মার্চে যুক্ত হচ্ছে দ্বিতীয় সাবমেরিন ক্যাবল

Bsccl_Sharebazar_Newsশেয়ারবাজার রিপোর্ট: পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত বাংলাদেশ সাবমেরিন ক্যাবল কোম্পানি লিমিটেড (বিএসসিসিএল) মার্চ, ২০১৭ তারিখের মধ্যে এসইএ-এমই-ডাব্লিউই-৫ নামে দ্বিতীয় সাবমেরিন ক্যাবলে যুক্ত হচ্ছে।

টেলিকম সচিব ও বিএসসিসিএলের চেয়ারম্যান মো: ফয়েজুর রহমান চৌধুরী শেয়ারবাজারনিউজ ডটকমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

এর আগে তিনি পটুয়াখালীর কুয়াকাটায় দ্বিতীয় সাবমেরিন ক্যাবল সংযোগ প্রকল্প পরিদর্শন করেন।

উল্লেখ্য, বিএসসিসিএল দেশে ইন্টারনেট ব্যান্ডউইথ বাজারজাত করে। এছাড়া অব্যবহৃত ব্যান্ডউইথ ভারতের বাজারে রফতানিও করছে কোম্পানিটি। পাশাপাশি ভূটান, নেপালসহ আরও কিছু দেশ বাংলাদেশ থেকে ব্যান্ডউইথ আমদানিতে আগ্রহ প্রকাশ করেছে।

এ বিষয়ে ফয়েজুর রহমান শেয়ারবাজারনিউজ ডটকমকে বলেন, বঙ্গপো সাগরের জোয়ার ভাটার কারণে সংযোগ প্রকল্পটির কাজ বেশ কিছু দিন বন্ধ ছিল। তবে কাজ আগামী নভেম্বর মাসে কাজ পুনরায় শুরু হবে। তাছাড়া প্রকল্পের কাজ বর্তমানে যে পর্যায়ে রয়েছে তাতে বাকী কাজ শেষ হতে তিন থেকে চার মাসের বেশি সময় লাগবে না।

প্রকল্পটি সম্পন্ন হলে বাংলাদেশে ইন্টারনেট ব্যান্ডউইথ সরবারহ প্রতি সেকেন্ডে ১৩০০ গিগাবাইট হবে। আগে প্রথম সাবমেরিন ক্যাবল থেকে বাংলাদেশে ব্যান্ডউইথ আসতো ২০০ গিগাবাইট।

সি-মি-উই-৫ প্রকল্পে যুক্ত হতে ব্যয় হচ্ছে ৬৬০ কোটি টাকা। এর মধ্যে সরকারি কোষাগার থেকে ১৬৬ কোটি, প্রকল্প সাহায্য ৩৫২ কোটি এবং বিএসসিসিএলের নিজস্ব তহবিলের ১৪২ কোটি খরচ হচ্ছে।

একটি কনসোর্টিয়ামের আওতায় সি-মি-উই-৫ সাবমেরিন ক্যাবলে দক্ষিণ-এশিয়া, দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া, আফ্রিকা ও ইউরোপের ১৭ দেশ সংযুক্ত হচ্ছে।তাই দ্বিতীয় সাবমেরিন ক্যাবলের মালিক হবে ১৭টি দেশ। বাংলাদেশও এই ক্যাবলের মালিকানার অংশীদার। সি-মি-উই-৫ ক্যাবলের দৈর্ঘ্য হবে ২৫ হাজার কিলোমিটার। দেশে ব্যবহারের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যান্ডউইথ রেখে বাকি ব্যান্ডউইথ পার্শ্ববর্তী দেশগুলোর কাছে বিক্রি করা হবে বলে জানিয়েছে কোম্পানিটি।

উল্লেখ্য, বর্তমানে বাংলাদেশ সি-মি-উই-৪ এর (সাউথ এশিয়া-মিডলইস্ট-ওয়েস্টার্ন ইউরোপ) ক্যাবলের সঙ্গে সংযোগ রয়েছে। এর মালিক হচ্ছে ১৬ দেশ। দেশগুলো হচ্ছে সিঙ্গাপুর, মালয়েশিয়া, থাইল্যান্ড, বাংলাদেশ, ভারত, শ্রীলংকা, সংযুক্ত আরব আমিরাত, পাকিস্তান, সৌদি আরব, মিসর, ইতালি, তিউনিশিয়া, আলজিরিয়া ও ফ্রান্স।

শেয়ারবাজারনিউজ/আ

আপনার মন্তব্য

Top