আজ: বুধবার, ২৬ জানুয়ারী ২০২২ইং, ১২ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২১শে জমাদিউস সানি, ১৪৪৩ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

০৪ ডিসেম্বর ২০২১, শনিবার |



kidarkar

তৃণমুলের নারীরাই এদেশে নারী ক্ষমতায়নের মুল কারিগর: স্পিকার

নিজস্ব প্রতিবেদক: গুরুত্বপূর্ণ পদে যেসব নারীরা আছেন, শুধু তারাই নন, বরং তৃণমুলের নারীরাই এদেশে নারী ক্ষমতায়নের মূল কারিগর বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী।

এফবিসিসিআই আয়োজিত ১৬ দিনব্যাপী “বিজয়ের ৫০ বছর: লাল সবুজের মহোৎসব”র ৩য় দিন প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেন, প্রান্তিক অঞ্চলের নারীরাই ঝড়, বন্যা, নদী ভাঙনসহ প্রাকৃতিক দুর্যোগে শক্ত হাতে বারবার ঘুরে দাঁড়ায়। তারা কখনো কঠিন সময়ে হাল ছেড়ে দেয় না। তারাই এদেশের নারী ক্ষমতায়নের মূল ভিত্তি।

তিনি আরও বলেন, মাতৃভাষা আন্দোলন, স্বাধীকার আন্দোলনসহ জাতীয় নানা গুরুত্বপূর্ণ আন্দোলনে নারীরা ছিলেন সামনের সারিতে। মুক্তিযুদ্ধে সম্মুখসমরে, অস্ত্রহাতে নারীরা যুদ্ধ করেছেন। যারা সরাসরি যুদ্ধ করেননি, তারাও মুক্তিযোদ্ধাদের নানাভাবে সহযোগিতা করেছেন।

এসময় এফবিসিসিআই সভাপতি জসিম উদ্দিন, দেশের অর্ধেক জনগোষ্ঠী নারী। বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রীত্বসহ নানা গুরুত্বপূর্ণ পদে সফলতার সাথে দায়িত্ব পালন করছেন নারীরা। সর্বোচ্চ রপ্তানিখাত তৈরি পোশাকসহ শিল্পখাতের শ্রমশক্তির অর্ধেকই নারী। এছাড়াও গ্রামীণ নারী উদ্যোক্তারাই চাঙা রেখেছেন দেশের তৃণমূলের অর্থনীতিকে। তাই বাংলাদেশের আগামীর অর্থনৈতিক পরিকল্পনা গুলোর সফল বাস্তবায়নের ক্ষেত্রে নারীদের সক্রিয় অংশগ্রহণ অপরিহার্য।

রাজধানীর হাতিরঝিলের অ্যামফিথিয়েটারে আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে শুক্রবার ছিলো নারীদের অংশগ্রহণে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

এফবিসিসিআই সভাপতি বলেন, আজকের বাংলাদেশের নারীদের সামাজিক, অর্থনৈতিক ক্ষেত্রে নারীদের সরব অবস্থানের ভিত্তি গড়ে দিয়েছেন সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী শেখ মুজিবুর রহমান। তারই ধারাবাহিকতায় নারীদের আর্থিক ও সামাজিক ক্ষমতায়ন নিশ্চিত করেছেন বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তাঁর নানামুখী পদক্ষেপে সংসদে নারীদের অংশগ্রহণ বেড়েছে।

এফবিসিসিআই সভাপতি জানান, সারা দেশে এফবিসিসিআই এর একুশটি মহিলা চেম্বার ও অ্যাসোসিয়েশন রয়েছে। এফবিসিসিআই সব সময় নারী উদ্যোক্তাদের সহায়তা দিয়ে আসছে।

বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্যে পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী জাহিদ ফারুক বলেন, প্রধানমন্ত্রী বিশ্বাস করেন নারী পুরুষ সম-অধিকার নিশ্চিত করা গেলে দেশের উন্নয়ন নিশ্চিত করা যাবে। নারী পুরুষের সমতা অর্জনই বাংলাদেশের আজকের সফলতার পেছনের মূল কারণ বলে দাবি করেন প্রতিমন্ত্রী জাহিদ ফারুক।

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.