আজ: বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪ইং, ৫ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১১ই জিলহজ, ১৪৪৫ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

০২ অগাস্ট ২০১৬, মঙ্গলবার |

kidarkar

৬৭ শতাংশ ব্যাংকের আয় বেড়েছে

Bank_ব্যাংকশেয়ারবাজার রিপোর্ট: আয় বেড়েছে তালিকাভুক্ত ৬৭ শতাংশ ব্যাংকের। সর্বশেষ প্রকাশিত প্রান্তিক প্রতিবেদন পর্যালোচনায় এ তথ্য উঠে আসে।

দেশের পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ৩০টি ব্যাংক কোম্পানির মধ্যে ২০টির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) চলতি বছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকে এসে বেড়েছে। এছাড়া অপরিবর্তীত রয়েছে ১ কোম্পানির ও আয় কমেছে ৯টির। ৩০ জুন সমাপ্ত এ প্রান্তিকের অনীরিক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনায় এসব তথ্য উঠে এসেছে। । সংশ্লিষ্ট সূত্রে এ তথ্য পাওয়া গেছে।

প্রকাশিত প্রান্তিক প্রতিবেদন বিশ্লেষণে দেখা যায়, এবি ব্যাংক, আল আরাফাহ ইসলামী ব্যাংক, ব্র্যাক ব্যাংক, সিটি ব্যাংক, ডাচ-বাংলা ব্যাংক, ইস্টার্ন ব্যাংক, এক্সিম ব্যাংক, ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামি ব্যাংক, আইএফআইসি ব্যাংক, ইসলামী ব্যাংক, যমুনা ব্যাংক, মার্কেন্টাইল ব্যাংক, মিউচ্যুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক, ন্যাশনাল ব্যাংক, ওয়ান ব্যাংক, শাহজালাল ইসলামি ব্যাংক, সোস্যাল ইসলামি ব্যাংক, স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংক, ট্রাস্ট ব্যাংক এবং উত্তরা ব্যাংকের মুনাফা আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় বেড়েছে।

এছাড়া এনসিসি ব্যাংকের আয় অপরিবর্তীত রয়েছে। অন্যদিকে, আয় কমেছে প্রিমিয়ার ব্যাংক, পূবালী ব্যাংক, রুপালী ব্যাংক, সাউথইস্ট ব্যাংক, ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক, ব্যাংক এশিয়া এবং ঢাকা ব্যাংকের। ব্যাংকিং খাতে সমস্যার ব্যাংক (প্রবলেম ব্যাংক) হিসেবে হিসেবে পরিচিত আইসিবি ইসলামী ব্যাংকের লোকসান আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় বেড়েছে।

এর মধ্যে এবি ব্যাংকের শেয়ার প্রতি আয় ইপিএস হয়েছে ১.৬৫ টাকা, যা আগের বছর একই সময়ে ছিল ১.৪১ টাকা। সে অনুযায়ী কোম্পানির ইপিএস বেড়েছে ০.২৪ টাকা।

আল আরাফাহ ইসলামী ব্যাংকের ইপিএস হয়েছে ১.১৪ টাকা, আগের বছর ছিল ০.৭১ টাকা এবং বেড়েছে ০.৪৩ টাকা। ব্র্যাক ব্যাংকের ইপিএস হয়েছে ২.৫২ টাকা, আগের বছর ছিল ১.৪৪ টাকা এবং বেড়েছে ১.০৮ টাকা।

সিটি ব্যাংকের ইপিএস হয়েছে ২.৩০ টাকা, আগের বছর ছিল ১.৬৩ টাকা এবং বেড়েছে ০.৬৭ টাকা। ডাচ-বাংলা ব্যাংকের ইপিএস হয়েছে ৫.৬২ টাকা, আগের বছর ছিল ৫.৫৮ টাকা এবং বেড়েছে ০.০৪ টাকা। ইস্টার্ন ব্যাংকের ইপিএস হয়েছে ২.৩২ টাকা, আগের বছর ছিল ১.৭৭ টাকা এবং বেড়েছে ০.৫৫ টাকা।

এক্সিম ব্যাংকের ইপিএস হয়েছে ০.৪৬ টাকা, আগের বছর ছিল ০.২৩ টাকা এবং বেড়েছে ০.২৩ টাকা। ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামি ব্যাংকের ইপিএস হয়েছে ১.০৪ টাকা, আগের বছর ছিল ০.৪৪ টাকা এবং বেড়েছে ০.৬০ টাকা। আইএফআইসি ব্যাংকের ইপিএস হয়েছে ১.৬১ টাকা, আগের বছর ছিল ১.৪৩ টাকা এবং বেড়েছে ০.৮৮ টাকা।

ইসলামী ব্যাংকের ইপিএস হয়েছে ২.১৫ টাকা, আগের বছর ছিল ২.১১ টাকা এবং বেড়েছে ০.৮৮ টাকা। যমুনা ব্যাংকের ইপিএস হয়েছে ১ টাকা, আগের বছর ছিল ০.৭৫ টাকা এবং বেড়েছে ০.২৫ টাকা। মার্কেন্টাইল ব্যাংকের ইপিএস হয়েছে ১.৩৩ টাকা, আগের বছর ছিল ০.৫০ টাকা এবং বেড়েছে ০.৮৩ টাকা।

মিউচ্যুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংকের ইপিএস হয়েছে ১.৪৪ টাকা, আগের বছর ছিল ১.১৩ টাকা এবং বেড়েছে ০.৩১ টাকা। ন্যাশনাল ব্যাংকের ইপিএস হয়েছে ১.২১ টাকা, আগের বছর ছিল ০.৬৬ টাকা এবং বেড়েছে ০.৫৫ টাকা। ওয়ান ব্যাংকের ইপিএস হয়েছে ০.৯৪ টাকা, আগের বছর ছিল ০.৭৯ টাকা এবং বেড়েছে ০.১৫ টাকা।

শাহজালাল ইসলামি ব্যাংকের ইপিএস হয়েছে ০.৮১ টাকা, আগের বছর ছিল ০.৭৮ টাকা এবং বেড়েছে ০.০৪ টাকা। সোস্যাল ইসলামি ব্যাংকের ইপিএস হয়েছে ০.৭৩ টাকা, আগের বছর ছিল ০.৩৪ টাকা এবং বেড়েছে ০.৩৯ টাকা। স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংকের ইপিএস হয়েছে ০.৪০ টাকা, আগের বছর ছিল ০.২৮ টাকা এবং বেড়েছে ০.১২ টাকা।

ট্রাস্ট ব্যাংকের ইপিএস হয়েছে ২.১৭ টাকা, আগের বছর ছিল ১.৯৭ টাকা এবং বেড়েছে ০.২০ টাকা। উত্তরা ব্যাংকের ইপিএস হয়েছে ২.০৭ টাকা, আগের বছর ছিল ২.০৫ টাকা এবং বেড়েছে ০.০২ টাকা।

অন্যদিকে, আয় একই থাকা এনসিসি ব্যাংকের ইপিএস গতবছর ও চলতি বছরে ০.৫৫ টাকা হয়েছে।

এদিকে, আয় কমে আসা প্রিমিয়ার ব্যাংকের ইপিএস হয়েছে ০.৪০ টাকা, আগের বছরও ছিল ০.৬২ টাকা। সে হিসেবে এর ইপিএস কমেছে ০.২২ টাকা। পূবালী ব্যাংকের ইপিএস হয়েছে ০.৮৫ টাকা, আগের বছরও ছিল ১.৪২ টাকা। সে হিসেবে এর ইপিএস কমেছে ০.৫৭ টাকা। রুপালী ব্যাংকের ইপিএস হয়েছে ০.৪০ টাকা, আগের বছরও ছিল ১.১০ টাকা।

সে হিসেবে এর ইপিএস কমেছে ০.৭০ টাকা। সাউথ ইস্ট ব্যাংকের ইপিএস হয়েছে ১.৪২ টাকা, আগের বছরও ছিল ১.৮২ টাকা। সে হিসেবে এর ইপিএস কমেছে ০.৪০ টাকা। ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংকের ইপিএস হয়েছে ১.২৩ টাকা, আগের বছরও ছিল ১.৯৭ টাকা। সে হিসেবে এর ইপিএস কমেছে ০.৭৪ টাকা।

ব্যাংক এশিয়া’র ইপিএস হয়েছে ০.৩১ টাকা, আগের বছরও ছিল ০.৮৩ টাকা। সে হিসেবে এর ইপিএস কমেছে ০.৫২ টাকা। ঢাকা ব্যাংকের ইপিএস হয়েছে ১.২১ টাকা, আগের বছরও ছিল ১.৪৩ টাকা। সে হিসেবে এর ইপিএস কমেছে ০.২২ টাকা।

এবং আইসিবি ইসলামী ব্যাংকের শেয়ার প্রতি লোকসান রয়েছে ০.১৮ টাকা, যা আগের বছর একই সময়ে ছিল ০.১৪ টাকা। সে হিসেবে এর শেয়ার প্রতি লোকসান বেড়েছে ০.০৪ টাকা।

শেয়ারবাজারনিউজ/রু/ওহ

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.