বর্তমানে শেয়ারবাজারে হাহাকার নেই: বাণিজ্যমন্ত্রী

expoশেয়ারবাজার রিপোর্ট: ২০১০ সালে শেয়ারবাজার ধসের পর বিনিয়োগকারীদের মধ্যে যেমন হাহকার ছিল, বর্তমানে  তা নেই বলে জানিয়েছেন বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ। বৃহস্পতিবার দুপুর ২টায় ক্যাপিটাল মার্কেট এক্সপো’র উদ্ভোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেন, বাংলাদেশে সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের বিভিন্ন সংস্কারে ও ইতিবাচক পদক্ষেপে ঘুরে দাঁড়িয়েছে শেয়ারবাজার। যার প্রভাবে বিনিয়োগকারীদের বাজার প্রতি অনাস্থা দুর হচ্ছে। ফলে বাজার একটা স্বাভাবিক গতি ফিরে এসেছে।

বহুজাতিক  কোম্পানিগুলো শেয়ারবাজারে  আসছে না উল্লেখ্য করে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, শেয়ারবাজারের উন্নয়নে তাদেরকে আনতে অর্থমন্ত্রানালয়কে বাস্তবমুখী প্রদক্ষপ নেবার উপরে জোর দেন। পাশাপাশি নাম মাত্র  শেয়ার বাজারে অফলোড সস্কৃতি বন্ধের আহবান করেন।

মন্ত্রী বলেন, রাজনৈতি অঙ্গনে স্থিতি থাকলে অর্থনীতির চাকা সচল থাকে এমন মন্তব্যে করে তিনি বলেন, বর্তমান সরকারের আমলে রাজনৈতিক অঙ্গনে স্থিতি থাকায় অর্থনীতি ও শেয়ারবাজারে ইতিবাচক প্রভাব পড়েছে। তবে, ব্যাংকিং খাতের প্রতি আমাদের সবার সর্তক থাকবে হবে।

অনুষ্ঠানে সদ্য প্রয়াত মেয়র আনিসুল হকের কথা তুলে ধরে মন্ত্রী বলেন, আমাদের প্রত্যেককে আরো সৎ হতে হবে। মেয়র আনিসুল তার সততা দিয়ে দেশের মানুষের মনে স্থান করে নিয়েছেন।  আমরা সৎ হলে দেশের প্রত্যেকটি খাতেরই উন্নয়ন হবে। যার ধারাবাহিকতায় আমারা ২০২১ সালে আমরা ডিজিটাল মধ্যম আয়ের দেশে পরিনিত হব।

উদ্ভোধনী বিশেষ অতিথি বিএসইসির চেয়ারম্যান ড. এম খায়রুল হোসেন। এসময় অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সন্মানিত  অতিথি চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) চেয়ারম্যান ড.  এ কে আবদুল মোমেন, ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ  (ডিএসই) ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) কে এ এম মাজেদুর রহমান, ডিএসই ব্রোকার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মোস্তাক আহমেদ ও বাংলাদেশ মার্চেন্ট ব্যাংক অ্যাসোসিয়েশনের ছায়দুর রহমান। এতে সভাপতিত্ব করেন আয়োজক প্রতিষ্ঠান অর্থসূচকের সম্পাদক জিয়াউর রহমান। এছাড়াও এক্সপোতে ব্রোকারহাউজ, মার্চেন্ট ব্যাংক, অ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট কোম্পানি, ক্রেডিট রেটিং এজেন্সি, অডিট ফার্ম এবং পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত কোম্পানিসহ বিনিয়োগকারীরা উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে পুঁজিবাজারে নতুন ব্র্যান্ডিং আর সচেতনতা বাড়ানোর লক্ষ্যে এ স্টেকহোল্ডারদের নিয়ে বর্ণাঢ্য এ মেলার আয়োজন করা হয়।

তৃতীয়বারের মতো আয়োজিত ৩ দিনের এ মেলা প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত উম্মুক্ত থাকবে। এক্সপোতে প্রবেশের জন্য কোনো টিকেট লাগবে না। এছাড়াও প্রবেশে কুপনের র‍্যাফেল ড্রতে মোটরসাইকেল, মোবাইলসহ মূল্যবান সব পুরস্কার জেতার সুযোগ রয়েছে।

এক্সপোর প্রতিদিনই থাকবে পুঁজিবাজার ও অর্থনীতি সম্পর্কিত গুরুত্বপূর্ণ সেমিনার ও কর্মশালা। এক্সপোর  ৭ ডিসেম্বর বৃস্পতিবার বিকালে থাকবে বিদ্যুৎ খাত নিয়ে বিশেষ আলোচনা। এতে তালিকাভুক্ত চার বিদ্যুৎ কোম্পানির প্রধান অর্থ কর্মকর্তা অংশ নেবেন।

এক্সপোর দ্বিতীয় দিনের ৮ ডিসেম্বর শুক্রবার সকাল ১০.৩০ টায় অনুষ্ঠিত হবে বিনিয়োগের কলাকৌশল বিষয়ক আলোচনা। ওইদিন বিকাল ৪ টায় অনুষ্ঠিত হবে এফআরসি ও শেয়ারবাজারঃ প্রত্যাশা ও চ্যালেঞ্জ শীর্ষক সেমিনার। এতে প্রধান অতিথি থাকবেন এফআরসির চেয়ারম্যান। এতে চার্টার্ড অ্যাকাউন্টেন্ট, কস্ট অ্যাকাউন্টেন্ট ও চার্টার্ড সেক্রেটারিরা অংশ নেবেন।

এক্সপোর তৃতীয় দিন ৯ ডিসেম্বর শনিবার বেলা ১১টায় অনুষ্ঠিত হবে ক্যারিয়ার ইন ক্যাপিটাল মার্কেট শীর্ষক সেমিনার। এতে প্রধান অতিথি থাকবেন বিএসইসির সাবেক কমিশনার, বর্তমানে আইডিএলসি ফাইন্যান্সের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. আরিফ খান। ওইদিন বিকাল ৪টায় অনুষ্ঠিত হবে শিল্পায়নে শেয়ারবাজারের ভূমিকা শীর্ষক সেমিনার। এতে প্রধান অতিথি থাকবেন অর্থ প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান।

শেয়ারবাজারনিউজ/এমআর

আপনার মন্তব্য

*

*

Top