১৪ প্রতিষ্ঠান ও ৮ শেয়ার ব্যবসায়িকে সতর্ক করেছে বিএসইসি

BSECশেয়ারবাজার রিপোর্ট: সিকিউরিটিজ আইন ভঙ্গ করে বিনিয়োগকারীদের স্বার্থ ক্ষুন্ন করায় নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ এন্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) ১৪ প্রতিষ্ঠান এবং ৮জন শেয়ার ব্যবসায়িকে সতর্ক করেছে। পাশাপাশি ২ সিকিউরিটিজ হাউজকে জরিমানা করেছে কমিশন।

এর মধ্যে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের ১১টি সিকিউরিটিজ হাউজ, ৮জন শেয়ার ব্যবসায়ি, ২টি তালিকাভুক্ত কোম্পানি, ১টি নিরীক্ষা প্রতিষ্ঠানকে সতর্ক করেছে। পাশাপাশি চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের ২টি সিকিউরিটিজ হাউজকে জরিমানা করা হয়েছে।

চলতি বছরের জানুয়ারি মাসে বিএসইসি’র এনফোর্সমেন্ট বিভাগ শেয়ারবাজারের স্বার্থে অনিয়মের সঙ্গে জড়িতদের বিরুদ্ধে এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে। বিএসইসি সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

জানা যায়, ডিএসই’র ট্রেকহোল্ডার লঙ্কাবাংলা সিকিউরিটিজ, ডায়নামিক সিকিউরিটিজ কনসালটেন্টস, ইবিএল সিকিউরিটিজ, মিডওয়ে সিকিউরিটিজ (প্রতিষ্ঠানটির বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ তুলে নিয়েছে বিএসইসি), টাইমস সিকিউরিটিজ, সাদ সিকিউরিটিজ, এসসিএল সিকিউরিটিজ, এমটিবি সিকিউরিটিজ, ওয়ান সিকিউরিটিজ, এনবিএল সিকিউরিটিজ এবং বিডি ফাইন্যান্স সিকিউরিটিজ-কে সিকিউরিটিজ আইন লঙ্ঘনের কারণে সতর্ক করেছে কমিশন।

এছাড়া ৮ শেয়ার ব্যবসায়িকে সতর্ক করে চিঠি দিয়েছে বিএসইসি। এ ৮ ব্যবসায়ি হলেন, লঙ্কাবাংলা সিকিউরিটিজের গ্রাহক আনোয়ার হোসেন টিটু ও আনোয়ারা বেগম; এসসিএল সিকিউরিটিজের গ্রাহক মাহবুবুর রহমান ও সমালিহা ফাররুজ; এমটিবি সিকিউরিটিজের গ্রাহক বিশ্বজিত দাস; ওয়ান সিকিউরিটিজের গ্রাহক গোলাম মোস্তফা এবং এনবিএল সিকিউরিটিজের গ্রাহক মো: আবদুল হাই এবং সৈয়দা রাবেয়া।

এদিকে রাইট শেয়ার ডকুমেন্টে ভুল তথ্য দেওয়ায় সাফকো স্পিনিং এবং কোম্পানিটির নিরীক্ষক মালেক সিদ্দিকি ওয়ালি-কে সতর্ক করেছে কমিশন। পাশাপাশি ভবিষ্যতে এ ধরণের কাজ করবে না মর্মে প্রতিষ্ঠান দুটি কমিশনের কাছে মুচলেকাও দিয়েছে।

আইপিও ফান্ড ব্যবহারে অনিয়ম করায় ফ্যামিলি টেক্স-কে সতর্ক করেছে বিএসইসি। বিএসইসি জানায়, প্রতিষ্ঠানটি এ ধরণের কাজ আর করবে না বলে মুচলেকা দেওয়ায় তাদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়নি।

চট্টগাম স্টক এক্সচেঞ্জের ট্রেকহোল্ডার সুপার শেয়ার সিকিউরিটিজ-কে ২ লাখ টাকা জরিমানা করেছে কমিশন। তবে হলি সিটি সিকিউরিটিজের জরিমানার পরিমাণ ৭ লাখ টাকা থেকে ২ লাখ টাকা কমিয়ে ৫ লাখ টাকা নির্ধারণ করেছে কমিশন। যা আগামী ১৫ কার্যদিবসের মধ্যে পরিশোধ করার নির্দেশ দিয়েছে কমিশন।

শেয়ারবাজারনিউজ/আ

আপনার মন্তব্য

Top