আজ: শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪ইং, ৩০শে চৈত্র, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ, ২রা শাওয়াল, ১৪৪৫ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, বৃহস্পতিবার |

kidarkar

ফের প্রেমে পড়েছেন পুতিন?

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ভ্লাদিমির পুতিন, বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম পরাশক্তি রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট। বর্তমানে তার বয়স ৭১ বছর। ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে বিশ্বজুড়েই আলোচিত তিনি। এই যুদ্ধকে কেন্দ্র করে বিভিন্ন সময় তাকে নিয়ে নানা গুঞ্জন শোনা যায়। গণমাধ্যমে সেসব বিষয়ে প্রতিবেদনও প্রকাশ হয়।

এবার নতুন গুঞ্জন, আবারও প্রেমে পড়েছেন রুশ প্রেসিডেন্ট পুতিন। প্রেমিকার নাম একাতেরিনা কাতিয়া মিজুলিনা। ৩২ বছরের ছোট মিজুলিনাকে নাকি দেখতে বার্বির মতো।

এর আগে অলিম্পিক জিমন্যাস্ট আলিনা কাবায়েভার সঙ্গে তার দীর্ঘদিনের সম্পর্ক ছিল বলে শোনা যেত। এই জুটির নাকি তিনটি সন্তানও রয়েছে। অবশ্যই সেটা পুতিনের ৩০ বছরের দাম্পত্য ইতি পড়ার পর। ২০১৪ সালে স্ত্রী লুদমিলার সাথে বিবাহ বিচ্ছেদ হয় পুতিনের। মাঝে ক্রিভোনোগিখ নামে এক স্ট্রিপ-ক্লাব মালিকের সঙ্গেও পুতিনের বিশেষ কেমিস্ট্রি এবং এক সন্তানলাভের খবর চাউর হয়েছিল।
এখন শোনা যাচ্ছে, পুতিন নাকি ‘বার্বি ডলের’ প্রেমে হাবুডুবু খাচ্ছেন। একাতেরিনা কাতিয়া মিজুলিনার কাজের প্রধান অংশ রাশিয়া এবং তার প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধে যেকোনও সমালোচনা বন্ধ করা, বিশেষ করে ইউক্রেনের বিরুদ্ধে যুদ্ধের বিষয়ে।

রাশিয়ান মানবাধিকার প্রচারক ওলগা রোমানভা ইউক্রেনের চ্যানেল ২৪-কে বলেছেন, কাতিয়া মিজুলিনা পুতিনের স্বাদের সাথে সম্পূর্ণরূপে মিলে গেছে, এই বার্বি টাইপ সর্বদা পছন্দ করতেন পুতিন।

রাশিয়ার বেশ কয়েকটি ইউক্রেনীয় মিডিয়া আউটলেট এবং টেলিগ্রাম চ্যানেল পুতিন এবং মিজুলিনা সম্পর্কে খবর পোস্ট করছে, দাবি করছে যে তারা সম্প্রতি একে অপরের ঘনিষ্ঠ হয়েছেন। তবে এ সম্পর্কের বিষয়ে এখনও পর্যন্ত আনুষ্ঠানিকভাবে কিছু জানানো হয়নি।

তবে এই সম্পর্ক নিয়ে শতভাগ নিশ্চিত করে কিছু বলতে পারেনি কোনও সূত্র।

পোস্টে বলা হয়েছে, মিজুলিনা ২০০৪ সালে লন্ডন বিশ্ববিদ্যালয়ের স্কুল অব ওরিয়েন্টাল অ্যান্ড আফ্রিকান স্টাডিজ থেকে শিল্প ইতিহাস এবং ইন্দোনেশিয়ান ভাষায় ডিগ্রি নিয়ে স্নাতক হন। তিনি ২০১৭ সালে চীন সফররত সরকারি রাশিয়ান প্রতিনিধিদের অনুবাদক হিসেবে কাজ করেন। তিনি ২০২২ সালে একটি বক্তৃতায় বলেছিলেন, “প্রথমে, আমরা ইউক্রেনকে নাৎসিদের থেকে সাফ করব… এবং তারপরে আমরা গুগল এবং উইকিপিডিয়াতে যাব।”

ইউক্রেন যুদ্ধ শুরু হওয়ার এক বছর পর, ইন্ডিপেনডেন্ট-এর প্রতিবেদনে দাবি করা হয, কাবায়েভার জন্য গোপনে লাখ লাখ টাকা ব্যয় করেছেন পুতিন।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, প্রাক্তন অলিম্পিক চ্যাম্পিয়ন মস্কো থেকে প্রায় ২৫০ মাইল উত্তর-পশ্চিমে ভালদাই হ্রদে পুতিনের এস্টেটের একটি ভিলায় থাকেন।

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.