পদ্মা লাইফের মূখ্য নির্বাহী নেই : ২০ লাখ টাকা জরিমানা

padmaশেয়ারবাজার রিপোর্ট : মূখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা নিয়োগে ব্যবস্থা গ্রহন না করে বীমা আইন ভঙ্গ করেছে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত পদ্মা ইসলামি লাইফ ইন্স্যুরেন্স। যার কারণে এ কোম্পানির পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যানসহ সকল সদস্যকে এক লাখ টাকা করে সর্বমোট ২০ লাখ টাকা জরিমানা করেছে বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ (আইডিআরএ)।

বুধবার আইডিআরএ’র পক্ষ থেকে পাঠানো এ সংক্রান্ত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তি থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

জানা যায়,  বীমা আইন, ২০১০ এর ৮০(৪) ধারা ও ‘বীমা কোম্পানি (মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা নিয়োগ ও অপসারণ) প্রবিধানমালা, ২০১২’ পরিপালনে ব্যর্থ হওয়ায় পদ্মা ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোঃ লিঃ এর পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যানসহ সকল সদস্য কে ব্যক্তিগতভাবে ১ (এক) লক্ষ টাকা করে সর্বমোট ২০ (বিশ) লক্ষ টাকা জরিমানা করেছে বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ। এছাড়াও ০১ মে, ২০১৫ ইং তারিখের মধ্যে মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা নিয়োগে ব্যবস্থা গ্রহণ না করলে পরবর্তী প্রতিদিনের জন্য কোম্পানিকে ৫ হাজার টাকা করে জরিমানা প্রদান করতে হবে।

গত ০১ এপ্রিল, ২০১৫ ইং তারিখে বেলা ০১.০০ ঘটিকায় কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান এম. শেফাক আহমেদ, একচ্যুয়ারি এর সভাপতিত্বে শুনানি অনুষ্ঠিত হয়। শুনানিতে কর্তৃপক্ষের সদস্য  মোঃ কুদ্দুস খান, জুবের আহমেদ খাঁন, সুলতান-উল-আবেদীন মোল্লা এবং মোঃ মুরশিদ আলম উপস্থিত ছিলেন। এছাড়াও পদ্মা ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোঃ লিঃ এর পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান ডাঃ এ. বি. এম. জাফর উল্লাহ ও পরিচালনা পর্ষদের সদস্য এ. টি. এম. রফিক, আবু তাহের, নূরুল ইসলাম চৌধুরী এবং আবদুল মান্নান চৌধুরী উপস্থিত ছিলেন।

শুনানিতে সভাপতি বলেন,  পদ্মা ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোঃ লিঃ এর মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তার পদটি গত ১৯ মার্চ, ২০১৪ ইং তারিখ হতে শূন্য আছে। এক বছর অতিক্রান্ত হলেও এখন পর্যন্ত কোম্পানিতে মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা নিয়োগ দেয়া হয়নি।

উল্লেখ্য যে, মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা নিয়োগের আইনি বাধ্যবাধকতা উল্লেখপূর্বক কোম্পানিতে মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা নিয়োগের জন্য কর্তৃপক্ষ হতে গত ০৫ মে, ২০১৪ ইং তারিখে পত্র প্রেরণ করা হয়। কিন্তু উক্ত পত্র মোতাবেক কোম্পানি কর্তৃক মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা নিয়োগ না করায় এবং কেন উক্ত পত্র ও বিধি মোতাবেক মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা নিয়োগ দেয়া হয়নি তার ব্যাখ্যা চেয়ে কর্তৃপক্ষ গত ১৪ ডিসেম্বর, ২০১৪ ইং তারিখে কোম্পানি বরাবর পত্র প্রেরণ করে।

এর প্রেক্ষিতে গত ১৭ ডিসেম্বর, ২০১৪ ইং তারিখে কোম্পানি কর্তৃক প্রেরিত পত্রের মাধ্যমে আশাবাদ ব্যক্ত করা হয় যে, পরবর্তী তিন মাসের মধ্যে মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তার পদটি পূরণ করা হবে। গত ৫ জানুয়ারি, ২০১৫ ইং তারিখে কোম্পানির মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা হিসেবে মোহাম্মদ ওয়াসিউদ্দিন এর অনুমোদন চেয়ে পত্র প্রেরণ করা হয়। কিন্তু ‘বীমা কোম্পানি (মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা নিয়োগ ও অপসারণ) প্রবিধানমালা, ২০১২’ অনুসারে  মোহাম্মদ ওয়াসিউদ্দিন এর বীমা কোম্পানির মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা হিসেবে যোগদানের প্রয়োজনীয় যোগ্যতা নেই মর্মে প্রতীয়মান হয়।

শুনানিতে উল্লেখিত বিষয়গুলো পর্যালোচনান্তে পদ্মা ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোঃ লিঃ এর পরিচালনা পর্ষদ কর্তৃক মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা নিয়োগে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণের ক্ষেত্রে দীর্ঘসূত্রিতা এবং অবহেলা প্রতীয়মান হয়। যা কোম্পানির শেয়ার এবং পলিসি হোল্ডারদের স্বার্থ সুরক্ষার জন্য উদ্বেগজনক বলেই প্রতীয়মান হয়।

পদ্মা ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোঃ লিঃ এর পরিচালনা পর্ষদ কর্তৃক মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা নিয়োগে বীমা আইন, ২০১০ এর ৮০(৪) ধারা এবং ‘বীমা কোম্পানি (মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা নিয়োগ ও অপসারণ) প্রবিধানমালা, ২০১২’ এর লঙ্ঘন করা হয়েছে। এজন্য শুনানি শেষে বীমা আইন, ২০১০ এর ১৩৪ ধারা অনুযায়ী পদ্মা ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোঃ লিঃ এর পরিচালনা পর্ষদ এর চেয়ারম্যানসহ সকল সদস্যদের প্রত্যককে ব্যক্তিগতভাবে ১ (এক) লক্ষ টাকা করে সর্বমোট ২০ (বিশ) লক্ষ টাকা জরিমানা করা হয়। এছাড়াও ০১ মে, ২০১৫ ইং তারিখের মধ্যে মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা নিয়োগে ব্যবস্থা গ্রহণ না করলে পরবর্তী প্রতিদিনের জন্য কোম্পানিকে ৫ হাজার  টাকা করে জরিমানা প্রদান করতে হবে বলে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।
পদ্মা ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোঃ লিঃ এর পরিচালনা পর্ষদের তালিকা নিম্নরূপঃ
০১.  ডাঃ এ.বি.এম. জাফর উল্লাহ, চেয়ারম্যান;
০২.   এ.এফ.এম. ওবায়দুর রহমান, ভাইচ-চেয়ারম্যান;
০৩.  এ.টি.এম. এনায়েত উল্লাহ, পরিচালক;
০৪.  আবু তাহের, পরিচালক;
০৫. জয়নাল আবেদীন জাফর, পরিচালক;
০৬.   ডাঃ নাদিরা সাবরিন, পরিচালক;
০৭. নাজিম উদ্দিন আহমেদ, পরিচালক;
০৮.   ফাতেমা বেগম, পরিচালক;
০৯.   নাজমুন নাহার, পরিচালক;
১০.  ডাঃ এ.কে.এম. আনোয়ারুজ্জামান, পরিচালক;
১১.  এ. টি. এম. রফিক, পরিচালক;
১২.   আব্দুল মুজিব চৌধুরী, পরিচালক;
১৩.  নূরুল ইসলাম চৌধুরী (এফসিএ), নিরপেক্ষ পরিচালক;
১৪.    অ্যাড. দেওয়ান সুলতান আহমেদ, নিরপেক্ষ পরিচালক;
১৫.   আবু সালেহ, নিরপেক্ষ পরিচালক;
১৬.   ফোরকান উদ্দিন আহমেদ (এফসিএ), নিরপেক্ষ পরিচালক;
১৭.   মোস্তাকুল আলম ভূঁইয়া, জনগণের অংশের শেয়ার গ্রহীতা পরিচালক;
১৮. আবুল কাশেম, জনগণের অংশের শেয়ার গ্রহীতা পরিচালক;
১৯.  নার্গিস ওয়াজেদ, জনগণের অংশের শেয়ার গ্রহীতা পরিচালক;
২০.   মোঃ মুনতাসির করিম, জনগণের অংশের শেয়ার গ্রহীতা পরিচালক।

 

শেয়ারবাজার/রু/সা

আপনার মন্তব্য

*

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Top