আজ: শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪ইং, ১লা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ৮ই জিলহজ, ১৪৪৫ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

২৮ জুলাই ২০১৬, বৃহস্পতিবার |

kidarkar

টনিক দিয়ে চলছে বাজার!

bazarশেয়ারাবাজার রিপোর্ট: চলতি সপ্তাহের প্রায় প্রতিদিনই শেয়ারবাজারে লেনদেন শুরুর প্রথম কয়েক ঘন্টা সূচকের পতন ঘটছে। আর পতন ঠেকাতে শেষের দিকে কিছু প্রাতিষ্ঠানিক বিশেষ করে আইসিবি ও কিছু প্রতিষ্ঠান শেয়ার কিনেছে। এতে সূচকের পতন দীর্ঘ না হলেও এভাবে টনিক দিয়ে সূচকের পতন রোধ করা পুঁজিবাজারের জন্য শুভ নয় বলছেন বিশেষজ্ঞরা।

এ প্রসঙ্গে পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিএসইসি’র এক উর্ধ্বতন কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে শেয়ারবাজারনিউজ ডটকমকে বলেন, প্রায় প্রতিদিনই সূচকের পতন ঘটছে। এতে সরকারের কাছে আমাদের ভাবমূর্তী ক্ষুণ্য হচ্ছে। তাই সূচকের পতন যাতে দীর্ঘ না হয় সেজন্য আমরা নার্সিং করছি। যখন দেখা যায় সূচক নেমে যাচ্ছে তখন কিছু প্রতিষ্ঠানকে শেয়ার কেনার জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়। এতে সূচকের পতন কিছুটা হলেও কম হয়।

এদিকে মার্চেন্ট ব্যাংকার্স অ্যাসোসিয়েশনের একাধিক নেতার সাথে আলাপ কালে জানা যায়, পুঁজিবাজার বর্তমানে স্থিতিশীল অবস্থায় রয়েছে। কেন্দ্রীয় ব্যাংক থেকে শুরু করে অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের রিসার্চেও বর্তমান পুঁজিবাজার বিনিয়োগ উপযোগী অবস্থানে রয়েছে। এর জের ধরে পুঁজিবাজারে বিদেশি বিনিয়োগও বাড়ছে। কিন্তু এতোসব খবরের প্রতিফলন দৈনিক লেনদেনে নেই। এ মুহুর্তে পুঁজিবাজারকে চাঙ্গা করতে হলে স্বল্প খরচে ইক্যুইটি সাপোর্টের প্রয়োজন।

এদিকে, সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সূচকের উর্ধ্বমুখী প্রবণতায় শেষ হয় লেনদেন। এদিন শুরু থেকে উত্থান থাকলেও ১ ঘন্টা ২০ মিনিট পর টানা পরতে থাকে সূচক এবং শেষ দিকে ঘুড়ে দাঁড়াতে স্বক্ষম হয় বাজার। বৃহস্পতিবার সূচকের সামান্য উন্নতি হলেও কমেছে অধিকাংশ কোম্পানির শেয়ার দর। আর টাকার অংকে আগের দিনের তুলনায় লেনদেন কিছুটা কমেছে। আজ দিন শেষে ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৩৭৫ কোটি টাকা।

দিনশেষে ডিএসইর ব্রড ইনডেক্স আগের দিনের চেয়ে ০.০৫ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ৪৫৩৮ পয়েন্টে। আর ডিএসই শরিয়াহ সূচক ১ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ১১১১ পয়েন্টে এবং ডিএসই সূচক ০.০২ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ১৭৭১ পয়েন্টে। দিনভর লেনদেন হওয়া ৩২৩ কোম্পানির মধ্যে দর বেড়েছে ১০৯টির, কমেছে ১৪৯টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৬৫টির। আর দিনশেষে লেনদেন হয়েছে ৩৭৫ কোটি ৫৭ লাখ ৮৯ হাজার টাকা।

এর আগের কার্যদিবস অর্থাৎ বুধবার ডিএসইর ব্রড ইনডেক্স আগের দিনের চেয়ে ১১ পয়েন্ট কমে অবস্থান করে ৪৫৩৮ পয়েন্টে। আর ডিএসই শরিয়াহ সূচক ৩ পয়েন্ট কমে অবস্থান করে ১১১৩ পয়েন্টে এবং ডিএসই ৩০ সূচক ৫ পয়েন্ট কমে অবস্থান করে ১৭৭১ পয়েন্টে। আর ওইদিন লেনদেন হয়েছিল ৪০৫ কোটি ২২ লাখ ৫ হাজার টাকা। সে হিসেবে আজ ডিএসইতে লেনদেন কমেছে ২৯ কোটি ৬৪ লাখ ০৮ হাজার টাকা।

এদিকে, দিনশেষ চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সাধারণ মূল্য সূচক ২ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ৮৫০৪ পয়েন্টে। দিনভর লেনদেন হওয়া ২৫০টি কোম্পানির ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ৯০টির, কমেছে ১২২টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৩৮টির। আর দিনশেষে লেনদেন হয়েছে ৪২ কোটি ১৫ লাখ ৫৬ হাজার টাকা।

শেয়ারবাজারনিউজ/মু

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.