আজ: রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪ইং, ৯ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৫ই জিলহজ, ১৪৪৫ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

১৮ জুন ২০১৬, শনিবার |

kidarkar

গ্রামীণফোনকে ১৯ কোটি টাকা পরিশোধের নির্দেশ

gpশেয়ারবাজার রিপোর্ট: স্থান ও স্থাপনার ভাড়ার বিপরীতে গত চার বছরের মূল্য সংযোজন কর (ভ্যাট) হিসেবে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত টেলিকমিউনিকেশন খাতের গ্রামীণফোনকে ১৯ কোটি টাকা পরিশোধ করতে বলেছে আপিল বিভাগ।

পাশাপাশি আপিল বিভাগ একই ইস্যুতে বাংলালিংককে ৩৪ কোটি, এয়ারটেলকে ১৬ কোটি, রবিকে ১৫ কোটি, সিটিসেলকে সাত কোটি ও টেলিটককে চার কোটি টাকা রাষ্ট্রীয় কোষাগারে জমা দিতে নির্দেশ দেয়।

এর আগে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) বৃহৎ করদাতা ইউনিট ছয় অপারেটরকে ভ্যাট বাবদ ওই অর্থ পরিশোধের নির্দেশ দিলেও কোম্পানিগুলোর রিট আবেদনে উচ্চআদালত তা স্থগিত করেছিল।

এর বিরুদ্ধে রাষ্ট্রপক্ষ আপিল বিভাগে গেলে প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহার নেতৃত্বাধীন চার সদস্যের আপিল বেঞ্চ বৃহস্পতিবার (১৬ জুন) তা নিষ্পত্তি করে আদেশ দেয়।

আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এস এম মনিরুজ্জামান। অপারেটরগুলোর পক্ষে শুনানিতে ছিলেন ব্যারিস্টার রোকন উদ্দিন মাহমুদ, ব্যারিস্টার ফিদা এম কামাল ও এ এম আমিন উদ্দিন।

ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এস এম মনিরুজ্জামান বলেন, হাই কোর্ট অর্থ পরিশোধের আদেশ স্থগিত করেছিল। আপিল বিভাগ তা ‘সংশোধন করে অপারেটরদের ভ্যাটের অর্থ পরিশোধ করতে নির্দেশ দিয়েছে। সেই সঙ্গে হাই কোর্টে রুলের শুনানি করতে বলেছে।

তিনি আরও বলেন, আদালত বলেছে হাই কোর্টে যদি তারা (অপারেটরগুলো) জিতে যায়, তাহলে অর্থ ফেরত পাবে। তা না হলে অর্থ রাষ্ট্রীয় কোষাগারেই থাকবে।

জানা যায়, গত এপ্রিলে এনবিআরের বৃহৎ করদাতা ইউনিটের কমিশনার (মূসক) গ্রামীণফোনকে ১৯ কোটি, বাংলালিংককে ৩৪ কোটি, এয়ারটেলকে ১৬ কোটি, রবিকে ১৫ কোটি, সিটিসেলকে সাত কোটি ও টেলিটককে চার কোটি টাকা রাষ্ট্রীয় কোষাগারে জমা দিতে নির্দেশ দেয়।

২০১১ সালের জুলাই থেকে ২০১৫ সালের জুন পর্যন্ত সময়ের ভ্যাট হিসেবে ওই অর্থ পরিশোধ করতে বলা হয় কোম্পানিগুলোকে।

কমিশনারের ওই আদেশের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে গ্রামীণফোন, বাংলালিংক, এয়ারটেল ও রবি হাই কোর্টে আলাদা রিট আবেদন করে। প্রাথমিক শুনানি নিয়ে গত ৬ জুন হাই কোর্টের একটি দ্বৈত বেঞ্চ রুল জারি করে। সেইসঙ্গে অর্থ পরিশোধের আদেশের কার্যকারিতা তিন মাসের জন্য স্থগিত করে দেয়।

গ্রামীণ ফোনের আইনজীবী শরীফ ভূঁইয়া বলেন, দাবি করা অর্থ রুল শুনানির আগে দিতে হবে না পরে, তা পূর্ণাঙ্গ আদেশ পাওয়া গেলে বলতে পারব। সে অনুযায়ী রুল শুনানির উদ্যোগ নেব।

শেয়ারবাজারনিউজ/আ

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.