আজ: শনিবার, ৩১ জুলাই ২০২১ইং, ১৭ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২০শে জিলহজ, ১৪৪২ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

১৯ মার্চ ২০২১, শুক্রবার |



kidarkar

মাদকের টাকা না পাওয়ায় মাকে হত‌্যা  

জাতীয় ডেস্ক: পাবনার চাটমোহরে যমুনা রানী সরকার (৫৫)-কে হত‌্যার দায়স্বীকার করেছেন ছেলে স্বপন কুমার সরকার (২৭)। মাদকের জন‌্য টাকা চেয়ে না পাওয়ায় বালিশচাপা দিয়ে মাকে হ‌ত‌্যা করেন তিনি।

আজ শুক্রবার দুপুরে আদালতে তিনি এই দোষ স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। চাটমোহর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমিনুল ইসলাম এই তথ‌্য নিশ্চিত করেন।

ওসি জানান, আদালতে দোষস্বীকারের আগে পুলিশি জিজ্ঞাসাবাদে স্বপন স্বীকার করেছেন, তিনি মাকে বালিশচাপায় দিয়ে হত্যা করেছেন। পরে বাড়ির পাশের বাগানে গিয়ে ঝুলিয়ে রাখার চেষ্টা করেছেন। কিন্তু না পেরে গাছের সঙ্গে হেলান দিয়ে বসিয়ে রেখে চলে যান।

আমিনুল ইসলাম বলেন, ‘যমুনা রানী অন্যের বাড়িতে কাজ করে জীবিকা নির্বাহ করতেন। স্থানীয় ডাকঘরে তার বেশ কিছু টাকা গচ্ছিত রয়েছে। স্বপন মাঝেমধ্যেই টাকার জন‌্য মাকে মারধর করতেন। স্বপন এরআগে মাদক মামলায় জেল খেটেছেন।’ তিনি আরও বলেন, নিহত যমুন রানী সরকারের আরেক ছেরে রতন সরকার মুসলিম সম্প্রদায়ে বিয়ে করে ধর্মান্তরিত হয়ে বাড়ির পাশেই ভাড়া বাড়িতে থাকেন। তাকেও আটক করা হয়েছিল। এরপর জিজ্ঞাসাবাদ শেষে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।’

উল্লেখ‌্য, গতকাল ১৮ মার্চ সকালে পাবনা পৌরসভার দোলং মহল্লার মৃত গোসাই সরকারের বাড়ির পাশ থেকে তার স্ত্রী যমুনা রানী সরকারের লাশ উদ্ধার করেন প্রতিবেশীরা। এরপর তারা পুলিশে খবর দেন। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে। এ ঘটায় রাতেই নিহতের মেয়ে সরস্বতী রানী কুন্ডু বাদী হয়ে থানায় হত‌্যা মামলা দায়ের করেন। এরপর রাতে যমুনা রানী সরকারের ছেলে স্বপন কুমার সরকার ও রতন কুমার সরকারকে আটক করে পুলিশ।

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.