আজ: মঙ্গলবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১ইং, ১৩ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২০শে সফর, ১৪৪৩ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

২৮ জুলাই ২০২১, বুধবার |



kidarkar

আইআইইউসি’র শিক্ষার্থীদের বিনিয়োগ প্রশিক্ষণ দিলো সিএসই

শেয়ারবাজার ডেস্ক: বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ এন্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) বিনিয়োগ শিক্ষা কার্যক্রম এর ধারাবাহিক প্রশিক্ষণের আওতায় ইন্টারন্যাশনাল ইসলামিক ইউনিভাসিটি, চিটাগং (আইআইইউসি) এর ইকোনমিকস এন্ড ব্যাংকিং ডিপার্টমেন্টের শিক্ষার্থীদের প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (২৭ জুলাই) চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জ লিমিটেডের (সিএসই) আয়োজনে অনলাইনে এ প্রশিক্ষণ কার্যক্রম পরিচালনা করা হয়।

প্রশিক্ষণটির পরিচালনায় ছিলেন বিএসইসির এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর মোহাম্মেদ শফিউল আজম। এতে সম্মানিত অতিথি হিসেবে ছিলেন আইআইইউসির ইকোনমিকস এন্ড ব্যাংকিং ডিপার্টমেন্টের সহযোগী অধ্যাপক এবং চেয়ারম্যান ড. মো. শরিফুল হক। প্রশিক্ষণ প্রোগ্রামে আরো উপস্থিত ছিলেন আইআইইউসির ইকোনমিকস এন্ড ব্যাংকিং ডিপার্টমেন্টের প্রো. ড. মনির আহমেদ এবং প্রো. ড. নিজাম উদ্দিন। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন আইআইইউসির সমাজবিজ্ঞান অনুষদের প্রো-ভাইস চেন্সেলর এবং ডিন প্রো. ড. মাসরুর মওলা।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে ড. মওলা বলেন, “বিনিয়োগ শিক্ষা বিনিয়োগের ঝুঁকি সমন্ধে জানতে এবং তার সুরক্ষা করতে শেখায়। এখানে আর্থিক পরিকল্পনা অবশ্যই জরুরী বিষয়। আর একটি আর্থিক পরিকল্পনার সর্ব-সম্মত মূ্ল্যায়ন বিনিয়োগকারীদের বর্তমান এবং ভবিষ্যতের আর্থিক পরিস্থিতি, যেমন-বিভিন্ন বিষয় ব্যবহার করেন গদপ্রবাহ, সম্পদ বরাদ্দ, খরচ ও বাজেট প্রনয়ন সম্পর্কে সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে সাহায্যে করে।”

সম্মানিত অতিথির বক্তব্যে ড۔ শরীফ বলেন, “আর্থিক শিক্ষার বিভিন্ন ধাপ আছে। সেই ধাপ অনুযায়ী নিজের আর্থিক পরিকল্পনা নিজকেই করতে হবে। অথবা আর্থিক পরিকল্পনাকারী কোন প্রতিষ্ঠানের সাহায্য নিয়ে পরিকল্পনা প্রনয়ন করতে হবে।”

বিএসইসির এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর মোহাম্মেদ শফিউল আজম বলেন, “বিনোয়োগ শিক্ষা হলো ব্যাক্তিগত আর্থিক ব্যবস্থাপনা সম্পর্কে জ্ঞান। সঠিক বিনিয়োগ শিক্ষার ফলে ’আর্থিক জালিয়াতি থেকে রক্ষা পাওয়া’ এবং ’সুরক্ষিত আর্থিক ভবিষ্যত গড়ে তোলা’র মত দ্বৈত সুবিধা পাওয়া যায়। বিনিয়োগের শিক্ষা বিনিয়োগকারীদের বিভিন্ন বিনিয়োগ পণ্যের উপযুক্ততাসম্পর্কে প্রয়োজনীয় জ্ঞান প্রদান করে তাদেরকে সঠিক বিনিয়োগ সিদ্ধান্ত নিতে সহায়তা করে।”

সিএসই’র এজিএম এবং ট্রেনিং হেড আরিফ আহমেদ বলেন, ” আপনাকে ধনী হতে হবে ব্যাপরটা এমন না, আর্থিক পরিকল্পনার সার্বজনীন লক্ষ্য হচ্ছে বিনোয়োগ করা এবং এতে লাভবান হওয়ার একটি চলমান প্রক্রিয়া তৈরী করা, যা আপনার মানসিক চাপকে কমাতে সাহায্য করবে। আপনার এবং অপানার পরিবারের বর্তমান চাহিদাগুলোকে পূরণ করে প্রয়োজনীয় ভবিষ্যত সঞ্চয়ের পথ তৈরী করবে। যা হবে অপনার অবসরের স্বপ্ন।

সবচেয়ে বড় কথা হলো “অথনৈতিক মুক্তি” যে কথাটি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান বলে গেছেন। সেই লক্ষ্যকে সামনে রেখেই এই বিনিয়োগ শিক্ষা সংক্রান্ত প্রশিক্ষণ চলমান আছে এবং থাকবে। সিএসই সবসময়ই এ ধরনের কার্যক্রমের ধারবাহিকতার অংশীদার ও ভবিষ্যতে উপযুক্ত এবং যোগ্য বিনিয়োগকারী গঠনে বদ্ধ পরিকর।”

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.