আজ: শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪ইং, ৭ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ৯ই শাওয়াল, ১৪৪৫ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, বুধবার |

kidarkar

ঊর্ধ্বমুখী বিটকয়েনের দাম, এক মাসে বেড়ে গেছে ৩৮ শতাংশ

আ্ন্তর্জাতিক ডেস্ক : বিশ্বের বড় প্রতিষ্ঠানগুলোর ক্রিপ্টোকারেন্সিতে বিনিয়োগে আগ্রহ বেড়েছে। এর ফলে গত এক মাসে বিটকয়েনের দাম বেড়েছে ১৬ হাজার ১৬৫ ডলার বা ৩৮ দশমিক ৪৭ শতাংশ।

কয়েনবেস সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

তথ্য অনুযায়ী, চলতি বছরের জানুয়ারি মাসের শেষের দিকে প্রতিটি বিটকয়েনের দাম ছিলো ৪২ হাজার ডলারের কাছাকাছি। আজ দাম বেড়ে ৫৮ হাজার ডলার ছাড়িয়েছে। অর্থাৎ এই এক মাসের ব্যবধানে বিটকয়েনের দাম বেড়েছে ১৬ হাজার ১৬৫ ডলার বা ৩৮ দশমিক ৪৭ শতাংশ।

বিটকয়েনের এই দাম ২০২১ সালের পর সর্বোচ্চ ৫৮ হাজার ডলার হয়েছে বুধবার (২৮ ফেব্রুয়ারি)। অপরদিকে প্রতিদ্বন্দ্বী ইথেরিয়ামের দাম গত এক মাসে ৯৯০ ডলার বা ৪৩ দশমিক ৬৭ শতাংশ বেড়েছে।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, ক্রিপ্টো বিনিয়োগকারী এবং সফটওয়্যার প্রতিষ্ঠান মাইক্রোস্ট্র্যাটেজি ১৫৫ মিলিয়ন ডলারে ৩০০০ বিটকয়েন কিনেছে, যার ফলে এর দাম বেড়েছে।

ডিজিটাল সম্পদ বাজার নির্মাতা কেরক-এর এশিয়া অঞ্চলের অংশীদারিত্বের প্রধান জাস্টিন ডি’এনেথান বলেছেন, বাজারে এখন ক্রিপ্টোকারেন্সির প্রচুর সরবরাহ রয়েছে। কিন্তু এক্সচেঞ্জ ট্রেডেড ফান্ডের (ইটিএফ) চাহিদা অসীম মনে হচ্ছে।

এই ধরনের অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে বাজারে সরবরাহ এবং চাহিদার মধ্যে সামঞ্জস্যতা রেখে বাজারে বিটকয়েনের পরিমাণ কমিয়ে আনার জন্য একটি পরিকল্পনা করা হয়েছে। আগামী এপ্রিলের মধ্যে এর পরিমাণ প্রায় অর্ধেকে নামিয়ে আনার পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে।

গত ১০ জানুয়ারি যুক্তরাষ্ট্রের সিকিউরিটিস অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন ইটিএফের মাধ্যমে বিটকয়েনে বিনিয়োগের অনুমোদন দেয়। ফলে বিনিয়োগকারীরা এখন থেকে প্রথাগত বিনিয়োগ মাধ্যমে বিটকয়েনে বিনিয়োগ করতে পারবেন।

ইটিএফ এক ধরনের বিনিয়োগ, যা সহজেই স্টক মার্কেটে লেনদেন করা যায়। একটি নির্দিষ্ট স্টক, পণ্য বা সিকিউরিটিসের সরাসরি মালিকানার পরিবর্তে বিনিয়োগকারীরা ইটিএফ কিনতে এবং ধরে রাখতে পারেন। যা আবার সম্পদমূল্যের গতিবিধি পর্যবেক্ষণ করে। ইটিএফ বিটকয়েনের দাম পর্যবেক্ষণ করবে, এতে যারা বিটকয়েনের দাম সম্পর্কে অনুমান করতে চায়, তারা বিটকয়েনের মালিকানা ছাড়াই তা করতে পারে।

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.