আজ: মঙ্গলবার, ২৭ জুলাই ২০২১ইং, ১২ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৫ই জিলহজ, ১৪৪২ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

১৫ জুলাই ২০২১, বৃহস্পতিবার |



kidarkar

প্রথমদিনে দর বৃদ্ধির প্রান্ত স্পর্শ করেছে বারাকা পতেঙ্গা

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: সম্প্রতি প্রাথমিক গণপ্রস্তাব (আইপিও) সম্পন্ন করা কোম্পানি বারাকা পতেঙ্গা পাওয়ার লিমিটেটের  শেয়ার লেনদেন আজ বৃহস্পতিবার (১৫ জুলাই) থেকে দেশের উভয় স্টক এক্সচেঞ্জে একযোগে শুরু হয়।

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) কোম্পানিটির ওপেনিং প্রাইস ছিলো ২৯ টাকা। দর বৃদ্ধির সর্বোচ্চ সীমা স্পর্শ করে কোম্পানিটির ২৭ লাখ শেয়ার বিক্রি হয়েছে। দিন শেষে ক্লোজিং হয় ৩১ টাকা ৯০ পয়সায়। দাম বেড়েছে ২ টাকা ৯০ পয়সা বা ১০ শতাংশ।

চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) কেনাবেচা হয়েছে ১ লাখ ৫৭ হাজার শেয়ার। এ বাজারেও দর বৃদ্ধির প্রান্ত সীমা স্পর্শ করেছে কোম্পানিটি।

উভয় বাজার পর্যালোচনা করে এ তথ্য পাওয়া গেছে।

এদিকে, লেনদেন শুরুর দিন সকালে ডিএসই এবং সিএসইর সাথে বারাকা পতেঙ্গা পাওয়ারের চুক্তি স্বাক্ষর হয়। তারপরেই ঐতিহ্য অনুযায়ী ঘণ্টা বাজিয়ে ট্রেডিং কর্মসুচীর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হয়। এই চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে ডিএসইর ভারপ্রাপ্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালক আব্দুল মতিন পাটোয়ারি এফসিএমএ, সিএসইর ব্যবস্থাপনা পরিচালক মামুন উর রশিদ, বারাকা পতেঙ্গা পাওয়ারের চেয়ারম্যান গোলাম রাব্বানী চৌধুরী, ব্যবস্থাপনা পরিচালক মঞ্জুর কাদির শাফি, চীফ ফাইন্যান্সিয়াল অফিসার মোহাম্মদ মনিরুল ইসলাম, হেড অব ইন্টারনাল অডিট মনোজ দাশ গুপ্ত এবং কোম্পানি সেক্রেটারী মোহাম্মদ রানাসহ অন্যান্য উর্ধতন কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন।

জানা যায়, ‘এন’ ক্যাটাগরিভুক্ত বারাকা পতেঙ্গা পাওয়ারের ডিএসই ও সিএসইতে ট্রেডিং কোড হচ্ছে ‘BPPL’। আর ডিএসইতে কোম্পানিটির কোড ১৫৩২৪ এবং সিএসইতে ২০০২৪।

এর আগে গত ৫ জুলাই কোম্পানিটির আইপিও’র শেয়ার বিনিয়োগকারীদের মধ্যে বরাদ্দ করা হয়। বুক বিল্ডিং পদ্ধতিতে পুঁজিবাজারে আসা কোম্পানিটি গত ১৩ জুন থেকে ১৭ জুন পর্যন্ত আইপিও আবেদন সম্পন্ন করে।

এর আগে কোম্পানিটির কাট-অফ প্রাইস নির্ধারণে ২২ ফেব্রুয়ারি থেকে ২৫ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত বিডিং (নিলাম) অনুষ্ঠিত হয়। বিডিংয়ে কোম্পানিটির কাট-অফ প্রাইস নির্ধারিত হয় ৩২ টাকা।

গত ৫ জানুয়ারি শেয়ারবাজারের নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) ৭৫৫তম সভায় কোম্পানিটিকে বিডিংয়ের অনুমোদন দেয়।

বারাকা পতেঙ্গা পাওয়ার বুক বিল্ডিং পদ্ধতিতে প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) মাধ্যমে শেয়ারবাজার থেকে ২২৫ কোটি টাকা উত্তোলন করে। যা তার সাবসিডিয়ারি কর্ণফুলী পাওয়ার ও বারাকা শিকলবাহা পাওয়ারে বিনিয়োগ, দীর্ঘমেয়াদি ঋণের আংশিক পরিশোধ এবং আইপিওজনিত ব্যয়ে ব্যবহার করা হবে।

কোম্পানিটির ২০১৯-২০ অর্থবছরে সমন্বিতভাবে শেয়ারপ্রতি মুনাফা (ইপিএস) হয়েছে ৪.৩৭ টাকা। ২০২০ সালের ৩০ জুন কোম্পানিটির সমন্বিতভাবে শেয়ারপ্রতি নিট সম্পত্তি মূল্য (এনএভিপিএস) দাঁড়িয়েছে ২৩ টাকায়।

৩ উত্তর “প্রথমদিনে দর বৃদ্ধির প্রান্ত স্পর্শ করেছে বারাকা পতেঙ্গা”

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.