর্তাদের মধ্যে সেরা পারর্ফম্যান্সের স্বীকৃতিসরূপ থাইল্যান্ড ট্যুরের আয়োজন করেছে এই কোম্পানি।

গত বৃহস্পতিবার মিনিস্টার হেড কোয়ার্টারে এক অনাড়ম্বর অনুষ্ঠানের মাধ্যমে তাদের হাতে বিমান টিকিটসহ প্রয়োজনীয় কাগজপত্র তুলে দেওয়া হয়।

সেরা ২০ পারফর্মার যাদের বিদেশ ট্যুরে পাঠানো হল, তারা হলেন- শো-রুম বিভাগের পরিচালক মোহাম্মদ রফিকুল ইসলাম, এডমিন ও মানবসম্পদ বিভাগের ডেপুটি ডিরেক্টর মোহাম্মদ রফিকুল ইসলাম, ডেপুটি ডিরেক্টর মোহাম্মদ মুশফিকুর রহমান, এসিস্ট্যান্ট ডিরেক্টর মোহাম্মদ আল মামুন, গাজিপুর ফ্যাক্টরির এসিস্ট্যান্ট ডিরেক্টর মোহাম্মদ মফিজুর রহমান, শো-রুম বিভাগের বিভাগীয় ম্যানেজার মোহাম্মদ আমিনুল ইসলাম রাজিব, ডিভিশনাল ম্যানেজার মালিক সেলিম আকতার।

বিদেশে ট্যুরে অংশ নেওয়া তালিকায় আরো রয়েছেন সিনিয়র ম্যানেজার মোহাম্মদ কামরুজ্জামান, পরিচালক মোহাম্মদ মনিরুল ইসলাম, এসিস্ট্যান্ট জেনারেল ম্যানেজার এস এম জুলফিকার ইবনে আমিন। কর্পোরেট সেলস বিভাগের সহকারী পরিচালক মোহাম্মদ বদরুল আলম চৌধুরী, সহকারী বিভাগীয় ম্যানেজার আব্দুল মান্নান ভুইয়া, সহকারী পরিচালক মোহাম্মদ আরিফুর ইসলাম, একাউন্ট ও ফিন্যান্স ডিপার্টমেন্টের সহকারী পরিচালক মীর মোস্তাকির রহমান, সহকারী পরিচালক মোহাম্মদ হাসানুজ্জামান। তালিকায় আরো রয়েছেন চান্দিনা ভিলেজ হাউজিংয়ের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ মুজিবুর রহমান, চুয়াডাঙ্গা বিএসআর এন্টারপ্রাইজের প্রোপাটর মোহাম্মদ রাকিব খান, মিনিস্টার গ্রুপের শো-রুম ইন চার্জ আশরাফ সরকার ও ডিলার নুরুল ইসলাম সজিব।

এ ব্যাপারে কোম্পানির চেয়ারম্যান এম এ রাজ্জাক খান রাজ বলেন, “আমার প্রতিষ্ঠান শুরু থেকেই কর্মীবান্ধব। কর্মীদের সুখে দুঃখে পাশে থাকার চেষ্টা করি”।

তিনি আরো বলেন, “আমি আমার কর্মকর্তা-কর্মচারীদের নিজের পরিবারের সদস্য মনে করি। ভালো কাজ, ভালো পারফরম্যান্সকে আমি সবসময় উৎসাহ দেওয়ার চেষ্টা করি। প্রতি বছরে আমার এই ট্যুরের প্রধান উদ্দেশ্যে কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের মধ্যে সুস্থ প্রতিযোগিতা তৈরী করা। এছাড়া বছরজুড়ে কাজের চাপে কর্মীরা অনেক সময় অবসাদগ্রস্থ হয়ে ওঠে। এই অবসাদ দূর করতে এবং তাদের মধ্যে কাজের উদ্যমতা বাড়াতে অবকাশ যাপনের গুরত্ব অপরিসীম। মূলত এই কারনেই এই ট্যুরের ব্যবস্থা”।

কোম্পানি থেকে এরুপ সম্মান পেয়ে সকল কর্মকর্তারা কোম্পানি এবং কোম্পানির চেয়ারম্যানের প্রতি বিশেষ কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ প্রকাশ করেছেন।

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.