করপোরেশনের অনুমোদন ছাড়া ১০ কোটি টাকা ব্যয়ের ক্ষমতা চায় মেঘনা পেট্রোলিয়াম

megnaশেয়ারবাজার রিপোর্ট: পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতের রাষ্ট্রায়ত্ত মেঘনা পেট্রোলিয়ামের পরিচালনা পর্ষদ কোম্পানির উন্নয়ন প্রকল্পে সর্বোচ্চ ১০ কোটি টাকা ব্যয়ের ক্ষমতা চায়।

বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম করপোরেশনের (বিপিসি) অনুমোদন ছাড়াই এ টাকা ব্যয়ের ক্ষমতা চায় মেঘনা পেট্রোলিয়ামের পর্ষদ। এর জন্য কোম্পানিটির সংঘবিধি স্মারক পরিবর্তন করা হবে। তাই কোম্পানি আইন ও সিকিউরিটিজ আইন অনুযায়ী আগামী ২০ জানুয়ারি, ২০১৮ শনিবার সকাল সাড়ে ১০টায় চিটাগং বোট ক্লাবে অনুষ্ঠিত বিশেষ সাধারণ সভায় শেয়ারহোল্ডারদের সম্মতি নেওয়া হবে।

কোম্পানি সূত্র জানায়, বিপিসি’র অনুমোদন ছাড়া উন্নয়ন মূলক নির্মাণ কাজ ও মেশিনারিজ পণ্য প্রভৃতি কেনার জন্য সর্বোচ্চ ১০ কোটি টাকা এবং অনুন্নোয়ন নির্মান কাজ ও মেশিনারিজ পণ্য প্রভৃতি কেনার জন্য সর্বোচ্চ ৮ কোটি টাকা ব্যয় করার ক্ষমতা চায় পর্ষদ। এছাড়া উন্নয়ন মূলক কনসালটেন্সি সার্ভিসিংয়ের জন্য সর্বোচ্চ ২ কোটি টাকা এবং অনুন্নোয়ন কনসালটেন্সি সার্ভিসিংয়ের জন্য সর্বোচ্চ ১ কোটি টাকা খরচ করতে পারবে কোম্পানিটির পরিচালনা পর্ষদ। এর জন্য বিপিসি’র অনুমোদনের প্রযোজন হবে না। তবে নির্ধারিত সীমার চেযে বেশি ব্যয় হলে অবশ্যই বিপিসি’র অনুমোদন নিতে হবে।

এর আগে মেঘনা পেট্রোলিয়াম পর্ষদের এসব খাতে সর্বোচ্চ ১০ লাখ টাকা ব্যয়ের ক্ষমতা ছিল।

এ প্রসঙ্গে কোম্পানির কর্মকর্তারা শেয়ারবাজারনিউজ ডটকমকে জানান, কোম্পানির ব্যবসায়িক উন্নয়ন ও সম্প্রসারণের  সিদ্ধান্ত দ্রুত বাস্তবায়নের জন্য পর্ষদের ক্ষমতা বাড়াতে এমন সিদ্ধান্ত হয়েছে। এতে বিপিসির অনুমোদনও পাওযা গেছে। এখন শেয়ারহোল্ডারদের অনুমোদন নিয়েই সংঘবিধি স্মারক পরিবর্তনের সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন হবে।

এছাড়া কোম্পানিটির পর্ষদকে দুইজন স্বতন্ত্র পরিচালক নিয়োগের ক্ষমতা দেয়া হবে। আগে পর্ষদের একজন স্বতন্ত্র পরিচালক নিয়োগের ক্ষমতা ছিল।

পর্ষদ সভা প্রতি পরিচালকদের রিমিউনারেশন ফি ৮ হাজার টাকা করা হবে। আগে পরিচালকেরা সভা প্রতি ৭ হাজার টাকা করে পেতেন।

সংঘবিধি স্মারক পরিবর্তনের ফলে বিভিন্ন সময়ে সরকারের নীতিমালা অনুযায়ী করপোরেট সামাজিক দায়বদ্ধতা (সিএসআর) খাতে খরচ করতে পারবে কোম্পানিটির পর্ষদ। আগে এ খাতে কোম্পানিটির পর্ষদ কোন অর্থ ব্যয় করতে পারতো না।

উল্লেখ্য, ৩০ জুন ২০১৭ সমাপ্ত হিসাব বছরে কোম্পানিটির পর্ষদ শেয়ারহোল্ডারদের ১১০ শতাংশ ক্যাশ ডিভিডেন্ড দেওয়ার সুপারিশ করেছে। এর জন্য আগামী ২০ জানুয়ারি ২০১৮ তারিখে চিটাগং বোট ক্লাবে সকাল সাড়ে ১১টায় বার্ষিক সাধারণ সভা করবে।

জুলাই ২০১৭ থেকে সেপ্টেম্বর ২০১৭ পর্যন্ত ২০১৭-২০১৮ হিসাব বছরের প্রথম প্রান্তিকে কোম্পানিটির শেোর প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৬.০৩ টাকা।

 

শেয়ারবাজারনিউজ/আ

আপনার মন্তব্য

*

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Top