আজ: মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪ইং, ১০ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১২ই শাওয়াল, ১৪৪৫ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

০৫ মার্চ ২০১৬, শনিবার |

kidarkar

বেসরকারি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের সুশাসন নিশ্চিতে বিএসইসি-কে সর্বময় সহযোগীতা করবে অর্থ মন্ত্রণালয়

govt of bangladeshশেয়ারবাজার রিপোর্ট : দেশের বেসরকারি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের কর্পোরেট সুশাসন নিশ্চিত করবে পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ এন্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)। আর এ কাজের জন্য বিএসইসি-কে আইনি ক্ষমতা দিয়েছে সরকার। পাশাপাশি এ দায়িত্ব পালনের জন্য বিএসইসি-কে সর্বময় সহযোগিতা করবে অর্থ মন্ত্রণালয়। এতে বেসরকারি কোম্পানিগুলোতে দুর্নীতি, অনিয়ম ও অস্বচ্ছতা দূর হবে বলে আশাবাদ প্রকাশ করেন ‘জাতীয় শুদ্ধাচার কৌশল’ এর সমন্বয়ক ও কেবিনেট ডিভিশনের সচিব (সমন্বয় ও সংস্কার) এন এম জিয়াউল আলম।

আজ শনিবার বিদ্যুৎ ভবনে আয়োজিত ‘দা রোল অব প্রাইভেট অর্গানাইজেশনস ইন প্রমোটিং ইন্টেগ্রিটি’ শীর্ষক সেমিনারে এমন মন্তব্য করেন জিয়াউল আলম।

‘জাতীয় শুদ্ধাচার কৌশল’ এর আওতায় মন্ত্রীপরিষদ বিভাগ, জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) এবং জাপান ইন্টারন্যাশনাল কর্পোরেশন এজেন্সির (জাইকা) উদ্যোগে বেসরকারি খাতে সুশাসন প্রতিষ্ঠা, অনিয়ম, দুর্নীতি, মুদ্রা পাচার, অপব্যবসা রোধ করতে এবং কর বান্ধব পরিবেশ উন্নীতকরণে এ সেমিনারের আয়োজন করা হয়। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান ও সভাপতি হিসেবে ছিলেন এনবিআর চেয়ারম্যান নজিবুর রহমান। এছাড়া বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মন্ত্রীপরিষদ সচিব মো: শফিউল আলম, এফবিসিসিআই এর প্রেসিডেন্ট আবদুল মাতলুব আহমাদ, জাইকা’র প্রধান প্রতিনিধি মিকিও হাতাইদি।

কেবিনেট ডিভিশনের গৃহীত কর্মপদ্ধতি উপস্থাপন করেন সচিব (সমন্বয় ও সংস্কার) এন এম জিয়াউল আলম। এ সময় তিনি বলেন, বেসরকারি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে দুর্নীতি, অনিয়ম, অস্বচ্ছতা দূর করে আইন পালন ও সুশাসন নিশ্চিত করতে হলে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়, অর্থ মন্ত্রণালয়সহ সংশ্লিষ্ট সরকারি নিয়ন্ত্রক সংস্থাগুলোকে সম্মিলিতভাবে কাজ করতে হবে। বিশেষ করে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ এন্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন এবং বাংলাদেশ ব্যাংককে এ বিষয়ে অগ্রণী ভূমিকা পালন করতে হবে। কারণ বেসরকারি খাতকে নিয়ন্ত্রণের জন্য তাদের কাছে পর্যাপ্ত ক্ষমতা রয়েছে। আর আইন প্রয়োগের ক্ষেত্রে এ দুই নিয়ন্ত্রককে সর্বময় সহায়তা দিবে অর্থ ও বাণিজ্য মন্ত্রণালয়।

সেমিনারে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মো: শফিউল আলম বলেন, দেশের কাঙ্ক্ষিত জিডিপি প্রবৃদ্ধি ও ভিশন ২০২১ এবং ২০৪১ এর লক্ষ্য অর্জনে সরকারি ও বেসরকারি খাতে শদ্ধাচার কৌশল বাস্তবায়নের বিকল্প নেই।

সরকারি ও বেসরকারি খাতে খেলাপি ঋণ নিয়ন্ত্রণের ওপর গুরুত্বারোপ করে এফবিসিসিআই প্রেসিডেন্ট আবদুল মাতলুব আহমাদ বলেন, দেশে বর্তমানে ৫২ বিলিয়ন টাকা খেলাপি ঋণ রয়েছে। যা বিশ্ব অর্থনীতিতে আমাদের ভাবমুর্তী খারাপ করছে। তাই জরুরি ভিত্তিতে এ খেলাপি ঋণের সংস্কৃতি আমাদের নির্মূল করতে হবে।

এছাড়া তিনি মূসকের হার যৌক্তিকভাবে নির্ধারণের জন্য এনবিআর-কে পরামর্শ দেন।

ব্যবসাবান্ধব পরিবেশে রাজস্ব আহরণ কার্যক্রম নিশ্চিতকরণে এবং ব্যবসা-বাণিজ্যে অসম প্রতিযোগিতা রোধকল্পে শুদ্ধাচার কৌশল বাস্তবায়নে বেসরকারি সংস্থাসমূহকে সক্রিয়ভাবে অংশগ্রহণের আহবান জানিয়ে সেমিনারের সমাপ্তি ঘোষণা করেন এনবিআর চেয়ারম্যান নজিবুর রহমান।

 

শেয়ারবাজারনিউজ/আ

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.