৯ বছর পর পুরোপুরি উন্নয়নশীল দেশে পরিণত হবে বাংলাদেশ

শেয়ারবাজার ডেস্ক: প্রকৃত অর্থে ২০২৭ সালে বাংলাদেশ পুরোপুরি উন্নয়নশীল দেশে পরিণত হবে বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। বুধবার সচিবালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা জানান।

অর্থমন্ত্রী বলেন, ১৯৭৫ সালে স্বল্পোন্নত দেশের তালিকায় অন্তর্ভুক্তির পর বাংলাদেশ এবারই প্রথম তিনটি সূচকেই প্রয়োজনীয় মানদণ্ড পূরণে সক্ষম হয়েছে। ২০২১ সালে অনুষ্ঠেয় পরবর্তী ত্রি-বার্ষিক পর্যালোচনায় বাংলাদেশ যদি আবারও মানদণ্ডগুলোর কমপক্ষে দু’টি পুরণে সক্ষম হয় তাহলে সিডিপি জাতিসংঘের অর্থনৈতিক এবং সামাজিক কাউন্সিল এর কাছে বাংলাদেশকে স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উত্তরণের জন্য সুপারিশ করবে। জাতিসংঘের অর্থনৈতিক এবং সামাজিক কাউন্সিল তা অনুমোদন করে জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের কাছে অনুরূপ সুপারিশ করবে। এর তিন বছর পর ২০২৪ সালে বাংলাদেশ আনুষ্ঠানিকভাবে স্বল্পোন্নত দেশের তালিকা থেকে বেরিয়ে আসবে।

তিনি বলেন, স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উত্তরণের আগের তিনবছর (২০২১-২০২৪) বাংলাদেশ তার উন্নয়ন সহযোগীদের অংশগ্রহণে একটি ক্রান্তিকাল কৌশল পত্র তৈরি করবে যা এলডিসি থেকে বেরিয়ে আসার পরবর্তী তিন বছরে ২০২৪-২০২৭) বাস্তবায়ন করা হবে। এ কৌশল পত্র তৈরির মূল উদ্দেশ্যে হল স্বল্পোন্নত দেশ থেকে বেরিয়ে আসার পরবর্তী ধাপে বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সহায়তা কমে আসার প্রেক্ষাপটে বাংলাদেশের উন্নয়ন কার্যক্রম যাতে ব্যাহত না হয় তা নিশ্চিত করা। প্রকৃত অর্থে ২০২৭ সালে বাংলাদেশ পুরোপুরি উন্নয়নশীল দেশে পরিণত হবে

মন্ত্রী বলেন, ২০২৪ সালের আগ পর্যন্ত বাংলাদেশ স্বল্পোন্নত দেশই থাকবে। এসময় মানবসম্পদ উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে স্কুল পর্যায়ে শিক্ষক-শিক্ষার্থী অনুপাত কমানোর পরামর্শ দেন অর্থমন্ত্রী।

তিনি বলেন, উন্নয়নের উপ্রতিরোধ্য অগ্রযাত্রায় এখন বাংলাদেশ। এ ধারাবাহিকতায় ২০৩০ সালের মধ্যে টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জন ও ২০৪১ সালে বাংলাদেশ পৌঁছে যাবে প্রধানমন্ত্রীর প্রতিশ্রুত উন্নত দেশের তালিকায়।

শেয়ারবাজারনিউজ/মু

আপনার মন্তব্য

*

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Top