আজ: মঙ্গলবার, ২৯ নভেম্বর ২০২২ইং, ১৪ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৪ঠা জমাদিউল আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

০৭ এপ্রিল ২০২১, বুধবার |


kidarkar

৭৫ টাকায় লেনদেন শুরু ইনডেক্স এগ্রোর


শেয়ারবাজার ডেস্ক : প্রাথমিক গণপ্রস্তাব (আইপিও) প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা ইনডেক্স এগ্রো ইন্ডাস্ট্রিজের শেয়ার প্রথম দিন ৭৫ টাকায় লেনদেন শুরু হয়েছে। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

জানা গেছে, কিছু সময়ের মধ্যেই কোম্পানিটির ১০ হাজার ৯৫০টি শেয়ার ১১৩ বার হাত বদল হয়েছে। কোম্পানিটির শেয়ার লেনদেন ৭৫ টাকায় শুরু হয়েছে। অর্থাৎ প্রথম দিন কোম্পানিটির শেয়ার দর সর্বোচ্চ সীমা ২৫ টাকা বা ৫০ শতাংশ বেড়েছে। আইপিওতে কোম্পানিটির প্রতিটি শেয়ার বরাদ্দ দেয়া হয়েছে ৫০ টাকা করে।

‘এন’ ক্যাটাগরিভুক্ত ইনডেক্স এগ্রো ইন্ডাস্ট্রিজের ডিএসইতে ট্রেডিং কোড হচ্ছে : “INDEXAGRO” এবং কোম্পানি কোড হচ্ছে : ৯৯৬৪৩।

বুক বিল্ডিং পদ্ধতিতে শেয়ারবাজার থেকে অর্থ উত্তোলনের অনুমোদন পাওয়া ইনডেক্স এগ্রো ইন্ডাস্ট্রিজের প্রাথমিক গণপ্রস্তাবে (আইপিও) আবেদনকারীদের মধ্যে বরাদ্দ দেয়া শেয়ার বিজয়ীদের বেনিফিশিয়ারি ওনার্স (বিও) হিসাবে গত ৪ এপ্রিল প্রেরণ করা হয়েছে। এর আগে আইপিওতে আবেদনকারীদের মধ্যে শেয়ার বরাদ্দ দেয়ার জন্য গত ২২ মার্চ লটারির ড্র অনুষ্ঠিত হয়।

কোম্পানিটির আইপিওতে গত ২২ ফেব্রুয়ারি থেকে ২৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত আবেদন গ্রহণ করা হয়। ২৩ ডিসেম্বর নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) ৭৫৪তম সভায় কোম্পানিটির আইপিও অনুমোদন দেয়া হয়।

কোম্পানিটি বুক বিল্ডিং পদ্ধতিতে ৮২ লাখ ৫৩ হাজার ৬৪৯টি শেয়ার ইস্যুর মাধ্যমে শেয়ারবাজার থেকে ৫০ কোটি টাকা উত্তোলন করে। এর মধ্যে ৪৩ লাখ ৬০ হাজার ৩৮৪টি শেয়ার প্রতিটি ৫০ টাকা মূল্যে (প্রান্ত সীমা থেকে ২০ শতাংশ বাট্টায়) ইস্যুর মাধ্যমে ২১ কোটি ৮০ লাখ ১৯ হাজার ২০০ টাকা উত্তোলন করে।

আর বাকি ৩৮ লাখ ৯৩ হাজার ২৬৫টি শেয়ার কাট-অফ প্রাইসে অর্থাৎ ৬২ টাকা করে যোগ্য বিনিয়োগকারীদের কাছে ইস্যুর মাধ্যমে ২৪ কোটি ১৩ লাখ ৮২ হাজার ৪৩০ টাকা উত্তোলন করে।

কোম্পানিটির কাট-অফ প্রাইস নির্ধারনের জন্য গত ১ নভেম্বর বিকাল ৫টা থেকে ৪ নভেম্বর বিকাল ৫টায় নিলাম অনুষ্ঠিত হয়। আর গত ১০ সেপ্টেম্বর বিএসইসির ৭৩৯তম সভায় কোম্পানিটির বিডিংয়ের অনুমোদন দেয়া হয়।

শেয়ারবাজার থেকে উত্তোলিত অর্থ দিয়ে কোম্পানিটি ভবন নির্মাণ, যন্ত্রপাতি ও উপকরণ ক্রয় এবং আইপিও খরচ খাতে ব্যয় করবে।

৩১ ডিসেম্বর ২০২০ সমাপ্ত ছয় মাসের (জুলাই-ডিসেম্বর) অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি মুনাফা হয়েছে ৩.৩৬ টাকা। যা আগের বছর একই সময়ে হয়েছিল ৩.৬২ টাকা। আর ২০২০ সালের ৩১ ডিসেম্বর কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি সম্পদ (এনএভিপিএস) দাঁড়িয়েছে ৫৫.১৭ টাকায়।

কোম্পানিটির ইস্যু ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে নিয়োজিত রয়েছে এএফসি ক্যাপিটাল লিমিটেড এবং ইবিএল ইনভেস্টমেন্ট।


আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.