সিটি ব্যাংকের ৪ কর্মকর্তাকে দুদকে জিজ্ঞাসাবাদ

city bankশেয়ারবাজার রিপোর্ট: সিটি ব্যাংক লিমিটেডের চার কর্মকর্তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। কথিত ব্যবসায়ী ওয়াহিদুর রহমানের বিরুদ্ধে হাজার কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ অনুসন্ধানের পক্রিয়ায় তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে ।

বৃহস্পতিবার সকাল ১১টায় রাজধানীর সেগুনবাগিচায় দুদক কার্যালয়ে তাদের জিজ্ঞাসাবাদ শুরু হয়েছে। দুদকের উপ-পরিচালক মো. জুলফিকার আলীর নেতৃত্বাধীন একটি টিম তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করছে।

যাদেরকে জিজ্ঞাসাবাদ  করা হচ্ছে- সিটি ব্যাংক লিমিটেডের রিলেশনশিপ ম্যানেজার এসএম আশিক আল মেহেদী, হেড অফ মার্কেটিং সাদাৎ আহমেদ খান, সাবেক বিজনেস ডেভেলপমেন্ট ম্যানেজার নুরুল আলম মজুমদার এবং সাবেক হেড অফ এসএমই বদরুদ্দোজা চৌধুরী।

দুদক সূত্রে জানা গেছে, চারটি ব্যাংক ও একটি আর্থিক প্রতিষ্ঠান থেকে নামে-বেনামে এক হাজার কোটি টাকা ঋণ নিয়ে আত্মসাৎ করেন ওয়াহিদুর রহমান নামে এক কথিত ব্যবসায়ী। এর মধ্যে ট্রাইও হলোগ্রাম ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের অনুকূলে সিটি ব্যাংকের প্রিন্সিপাল অফিস, জীবন বীমা টাওয়ার, ঢাকা থেকে নিয়ম বহির্ভূতভাবে ১৮ কোটি ১৬ লাখ টাকার ঋণ ফাইন্যান্স সুবিধা গ্রহণ করে। ওই হাজার কোটি টাকা আত্মসাতের অনুসন্ধান পক্রিয়ার মধ্যে ১৮ কোটি ১৬ লাখ টাকার ঋণ ফাইন্যান্স সুবিধা গ্রহণ সংক্রান্ত অভিযোগ অনুসন্ধানের জন্য আজ তাদেরকে জিজ্ঞাসাবাদ  করা হচ্ছে ।

এছাড়া ওয়াহিদুর রহমান ঋণ গ্রহণের নামে বেসিক ব্যাংক থেকে ৭৬৭ কোটি, ইসলামিক আইসিবি ব্যাংক থেকে ১০০ কোটি, বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংক থেকে ১২৪ কোটি এবং আর্থিক প্রতিষ্ঠান আইডিএলসি থেকে দুই কোটি ৪০ লাখ টাকা হাতিয়ে নেন। এর বেশির ভাগ টাকাই তিনি ঋণ নিয়েছেন ভুয়া ও বেনামি প্রতিষ্ঠানের নামে। ব্যাংকে ঋণের আবেদনপত্রে উল্লিখিত নাম-ঠিকানার সঙ্গে বাস্তবের কোনো মিল নেই।

দুদক সূত্র আরো জানায়, অভিযোগগুলো দুদকে আসার পর কমিশন তা যাচাই-বাছাই করে অনুসন্ধানের সিদ্ধান্ত নেয়। এ লক্ষ্যে গতবছর ২৪ সেপ্টেম্বর দুদকের উপপরিচালক মো. জুলফিকার আলীকে প্রধান করে তিন সদস্যের একটি অনুসন্ধানী দল গঠন করে কমিশন। অনুসন্ধান দলের অন্য কর্মকর্তারা হলেন, সহকারী পরিচালক মশিউর রহমান ও উপ-সহকারী পরিচালক ওমর ফারুক।

 

শেয়ারবাজারনিউজ/তু

আপনার মন্তব্য

Top