আজ: শুক্রবার, ১২ অগাস্ট ২০২২ইং, ২৮শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১২ই মহর্‌রম, ১৪৪৪ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

২৮ অগাস্ট ২০২১, শনিবার |



kidarkar

জুভেন্টাস ছেড়ে ম্যানইউতে ফিরছেন রোনালদো

স্পোর্টস ডেস্ক: গত কয়দিন ধরে দল-বদলের বাজার গরম করে রেখেছেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। তবে পর্তুগিজ তারকাকে দলে ভেড়ানোর রেসে সবার আগে ছিল ম্যানচেস্টার সিটির নাম। ম্যানসিটির সঙ্গে দুই বছরের চুক্তির কথাও শোনা যায় স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যমগুলোতে। কিন্তু শুক্রবার হুট করে পাল্টে গেছে দৃশ্যপট। রোনালদো ম্যানচেস্টারেই ফিরছেন তবে সেটা ম্যানচেস্টার সিটিতে নয়, ইউনাইটেডে।

সব নাটকীয়তার অবসান ঘটিয়ে ঘরের ছেলেকে ঘরে ফেরাল ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। নিজেদের ওয়েবসাইটে বাংলাদেশ সময় রাত ১০টার দিকে খবরটি জানিয়েছে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের ক্লাবটি।

জুভেন্টাসের সঙ্গে রোনালদোর দলবদল মূল্য নিয়ে চুক্তি হয়ে গেছে ম্যানইউর। রোনালদোর স্বাস্থ্যপরীক্ষা ও তাঁর সঙ্গে ম্যান ইউনাইটেডের চুক্তির আনুষ্ঠানিকতা সারলে আসবে বাকি ঘোষণা।

বিবৃতিতে ম্যানইউ বলেছে, ‘রোনালদোর দলবদলের বিষয়ে জুভেন্টাসের সঙ্গে সমঝোতায় পৌঁছতে পেরে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড উচ্ছ্বসিত। এখন ব্যক্তিগত কিছু বিষয়, ভিসা এবং মেডিকেল করা বাকি।’

এদিকে জুভেন্টাস কোচ আল্লেগ্রিও জানিয়ে দিয়েছেন রোনালদোর তুরিন ছাড়ার কথা। সংবাদ সম্মেলনে আল্লেগ্রি আনুষ্ঠানিকভাবেই জানিয়ে বলেন, ‘রোনালদো গতকাল আমাকে বলেছেন, অবিলম্বে তিনি জুভেন্টাস ছাড়তে চান। এটা সত্যি এবং নিশ্চিত। এই কারণেই তিনি আজ অনুশীলন করেননি এবং আগামীকাল এম্পোলির বিপক্ষে ম্যাচে তিনি থাকছেন না।’

গ্রীষ্মকালীন দলবদলের প্রায় শেষ দিকে দলের তারকা খেলোয়াড়কে হারালেও হতাশ নন জুভেন্টাস কোচ। রোনালদোর ভবিষ্যতের জন্য শুভকামনা জানালেন তিনি, ‘রোনালদো আমাকে হতাশ করেননি। তিনি এই ক্লাব ছাড়তে চান এবং তিনি নিজে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। এখানে তিন বছর থাকার পর তিনি একটি নতুন ক্লাব খুঁজেছেন। অনেক গ্রেট ও চ্যাম্পিয়ন ফুটবলার, এমনকি দারুণ সব ম্যানেজার ক্লাব ছেড়ে গেছেন। এটাই জীবনের নিয়ম। কিন্তু ক্লাব সব সময় থেকে যাবে। রোনালদো ক্লাবের জন্য অনেক করেছেন। তিনি দারুণ এক চ্যাম্পিয়ন। যেখানেই খেলুক, তাঁর জন্য আমার শুভ কামনা থাকবে। এখানে তাঁর অবদান ছিল অনেক। আমি গত মৌসুমগুলোতে ট্রেনিং করিয়েছি, তিনি সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়েছেন। তাই জুভেন্টাসের জন্য তিনি যা করেছেন, সেজন্য কেবল কৃতজ্ঞতাই জানানো যেতে পারে।’

২০০৩ থেকে ২০০৯ সাল পর্যন্ত ছয় বছর ম্যানইউতে ছিলেন পর্তুগিজ তারকা। এরপর পাড়ি জমান রিয়াল মাদ্রিদে। ২০০৯ থেকে সেখানে কাটান ২০১৮ সাল পর্যন্ত। ২০১৮ সালেই রিয়ালের সঙ্গে ৯ বছরের সম্পর্ক ছিন্ন করে জুভেন্টাসে নাম লেখান রোনালদো। রিয়াল-জুভেন্টাস ঘুরে ফের নিজের পুরোনো ক্লাবে ফিরলেন সিআর সেভেন।

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.