আজ: শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ইং, ১১ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ, ১২ই শাবান, ১৪৪৫ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

১২ ফেব্রুয়ারী ২০১৭, রবিবার |

kidarkar

বিয়ারিসের ধাক্কা সামলিয়ে বুলের দিকে সূচক

bazarশেয়ারবাজার রিপোর্ট: গত ২৪ জানুয়ারি পুঁজিবাজারে দুই হাজার কোটি টাকা লেনদেনের পর থেকেই টানা ৮ কার্যদিবস বিয়ারিসের আচরণ শুরু হয়। সেই বিয়ারিসের ধাক্কা সামলিয়ে আবার বুলের দিকে পুঁজিবাজারের সূচক এগিয়ে চলেছে। টানা ৫ কার্যদিবস ধরে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) সূচকের ঊর্ধ্বগতিতে বিনিয়োগকারীদের সরব উপস্থিতি ফিরে এসেছে। সেই সঙ্গে দৈনিক লেনদেন ও বাজার মূলধনের পরিমাণ বৃদ্ধি পাওয়ায় পুঁজিবাজার স্থিতিশীলত অবস্থায় রয়েছে।

ডিএসই সূত্রে জানা যায়, গত ৪ কার্যদিবসের ধারাবাহিকতায় আজ ১২ ফেব্রুয়ারি সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবসেও ডিএসইর সূচকের উর্ধ্বমুখী প্রবণতায় লেনদেন শেষ হয়েছে। এদিন শুরুতে ক্রয় চাপে টানা বাড়তে থাকে সূচক। এরই ধারাবাহিকতায় সূচক ও লেনদেনের পরিমান বৃদ্ধি পেয়েছে। রোববার লেনদেন শেষে সূচকের পাশাপাশি বেড়েছে বেশীরভাগ কোম্পানির শেয়ার দর। আর টাকার অংকে লেনদেন আগের দিনের তুলনায় কিছুটা বেড়েছে। আলোচিত সময় পর্যন্ত ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৯৬৬ কোটি টাকা।

বাজার বিশ্লেষকরা বলছেন, নতুন করে নেগেটিভ ইক্যুইটিতে লেনদেন করার সুযোগ বাড়ানো হয়েছে। নতুন সময় অনুযায়ী পুঁজিবাজারে ঋণাত্মক মূলধনধারী (Negative Equity) বিনিয়োগ হিসাবে আরও ৬ মাস শেয়ার ক্রয়-বিক্রয় করতে পারবেন বিনিয়োগকারীরা।  এর ফলে নতুন করে ওই সকল বিনিয়োগকারীরা বাজারমুখী হয়েছেন বলে মনে করছেন তারা।

এদিকে টানা পাঁচ কার্যদিবস ধরে সূচক বাড়ছে। এরই ধারাবাহিকতায় সূচক আবার সাড়ে ৫ হাজার অতিক্রম করে ৬ হাজারের দিকে ছুটছে। সেই সঙ্গে বাড়ছে দৈনিক লেনদেন ও বাজার মূলধনের পরিমাণ।

এদিকে, দিনশেষে ডিএসইর ব্রড ইনডেক্স আগের দিনের চেয়ে ৩৩ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ৫৫৪৬ পয়েন্টে। আর ডিএসই শরিয়াহ সূচক ৯ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ১২৯৪ পয়েন্টে এবং ডিএসই ৩০ সূচক ৮ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ২০১১ পয়েন্টে। দিনভর লেনদেন হওয়া ৩২৯টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ১৮৫টির, কমেছে ৮৯টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৫৫টির। আর দিনশেষে লেনদেন হয়েছে ৯৬৬ কোটি ৮৩ লাখ ৯৪ হাজার টাকা।

এর আগের কার্যদিবস অর্থাৎ বৃহস্পতিবার ডিএসইর ব্রড ইনডেক্স আগের দিনের চেয়ে ২৪ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করে ৫৫১২ পয়েন্টে। আর ডিএসই শরিয়াহ সূচক ৬ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ১২৮৪ পয়েন্টে এবং ডিএসই৩০ সূচক ৮ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ২০০২ পয়েন্টে। আর ওইদিন লেনদেন হয়েছিল ৯১৩ কোটি ৫৫ লাখ ২০ হাজার টাকা। সে হিসেবে আজ ডিএসইতে লেনদেন বেড়েছে ৫৩ কোটি ২৮ লাখ ৭৪ হাজার টাকা।

এদিকে, দিনশেষে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সাধারণ মূল্য সূচক ৬৩ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ১০ হাজার ৩৯৩ পয়েন্টে। দিনভর লেনদেন হওয়া ২৬১টি কোম্পানির ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ১৭০টির, কমেছে ৭৩টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ১৮টির। আর দিনশেষে লেনদেন হয়েছে ৫৪ কোটি ৫৬ লাখ ৭৬ হাজার টাকা।

শেয়ারবাজারনিউজ/মু/ম.সা

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.