১৬ মাসের সর্বনিম্নে সূচক: টানা পতনে দিশেহারা বিনিয়োগকারীরা

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সূচকের নেতিবাচক প্রবণতায় লেনদেন শেষ হয়েছে। এদিন লেনদেনের শুরু থেকেই সেল প্রেসারে টানা নামতে থাকে সূচক। এরই ধারাবাহিকতায় দেশের উভয় বাজারের সূচক প্রায় ১৬ মাসের সর্বনিম্ন স্থানে অবস্থান করছে। আজ বৃহস্পতিবার সূচকের পাশাপাশি কমেছে বেশিরভাগ কোম্পানির শেয়ার দর। আর টাকার অংকেও লেনদেন আগের দিনের তুলনায় কিছুটা কমেছে। আজ দিন শেষে ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৩৬১ কোটি টাকা।

এদিকে আজ দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) ব্রড ইনডেক্স প্রায় ১৬ মাসের সর্বনিম্ন স্থানে অবস্থান করছে। এর আগে গত ৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ডিএসইর ব্রড ইনডেক্স ৫৩২২.৮৬৮৫৬ পায়েন্টে অবস্থান করছিলো।

এ প্রসঙ্গে একাধিক মার্চেন্ট ব্যাংক ও ব্রোকারেজ হাউজের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সাথে কথা বলে জানা যায়, বাজারে টানা পতনের কারণে নতুন পুরোনো সব বিনিয়োগকারী পুঁজি হারিয়ে এখন দিশাহারা। বাজার নিয়ে তারা এখন বেশ চিন্তিত। প্রতিদিন সূচক ও কোম্পানিরগুলো শেয়ার দর কমছে। ফলে কমছে লেনদেন। সবমিলিয়ে দুশ্চিন্তায় পড়েছেন বিনিয়োগকারীরা। চলতি মাস থেকে পুঁজিবাজারে একটি নিন্মমুখী প্রবণতা লক্ষ্য করা যাচ্ছে।

আজ দিন শেষে ডিএসইর ব্রড ইনডেক্স আগের দিনের চেয়ে ৫১ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ৫৩৪৩ পয়েন্টে। আর ডিএসই শরিয়াহ সূচক ১২ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ১২৩৮ পয়েন্টে এবং ডিএসই ৩০ সূচক ২৬ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ১৯৭৪ পয়েন্টে। দিনভর লেনদেন হওয়া ৩৩৬টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ৮০টির, কমেছে ২১২টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৪৪টির। আর দিনশেষে লেনদেন হয়েছে ৩৬১ কোটি ৮৮ লাখ ৫৯ হাজার টাকা।

এর আগের কার্যদিবস অর্থাৎ বুধবার ডিএসইর ব্রড ইনডেক্স আগের দিনের চেয়ে ১৩ পয়েন্ট কমে অবস্থান করে ৫৩৯৫ পয়েন্টে। আর ডিএসই শরিয়াহ সূচক ২ পয়েন্ট কমে অবস্থান করে ১২৫১ পয়েন্টে এবং ডিএসই ৩০ সূচক ৪ পয়েন্ট কমে অবস্থান করে ২০০১ পয়েন্টে। আর ওইদিন লেনদেন হয়েছিল ৪৬১ কোটি ৩০ লাখ ৪৮ হাজার টাকা। সে হিসেবে আজ ডিএসইতে লেনদেন কমেছে ৯৯ কোটি ৪১ লাখ ৮৯ হাজার টাকা।

এদিকে, দিনশেষে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সাধারণ মূল্য সূচক সিএসইএক্স ১২১ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ৯ হাজার ৯৭৬ পয়েন্টে। দিনভর লেনদেন হওয়া ২০৫টি কোম্পানির ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ৫০টির, কমেছে ১৪১টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ১৪টির। আর দিনশেষে লেনদেন হয়েছে ২০ কোটি ৩ লাখ ২২ হাজার টাকা।

এদিকে দেশের অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) ব্রড ইনডেক্স সিএসইএক্স প্রায় ১৬ মাসের সর্বনিম্ন স্থানে অবস্থান করছে। এর আগে গত ৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ডিএসইর ব্রড ইনডেক্স ৯৯৭৬.৩৯৫২ পায়েন্টে অবস্থান করছিলো।

শেয়ারবাজারনিউজ/মু

আপনার মন্তব্য

*

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Top