আজ: মঙ্গলবার, ১৯ অক্টোবর ২০২১ইং, ৩রা কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১১ই রবিউল আউয়াল, ১৪৪৩ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

১৩ অক্টোবর ২০২১, বুধবার |



kidarkar

নতুন কপিরাইট আইন অনুমোদনের অপেক্ষায়- প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ

জাতীয় ডেস্ক: নতুন কপিরাইট আইন কেবিনেটে অনুমোদনের অপেক্ষায় আছে। নতুন আইনে কপিরাইটের আওতা, প্রণেতার আর্থিক অর্জন সুসংহতকরণ ও এ বিষয়ে বিশ্বাসযোগ্যতা অর্জনের ক্ষেত্রে বাস্তবসম্মত উদ্যোগের নিশ্চয়তা বিধান করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন সংস্কৃতি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ।

বুধবার (১৩ অক্টোবর) রাজধানীর আগারগাঁওয়ে আরকাইভস ও গ্রন্থাগার অধিদপ্তরের জাতীয় গ্রন্থাগার মিলনায়তনে কণ্ঠশিল্পী আইয়ুব বাচ্চুর কপিরাইট রেজিস্ট্রেশনকৃত গানের অনলাইন প্ল্যাটফর্ম থেকে অর্জিত অর্থের রয়্যালটি হস্তান্তর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘মেধাস্বত্ব সংরক্ষণের মাধ্যমে শিল্পীদের অধিকার সুরক্ষায় বর্তমান সরকার বদ্ধপরিকর। যার অংশ হিসেবে সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের আওতাভুক্ত প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ কপিরাইট অফিস নন্দিত ও জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী আইয়ুব বাচ্চুর সৃষ্টিকর্মকে সংরক্ষণের পাশাপাশি এর বাণিজ্যিক ব্যবহার থেকে রয়্যালটি আদায় নিশ্চিত করেছে। কপিরাইট নিশ্চিতকরণ ও মেধাস্বত্ব সংরক্ষণের লক্ষ্যে এটি এক অসাধারণ অর্জন। মাত্র এক বছরেরও কম সময়ের মধ্যে কোনো শিল্পী ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে পাঁচ হাজার ডলার উপার্জন করতে পারেন এবং টেলিফোন কোম্পানির মাধ্যমে পাঁচ লাখ টাকা আয় করতে পারেন, এ উদ্যোগের মাধ্যমে সেটি প্রমাণিত হয়েছে।’

শিল্পীদের কল্যাণে গৃহীত বিভিন্ন পদক্ষেপের কথা উল্লেখ করে সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘কোভিডকালীন প্রায় ২০ হাজার শিল্পীকে সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে অনুদান দেওয়া হয়েছে। তাছাড়া, প্রান্তিক শিল্পীদের আর্থিক সুরক্ষায় সংগীত বিমা চালুর উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।’

রেজিস্ট্রার অব কপিরাইটস জাফর রাজা চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব ও বাংলাদেশ কপিরাইট বোর্ডের চেয়ারম্যান সাবিহা পারভীন। অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তৃতা করেন আরকাইভস ও গ্রন্থাগার অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ফরিদ আহমদ ভূঁইয়া, মিসেস আইয়ুব বাচ্চু (ফেরদৌস আক্তার), এলআরবি ব্যান্ডের সদস্য আবদুল্লাহ আল মাসুদ। অনুষ্ঠান সঞ্চালনাসহ সূচনা বক্তৃতা করেন বাংলাদেশ কপিরাইট অফিসের ডেপুটি রেজিস্ট্রার মোহাম্মদ রায়হানুল হারুন।

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.