রোহিঙ্গাদের নিয়ে প্রিয়াঙ্কার আবেগঘন স্ট্যাটাস

শেয়ারবাজার ডেস্ক: বলিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী প্রিয়াঙ্কা চোপড়া বর্তমানে রুপালি জগতের ঝলমল দুনিয়া ছেড়ে মিয়ানমারে সেনা নিপীড়ন ও সহিংসতা থেকে প্রাণ বাঁচাতে বাংলাদেশে পালিয়ে আসা কক্সবাজারের রোহিঙ্গা শরণার্থীদের দেখতে এসেছেন। গতকাল সোমবার (২১ মে) রোহিঙ্গা শরণার্থী শিবিরে হাজির হন প্রিয়াঙ্কা।

প্রিয়াঙ্কা চোপড়াকে কাছে পেয়ে খুশিতে মেতে ওঠে কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলার বাহারছড়া ইউনিয়নের শামলাপুর শরণার্থী শিবিরের রোহিঙ্গা শিশুরা।

যদিও আইনশৃঙ্খলা বাহিনী শুরুতে রোহিঙ্গাদের প্রিয়াঙ্কার কাছে ঘেঁষতে বাধা দিচ্ছিল। কিন্তু নিরাপত্তার ঘেরাটোপ ছেড়ে আপন জনের মতো রোহিঙ্গা শিশুদের সঙ্গে মিশে যান প্রিয়াঙ্কা। তাদেরকে মমতা ভরে জড়িয়ে ধরে আদর করেন। এ সময় তিনি রোহিঙ্গা শিশুদের কষ্টের কথা শোনেন।

এরপর হোটেলে ফিরে সামাজিক মাধ্যম ইনস্টাগ্রামে এক আবেগঘন স্ট্যাটাস দেন প্রিয়াঙ্কা। এতে রোহিঙ্গা শিশুদের দুর্দশার কথা তুলে ধরে তাদের সাহায্য করার জন্য বিশ্ববাসীর কাছে আবেদন জানান জাতিসংঘের শিশুবিষয়ক তহবিলের এ শুভেচ্ছাদূত।

স্ট্যাটাসে প্রিয়াঙ্কা চোপড়া লিখেন, ‘আমি আজ (সোমবার ২১ মে) বাংলাদেশের কক্সবাজারে এসেছি। ইউনিসেফের শুভেচ্ছাদূত হয়ে এখানে বিশ্বের সবচেয়ে বড় শরণার্থী ক্যাম্প পরিদর্শন করলাম।’

‘২০১৭ সালের মাঝামাঝি সময়ে বিশ্ববাসী দেখল কী নৃশংসভাবে মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর ওপর জাতিগত নির্মূল অভিযান চালানো হয়। এতে ৭ লাখের মতো নির্যাতিত রোহিঙ্গা বাংলাদেশে পালিয়ে আসতে বাধ্য হয়। এদের মধ্যে ৬০ শতাংশই শিশু’।

প্রিয়াঙ্কা আরো লিখেন, ‘রোহিঙ্গাদের এই প্রজন্মের শিশুগুলোর সামনে ভবিষ্যৎ বলে কিছু নেই। যদিও তারা হাসছিল, তবে তাদের চোখে আমি দেখেছি নিঃসীম শূন্যতা। মাসের পর মাস ধরে তারা এক অনিশ্চিত ও মানবেতর জীবনযাপন করছে। এখানে মানবিক সংকট যে কতটা গভীর, তার নজির এ শিশুরা। আমাদের সাহায্য তাদের খুবই দরকার।’

বিশ্বে এই সময়ে শরণার্থীদের মধ্যে সবচেয়ে বড় জনগোষ্ঠী রোহিঙ্গাদের সহায়তায় ইউনিসেফের পাশে বিশ্ববাসীকে দাঁড়ানোর আহ্বান জানিয়ে এ শুভেচ্ছাদূত বলেন, ‘এই শিশুগুলোই আমাদের ভবিষ্যৎ’।

বাংলাদেশ মানবিক কারণে এই রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়েছে, তাদের রাখা হয়েছে কক্সবাজারের শরণার্থী শিবিরগুলোতে।

এ সময় কক্সবাজারে শরণার্থী শিবিরে রোহিঙ্গাদের গাদাগাদি করে থাকার বিষয়টিকে বিশ্ববাসীর সামনে তুলে ধরেন প্রিয়াঙ্কা। যেহেতু সামনে বর্ষা মৌসুম। তাই শরণার্থী শিবিরে সংকট আরো বাড়িয়ে তুলবে বলেও আশঙ্কা প্রকাশ করেন এ অভিনেত্রী।

উল্লেখ্য, রোহিঙ্গা শরণার্থীদের দেখতে ইউনিসেফের শুভেচ্ছাদূত বলিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী প্রিয়াঙ্কা চোপড়া চার দিনের সফরে সোমবার (২১ মে) ভোরে বাংলাদেশে আসেন। এরপর ঢাকা থেকে কক্সবাজারে যান তিনি।

প্রিয়াঙ্কা তার সফরের প্রথম দিনে তিনি শামলাপুর রোহিঙ্গা শিবির পরিদর্শন করেন।

সফরের দ্বিতীয় দিনে আজ মঙ্গলবার (২২ মে) সকালে প্রিয়াঙ্কা চোপড়ার উখিয়ার বালুখালী ও জামতলী রোহিঙ্গা শিবির পরিদর্শনের কথা রয়েছে। এরপর বিকালে তিনি টেকনাফ রোহিঙ্গা শিবির পরিদর্শন করবেন।

সফরের তৃতীয় দিন বুধবার (২৩ মে) তিনি উখিয়ার কুতুপালং রোহিঙ্গা শিবির পরিদর্শন করবেন।

সফরের শেষ এবং চতুর্থ দিন বৃহস্পতিবার (২৪ মে) সকালে কক্সবাজার ত্যাগ করবেন জাতিসংঘের শিশুবিষয়ক তহবিলের (ইউনিসেফের) শুভেচ্ছাদূত বলিউড অভিনেত্রী প্রিয়াঙ্কা চোপড়া।

শেয়ারবাজারনিউজ/মু

আপনার মন্তব্য

Top