ঘামলেই শরীর থেকে ঝরে রক্ত!

bloodশেয়ারবাজার ডেস্ক: অতিরিক্ত শ্রম দিলে মানুষের শরীর থেকে লবন ঝড়ে। আর সেই লবনাক্ত পানিকে আমরা ঘাম বলে থাকি। বিজ্ঞান বলছে, অতিরিক্ত শ্রম দেয়ার কারণে প্রত্যকে মানুষের শরীর থেকেই ঘাম ঝড়ে।

কিন্তু ঘামের বদলে এক তরুণীর শরীর থেকে ঝরছে শুধুই রক্ত। অবাক করার মতো এমন ঘটনা ঘটেছে ইতালিতে। তবে তাকে একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

সিডনী মর্নি হেরাল্ডকে ওই নারী তরুণী জানান, সবসময় যে এরকমটা হয় তা নয়। কিন্তু যখন কোনও চাপে থাকেন তখনই সারা শরীর থেকে ঘামের সঙ্গে রক্ত বের হয়। এক থেকে পাঁচ মিনিট পর্যন্ত এই পর্ব চলে। তারপর আবার সব স্বাভাবিক হয়ে যায়। ঘাম-রক্তের আতঙ্কে নিজেকে একদম সমাজ থেকে বিচ্ছিন্ন করেই রেখেছেন তিনি।

যে কোনও স্থানে এই ঘামের কারণে তাঁকে অপ্রস্তুত হতে হয়। তাই নিজেকে লুকিয়ে রাখাই শ্রেয় মনে করেছিলেন। কিন্তু শেষমেশ চিকিৎসকের দ্বারস্থ হয়েছেন। ঘুমের সময়, বা নারী যখন কোনও শারীরিক কাজ করছেন না, তখন এই ঘামের অস্তিত্ব দেখা যায় না। এই তরুণীর অবস্থা নিয়ে গোটা চিকিৎসক মহলে বিপুল সাড়া পড়ে গিয়েছে।

কানাডার মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশনের এক জার্নালে এই অসুখের কথা প্রকাশিত হয়েছে। বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তের চিকিৎসকরাও এ নিয়ে গবেষণা শুরু করেছেন।

কুইনস ইউনিভার্সিটির হেমাটোলজিস্ট জ্যাকলিন ডাফিন জানাচ্ছেন, তিনি এর আগে এরকম অসুখের কথা শোনেননি। কিন্তু পরে খোঁজখবর করতে গিয়ে দেখেছেন, চিকিৎসার ইতিহাসে এ রোগ বিরল নয়। এর আগে বিশ্বে আরও অনেকে এই বিরল রোগের শিকার হয়েছেন।

আপাতত প্রেসার ও হার্টের চিকিৎসা চলছে এই নারীর। তাতে ঘামের সঙ্গে রক্ত বেরনো খানিকটা নিয়ন্ত্রিত হয়েছে। তবে এই চিকিৎসাতে এখনও সম্পূর্ণ সেরে ওঠেননি তিনি।

শেয়ারবাজারনিউজ/মু

আপনার মন্তব্য

*

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Top