আজ: শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১ইং, ৩রা আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ৯ই সফর, ১৪৪৩ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

২১ ডিসেম্বর ২০১৮, শুক্রবার |



kidarkar

ঘুরে দাঁড়ানোর প্রত্যাশায় বিনিয়োগাকারীরা

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: টানা দরপতনের পর অবশেষে আলোর মুখ দেখেছে পুঁজিবাজার। গত সপ্তাহে সূচক ও লেনদেন বৃদ্ধিতে ঘুড়ে দাঁড়ানোর প্রত্যাশায় রয়েছেন বিনিয়োগকারীরা।

সাপ্তাহিক ব্যবধানে দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সূচকের উত্থান ঘটেছে। পাশাপাশি প্রায় সব ধরনের সূচকও বেড়েছে। সপ্তাহজুড়ে লেনদেন হওয়া ৪ কার্যদিবসের মধ্যে তিন দিনই বেড়েছে সূচক। এরই ধারাবাহিকতায় দেশের উভয় শেয়ারবাজারে সব ধরনের সূচক বেড়েছে। এদিকে সূচকের পাশাপাশি বেড়েছে বেশিরভাগ কোম্পানির শেয়ার দর। তবে গত সপ্তাহে লেনদেনের পরিমান কিছুটা কমেছে। আলোচিত সপ্তাহটিতে ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ১ হাজার ৫০৯ কোটি ৪৪ লাখ ৫২ হাজার ৩৮৫ টাকা।

সাপ্তাহিক বাজার বিশ্লেষণে দেখা গেছে, সপ্তাহশেষে ডিএসই ব্রড ইনডেক্স বা ডিএসইএক্স সূচক বেড়েছে ০.২৭ শতাংশ বা ১৪.৩০ পয়েন্ট। সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএসই-৩০ সূচক কমেছে ০.০৯ শতাংশ বা ১.৬৭ পয়েন্ট। অপরদিকে শরীয়াহ বা ডিএসইএস সূচক বেড়েছে ০.২১ শতাংশ বা ২.৫৯ পয়েন্ট। আর সপ্তাহজুড়ে ডিএসইতে তালিকাভুক্ত মোট ৩৪৯টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এরমধ্যে দর বেড়েছে ১৭৬টি কোম্পানির। আর দর কমেছে ১৩৫টির, অপরিবর্তিত রয়েছে ৩৫টির এবং লেনদেন হয়নি ৩টির। এগুলোর ওপর ভর করে গত সপ্তাহে লেনদেন মোট ১ হাজার ৫০৯ কোটি ৪৪ লাখ ৫২ হাজার ৩৮৫ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। তবে এর আগের সপ্তাহে লেনদেন হয় ২ হাজার ৫৫৫ কোটি ২ লাখ ৪৪ হাজার ৩৯ টাকার। সেই হিসাবে সমাপ্ত সপ্তাহে লেনদেন কমেছে ১ হাজার ৪৫ কোটি ৫৭ লাখ ৯১ হাজার ৬৫৪ টাকা।

আর সমাপ্ত সপ্তাহে ‘এ’ ক্যাটাগরির কোম্পানির শেয়ার লেনদেন হয়েছে ৮৬.৩৩ শতাংশ। ‘বি’ ক্যাটাগরির কোম্পানির লেনদেনহয়েছে ৪.২৮ শতাংশ। ‘এন’ ক্যাটাগরির কোম্পানির লেনদেন হয়েছে  ৬.৮৫ শতাংশ। ‘জেড’ ক্যাটাগরির লেনদেন হয়েছে ২.৫৪ শতাংশ।

সপ্তাহ শেষে চট্টগ্রাম স্টক এক্সেচঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএসসিএক্স ৯.১৪ পয়েন্ট বা ০.০৯ শতাংশ বেড়ে সপ্তাহ শেষে দাঁড়িয়েছে ৯ হাজার ৭৬৩ পয়েন্টে। আর সপ্তাহজুড়ে সিএসইতে হাতবদল হওয়ার ২৮৮টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১৩৮টি কোম্পানির। আর দর কমেছে ১২২টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২৮টির। এগুলোর ওপর ভর করে বিদায়ী সপ্তাহে ৯৫ কোটি ২৭ লাখ ৯৯ হাজার ২১ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে।

শেয়ারবাজারনিউজ/মু

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.