আজ: শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪ইং, ৬ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ৯ই শাওয়াল, ১৪৪৫ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

০২ এপ্রিল ২০২৪, মঙ্গলবার |

kidarkar

নিউ ইয়র্ক স্টক এক্সচেঞ্জে ট্রেডিং শুরু করলো সদ্য গঠিত জিই ভার্নোভা

নিজস্ব প্রতিবেদক: জিই (এনওয়াইএসই: জিই) থেকে সদ্য-গঠিত জিই ভার্নোভা (এনওয়াইএসই: জিই) স্বশাসিত প্রতিষ্ঠান হিসেবে নিউ ইয়র্ক স্টক এক্সচেঞ্জে (এনওয়াইএসই) ট্রেডিং শুরু করেছে। ট্রেডিংয়ের ক্ষেত্রে প্রতিষ্ঠানটি ‘জিইভি’ প্রতীক (টিকার সিম্বল) ব্যবহার করবে। নিউ ইয়র্ক স্টক এক্সচেঞ্জে সকাল সাড়ে ৯টায় (ইটি) থেকে জিইভি ভার্নোভা’র পাশাপাশি জিই’র অপর একটি সদ্য-গঠিত স্বশাসিত প্রতিষ্ঠান জিই অ্যারোস্পেস ট্রেডিং শুরু করবে।

জিই ভার্নোভা’র সিইও স্কট স্ট্রাজিক বলেন, “টেকসই ভবিষ্যত গঠনে বিদ্যুৎ স্থানান্তর (এনার্জি ট্রানজিশন) প্রক্রিয়া ত্বরান্বিত করার লক্ষ্য নিয়ে জিই ভার্নোভা আজ স্বশাসিত প্রতিষ্ঠান হয়ে উঠেছে। আমরা অর্থনৈতিক ও বৈদ্যুতিক ক্রমবর্ধমান চাহিদা মেটাতে বিদ্যুৎ সরবরাহ করি, যা স্বাস্থ্য, নিরাপত্তা এবং জীবনমান উন্নতকরণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। বিশেষ করে, আমাদের শক্তি, বায়ু এবং বিদ্যুতায়ন বিভাগগুলো বৈদ্যুতিক শক্তি শিল্পে পণ্য ও পরিষেবা সরবরাহ করে। জিই ভার্নোভা বিশ্বব্যাপি বিদ্যুৎ সরবরাহ ও ডিকার্বনাইজ করার উদ্দেশ্যে গঠন করা হয়েছে এবং প্রতিষ্ঠানের এ যাবতকালীন অর্জনে আমি অত্যন্ত গর্বিত। সমস্ত গ্রাহক ও শেয়ারহোল্ডারদের নিয়ে এ সাফল্য অব্যাহত রাখতে আমি আশাবাদী।”

জিই ভার্নোভা’য় শতাধিক দেশে ৮০ হাজারেরও অধিক কর্মী কাজ করছে। বিশ্বের বিভিন্ন শীর্ষস্থানীয় ইউটিলিটি, ডেভেলপার, সরকার ও বৃহৎ শিল্প বিদ্যুত ব্যবহারকারী প্রতিষ্ঠান বিদ্যুৎ উৎপাদন, স্থানান্তর, একত্রীকরণ, রূপান্তর এবং সঞ্চয় করতে তাদের ইনস্টল বেইসের ওপর নির্ভরশীল। জিই ভার্নোভা’র ৭ হাজারেরও বেশি গ্যাস টারবাইন, বিশ্বের বৃহত্তম প্রায় ৫৫ হাজার বায়ু টারবাইন এবং সর্বাধুনিক বিদ্যুতায়ন প্রযুক্তিসম্পন্ন ইনস্টল বেইস বিশ্বের প্রায় ৩০% বিদ্যুৎ উৎপন্ন করতে সাহায্য করছে৷

চলতি বছর মার্চ মাসে জিই ভার্নোভা’র ‘ইনভেস্টর ডে’ তে, প্রতিষ্ঠানের ২০২৪ সালের আর্থিক নির্দেশিকা (ফাইন্যান্সিয়াল গাইডেন্স) পুনর্বাচন এবং ২০২৫ সালের আর্থিক নির্দেশিকা ঘোষণা করা হয়। জিই ভার্নোভা ২০২৮ সাল নাগাদ তাদের মূল পরিকল্পনা প্রকাশ করে, যার মধ্যে; মিড-সিঙ্গেল ডিজিট অর্গানিক রেভেনিউ গ্রোথ, ১০% অ্যাডজাস্টেড এবিটডা মার্জিন, ৯০-১১০% ফ্রি ক্যাশ-ফ্লো* রূপান্তর ইত্যাদি উল্লেখযোগ্য।

জিই ভার্নোভা বর্তমানে ২৬৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলার শিল্পের অন্তর্ভুক্ত, যা ২০৩০ সাল নাগাদ ৪৩৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলারে পৌঁছাবে বলে অনুমান করা হচ্ছে। বর্ধিত বিদ্যুতায়ন ও ডিকার্বনাইজেশনের ব্যাপক সুযোগ রয়েছে, ২০৪০ সাল নাগাদ যার উৎপাদন ক্ষমতা দ্বিগুণেরও বেশি হবে। এই সুযোগকে কাজে লাগাতে জিই ভার্নোভা স্থায়িত্ব ও উদ্ভাবনের দিকে ফোকাস করছে। তারা যুগান্তকারী বিদ্যুৎ স্থানাতর প্রযুক্তি পরিচালনায় গবেষণা ও উন্নয়নের (আর অ্যান্ড ডি) ক্ষেত্রে বার্ষিক প্রায় ১ বিলিয়ন মার্কিন ডলার বিনিয়োগ করছে।

জিই, জিই ভার্নোভা ইনকর্পোরেটেড-এর সব কমন স্টকের শেয়ারগুলো ডিস্ট্রিবিউট করে দেয়, যার মাধ্যমে জিই ভার্নোভা স্বশাসিত প্রতিষ্ঠানে রূপান্তরিত হয়। গত ১৯ মার্চ পর্যন্ত প্রতিটি জিই কমন স্টকহোল্ডাররা জিই’র প্রতি চারটি কমন স্টক শেয়ারের জন্য জিই ভার্নোভা ইনকর্পোরেটেড-এর একটি কমন স্টকের শেয়ার পেয়েছেন।

জিই ভার্নোভ আগামী ২৫ এপ্রিল সকাল ৭:৩০ মিনিটে (ইটি) প্রথম ত্রৈমাসিক আয় ঘোষণা করবে। বিস্তারিত জানতে ভিজিট www.gevernova.com/investors।

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.