সোয়া কোটি তরুণ ভোটার স্মার্টকার্ড পাচ্ছে না

শেয়ারবাজার ডেস্ক: স্মার্টকার্ড নিয়ে তরুণদের মাঝে আগ্রহ বেশি। সেই তরুণদের মধ্যে সোয়া কোটি ভোটার পাচ্ছে না স্মার্ট জাতীয় পরিচয়পত্র (স্মার্টকার্ড)। ২০১২ সালের পর থেকে ভোটার তালিকায় অন্তর্ভুক্ত এসব তরুণরা কোনো কার্ডই পায়নি। সরকারি নানা কাজ করতে গিয়ে ভোগান্তির শিকার এসব ভোটারদের লেমিনের্টিং করা জাতীয় পরিচয়পত্র দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)।

আগামী মাসে তাদের মাঝে এনআইডি বিতরণ করার প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে। ইতোমধ্যে কয়েকটি জেলায় কার্ড পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে বলে জানা গেছে।

জাতীয় পরিচয়পত্র অনুবিভাগের পরিচালক (যুগ্ম সচিব) আবদুল বাতেন বলেন, ২০১২ সালের পরে যারা ভোটার হয়েছেন তাদের আপাতত লেমিনেটিং কার্ড দেওয়া হবে। যার মেয়াদ দুই বছর। এরপরে তাদের স্মার্ডকার্ড দেওয়া হবে।

তিনি আরো বলেন, এতদিন এসব ভোটাররা অনেক ভোগান্তির শিকার হয়েছেন। লেমিনের্টিং কার্ড পেলে তাদের ভোগান্তি লাঘব হবে। আগামী মাসের শেষের দিকে কিংবা মার্চের শুরুতে তাদের মাঝে কার্ড বিতরণ করা হবে বলে জানান এই কর্মকর্তা।

ইসির তথ্য অনুযায়ী, দেশের প্রায় সাড়ে ১০ কোটি ১৮ লাখ ভোটারের মধ্যে ৯ কোটির হাতে লেমিনেটেড এনআইডি রয়েছে।

বিভিন্ন নাগরিক সুবিধা পেতে এই জাতীয় পরিচয়পত্রের অনুলিপি জমা দেওয়ার বাধ্যবাধকতাও রয়েছে। কিন্তু স্মার্টকার্ড দেওয়ার প্রকল্প নেওয়ায় বাকি সোয়া কোটির বেশি ভোটারদের কোনো পরিচয়পত্র দেওয়া হয়নি। ২০১২ সালের পরে যারা ভোটার হয়েছেন তারা কোনো ধরণের পরিচয়পত্র পায়নি। ভর্তি-ব্যাংক হিসাব খুলতে হিসাব খুলতে কিংবা পাসপোর্ট করা সহ সরকারি- বেসরকারি সেবা পেতে তারা ভোগান্তির শিকার হয়ে আসছে।

ইসির ১২তম সভায় এসব ভোটারদের লেমিনেটেড এনআইডি দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। সভা শেষে ইসির ভারপ্রাপ্ত সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ জানিয়েছিলেন, ২০১২ সালের পরে যে ১ কোটি ১৮ লাখ ভোটার নিবন্ধিত হয়েছেন, তাদেরকে মূলত কোনো জাতীয় পরিচয়পত্র দেওয়া হয়নি। যেহেতু স্মার্টকার্ড দেওয়া বিলম্বিত হচ্ছে তাই তরুণ প্রজন্মের ভোটাদের এখন লেমিনেটেড জাতীয় পরিচয়পত্র দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে।

দেশে বর্তমানে ভোটার সংখ্যা ১০ কোটি ১৮ লাখ। এর মধ্যে ৯ কোটি ভোটারের হাতে স্মার্ট কার্ড তুলে দেওয়ার কার্যক্রম চলছে। পর্যায়ক্রমে সব ভোটারদের স্মার্ট কার্ড দিতে চায় ইসি।

শেয়ারবাজারনিউজ/মু

আপনার মন্তব্য

*

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Top